নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

\n

মা.হাসান

মা.হাসান › বিস্তারিত পোস্টঃ

মন ভালো করা কিছু খবর

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৩২

তাহাজজুদ পড়িস ব্যাটা?



ও ছার, ঝাড়ুদার পদে লিয়োগ পাইতে কত দিতে হবে?



আবার মারধোরের কি দরকার ছিল



আপনারা মন মতো মন্তব্য বসাইয়া নিন, আমি গলায় ফুলের মালা না দেখে হতাশ





মাইন্ড করেন ক্যান, আমরা-আমরাই তো




তুমি চান্দু আসল প্রশ্ন ফাঁস জেনারেশন, প্রশ্ন ফাঁস হবার পরও উত্তর না খুঁইজা প্রশ্ন সিলেবাশের বাইরে থেইকা হইলো ক্যান জিগাও




সত্যি সত্যি মারিয়া ফেলিলেইতো ভুল সংশোধন হইয়া যায়



গ্রেট এক্সপেকটেসন




বড় আসস্ত হইলাম, আজ রাতে নিশ্চিন্তে ঘুমাইবো। রুনী-সাগরের সিরিয়াল কবে মিলিবে?




আবে হালায় হলুদ চামবাদিক, টেকার পর মাত্র লিখতে হয় জানস না?



১০০তে ১০০ পেতে সিইসি কে এম নুরুল হুদার সাহায্য নিন।




নৌকা লাঙল ভাই ভাই, ভোটারদের দরকার নাই




কবির , ম্যাডামরে আর এক বালতি পানি দাও




রক্তের গ্রুপ - লিবসটিক পজেটিভ





মন্তব্য ৫০ টি রেটিং +১২/-০

মন্তব্য (৫০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৪৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: মন ভালো হয়েছে। আপনাকে অনেক অনেক ধন্যবাদ।
অনেকের মনই ভালো হবে, আবার অনেকের মন খারাপও হতে পারে। দু‘টার জন্যেই তৈরী থাকেন।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৫৯

মা.হাসান বলেছেন: সামুর ব্লক ওঠার খবর ছাড়া আর কোন খবরে সকল পক্ষ আনন্দ প্রকাশ করার বিষয়ে এক মত হবে বলে মনে হয় না। ঐ ঘটনার জন্য আরো ৪ বছর অপেক্ষা করতে হবে বলে মনে হয়।
আপনার মন ভালো হওয়ায় আমি খুশি।
আপাতত প্রস্তুত আছি।
প্রথম মন্তব্য আপনার কাছ থেকে পাওয়ায় বেশি ভালো লেগেছে।

**এই মুহূর্তে উপস্থিত ব্লগারদের তালিকাটা একবার দেখে নেন, বিশেষ একজনকে অনেক দিন পরে দেখছি। :P

২| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:১৩

নীল আকাশ বলেছেন: রূপা ম্যাডামের মন্তব্য পড়ে আমি মুগ্ধ। এই যাবতকালের সবচেয়ে সেরা পারফরমেন্স এই কমিশনারের।
তবে উনি উনার দেশ কিংবা উনার দেশে বাকি লোকজনের মতো বেঈমান নয়। এতটুকু প্রশংসা করার জন্য উনাকে আসছে বছরের একুশে পদক দেবার জোর দাবী জানাচ্ছি।
শুভ রাত্রী। ভালো মন নিয়েই ঘুমাতে যাব।

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:২৭

মা.হাসান বলেছেন: ভারতীয় সিভিল সার্ভেন্টরা আমাদের সিভিল সার্ভেন্টদের চেয়ে বেশি পরিশ্রমি, বেশি প্রফেশনাল এবং দেশকে বেশি ভালোবাসেন বলে আমার মনে হয়। আমরা ওদের চেয়ে এগিয়ে আছি ফুটানি করায়।

দিবেন ই যখন তখন একুশে পদক কেন, আরো বড় কিছু দেয়া ভালো।
শুভ রাত্রী।

৩| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:১৫

ভুয়া মফিজ বলেছেন: দেখলাম। তবে, আমি যাকে দেখছি.....আপনি তাকেই দেখছেন কিনা জানি না! :D

১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৩০

মা.হাসান বলেছেন: উনি বহুদিন পরে ব্লগে আসা এক ক্রিড়া বিশেষজ্ঞ, আমার মনে হয় একই জনের কথা আমরা ভাবছি, ঠিক তো? :-B

৪| ১৫ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৩৬

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ঠিক আছে......আপনার ভাবনায় কোন ভুল নাই।
তবে, উনি নিশ্চুপ কেন বুঝতে পারছি না। আসলে এরা মুখ খুললেও ভয় লাগে, না খুললেও ভয় লাগে!!! :#)

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৪

মা.হাসান বলেছেন: গতকাল রাত ৮টা-১০টা (বাংলাদেশ সময়) বাংলাদেশ -ভারত ফুটবল খেলা ছিল। মনে হয় ব্লগে রিঅ্যাকশন দেখটে আসছিল। ব্লগে যে রকম রিসিপশন পায় তাতে মনে হয় নতুন লেখা লিখার সাহস পায় না। তবে পুরাতন মুখ দেখতে ভালো লাগে। মন খারাপ করবেন না, বিনোদন হিসেবে নেবেন।

৫| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:৩৮

নীল আকাশ বলেছেন: মন ভালো করার জন্য যখন পোস্ট দিয়েছেন, এখানে যারা মন্তব্য করবেন তাদের মনটাও তো ভালো করা দরকারঃ

ভূপেণ জিগাইলোঃ "কর্তা, একাত্তরে মুক্তিযুদ্ধে আমরা কি পাইলাম?

কর্তা আরাম করে হুকো টানছিলেন। আয়েসে চোখ অনেক আগেই বন্ধ হয়ে এসেছিল।
ভূপেণের প্রশ্ন শুনে গলায় ধোয়া টোয়া আটকে বিশ্রী কান্ড হয়ে গেল। চোখ মহা বিরক্ত হয়ে খুললেন।
কোনরকমে কাশি চেপে ক্রোধান্বিত গলায় বললেনঃ "এ কেমন প্রশ্নের ধারা ভূপেণ, তুইও দেখি দিন দিন রাজাকার হয়ে উঠছিস! মুক্তিযুদ্ধে আমরা একটা পতাকা পেয়েছি, মানচিত্রে জায়গা পেয়েছি, একটা স্বাধীন দেশ পেয়েছি। কিরে নিমকখারাম ব্যাটা, আর কি চাস?"

ভূপেণ মিনমিনে গলায় পূনরায় জিগাইলঃ "আর ভারত যে এত কিছু করলো তারা কি পেয়েছে কর্তা"?

প্রশ্ন শুনে কর্তা উদাস হয়ে গেলেন। ১৯৭২ থেকে গুনতে শুরু করে কর্তা নিজেই তালগোল পাকিয়ে ফেললেন।

ভূপেণ জবাবের জন্য কিছুক্ষণ অপেক্ষা করেও জবাব না পেয়ে নিজেই স্বগতোক্তির মত করে বললঃ "ভারত একটা ললিপপ পেয়েছো গো কর্তা! সেই স্বাধীনতার পর থেকেই চুষে যাচ্ছে আর চুষেই যাচ্ছে"!

ব্লগের সবার কাছে জানতে চাই, আর কতদিন এভাবে ললিপপ চুষতে দেবেন?

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩৮

মা.হাসান বলেছেন: আপনার বড় হিংসা, ললিপপ পান নাই তাই।
র‌্যাব-পুলিশ- যাদের ললিপপ নাই সবাই এখন আঙুল চোষে। বিকল্প হিসেবে আপনি চুষনি চুষিতে পারেন ।



বেশি হিংসা করিলে মানবিক দাওয়াই- ক্রিকেট স্ট্যাম্প......

৬| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১:২৫

ওমেরা বলেছেন: হাসি - কান্নার পোষ্ট।

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪২

মা.হাসান বলেছেন: ভাইরে- আপনি, মফিজ ভাই, সোহানী আপা -আরো অনেকেই এত মন খারাপ করা পোস্ট দিয়েছেন, এক বার পড়লে সারাদিন মনটা খারাপ থাকে। কয়েকটা পোস্টে কষ্টের কারণে মন্তব্যও করিনি। আমরা সামান্য মানুষ, কতটুকু পরিবর্তন আনতে পারি। দুঃখ ভুলে থাকার সাময়িক চেষ্টা আর কি।

৭| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৬:০১

ইসিয়াক বলেছেন: মন ভালো হলো । ভালো লাগলো ।
সুপ্রভাত

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪৭

মা.হাসান বলেছেন: রফিক ভাই, সকালে আপনার মন্তব্য দেখেছি, আপনার মন ভালো হয়েছে শুনে আমারো মন ভালো হয়েছিল। ব্যস্ততা ছিল জবাব দিতে পারিনি। আপনার কালকের পোস্টটা পড়ার সাহস আমার নেই। মফিজ ভাই বলেছেন চোখ বন্ধ রাখলে প্রলয় বন্ধ হয় না- সত্য। তবে যে চোখ খোলা রাখবে সে আগে থেকেই কষ্ট পাবে, যে চোখ বন্ধ রাখবে তার কষ্ট শেষ মুহূর্তে আসবে । অনেক শুভেচ্ছা।

৮| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৭:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: এই ধরনের নিউজ পড়াই ছেড়ে দিয়েছি। বিরক্ত লাগে।

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:০১

মা.হাসান বলেছেন: আমিতো পত্রিকায় এই ধরনের খবরই পড়ি, এর বাইরে তো থাকে ক্রয়-বিক্রয়, পাত্র চাই, বাড়ি ভাড়া- আরো কিছু কি পেপারে থাকে নাকি?

৯| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৭:৪৪

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: বেশ বেশ বেশ।

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:০২

মা.হাসান বলেছেন: আড্ডা ঘর থেকে বের হয়েছেন দেখে ভালো লাগলো। সুধীর বাবুদের নিয়ে আরেক পর্ব লিখুন না প্লিজ :D

১০| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৭:৫৪

বলেছেন: উস্তাদ,
ডানে না বামে....
যেদিক গেলে মন ভালা হয় ---
তালে উড়পে দিয়া চলো --- মনটা পুরাই ভালা হয়ে গেলো হালায়।।।


ছোড একটা কারেকশন --- ""রীতা গাঙ্গুলি ম্যামকে এক বালতি তাহেরী চা ঢেলে দাও ""


মজা পেলুম উস্তাদ।।।

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:০৫

মা.হাসান বলেছেন: সার মাথা টিপে দেব?
-- না।
সার চা করে দেব?
-- না ।
সার টেলিভিশন চালু করে দেব?
-- না।
সার তাহলে কি করবো?
-- কি ও করতে পারবা না।

সামনে -পিছে- ডানে - বায়ে- উপরে - নিচে- কোন দিক দিয়েই যাওয়া যাবে না-- যদি উপর ওয়ালার মর্জি না হয়।

ভালো থাকবেন।

১১| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৯:০২

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: হা হা হা

বেশ বেশ বেশ
একেবারে মালাই চমচম সরেস ;)
শেষ হয়েো হয়না শেষ
রয়ে যায় মনে আবেশ :)

পুরা জাতিরে তাহাজ্জুদের চেতনা বোঝানোর জন্যি স্বগ্গে গেলমান টেলমান পাবে নিচ্চয়ই :P

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:০৭

মা.হাসান বলেছেন: সগ্গে চপ-সিঙ্গাড়া-মালাই-চমচম-হুর-গেলমান যাই দেন না কেন সাপ্লায়ার চেতনাধারী না হইলে কিন্তু সমস্যা।

১২| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৯:১৩

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: পরিশ্রমী পোস্ট...

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:১৭

মা.হাসান বলেছেন: ভাই মানছি ফাকিবাজীর পোস্ট, শুধু কপি পেস্ট করেছি। হাতে কিছুটা ব্যস্ততা, লিখতে সময় পাচ্ছি না।
--সময় না পেলে লিখবো না, কিন্তু ফাকিবাজি দিয়ে পোস্ট কেন?
-- কারণ ব্লগে সবার মাঝে একটা চাপা বেদনা। মন খারাপ। যাদের কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়গামী ছেলে-মেয়ে বা ভাই বোন আছে তাদের মন বেশি খারাপ। দেশে অনেকেই সব সময়ে আতঙ্কে থাকেন কখন কি হয়, প্রবাসীরাও এবার আতঙ্কিত। পরিস্থিতি হালকা করার জন্যই এই লঘু পোস্ট।
অনেক শুভ কামনা।

১৩| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৩২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় মা.হাসান ভাই,

বুঝতে পারছি না, আমার করনীয় কি? হাসবো না কাঁদবো?
পোস্ট জম্পেস হয়েছে। আর আপনার পোস্ট মানে বরাবরই ভিন্ন স্বাদে ঠাসা। ++
শুভকামনা জানবেন।

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:২৫

মা.হাসান বলেছেন: পদাতিক ভাই- হাসি-কান্নার দোটানায় থাকলে ভেঙচি কাটবেন।
রাচি ভ্রমন নিয়ে দুপাতা লিখলে বুঝতাম টিউনিং করানোর জন্য জায়গাটা কত ভালো।

আনন্দবাজার ছাড়া ভারতের অন্য পত্রিকা বেশি একটা পড়া হয় না। ব্লগে ভারতের পাঠক কম বলে ওখান থেকে কিছু দেইনি।
আপনার জন্য এটা--


অনেক শুভ কামনা।

১৪| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১২:১৯

ঢাবিয়ান বলেছেন: ভারতীয় রাস্ট্রদুত সত্য কথাই বলেছে। এই দেশে যে আদর যত্ন পায় তারা একশ ভাগের এক ভাগও অন্য দেশে পায় না।

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:৩৯

মা.হাসান বলেছেন: বড় একপেশে হয়ে গেল। মোদিজি বলেছেন পাকিস্তান কে এক ফোটা পানি দেয়া হবে না। বাংলাদেশ গঙ্গা দিয়ে লক্ষ লক্ষ কিউসেক পানি পাচ্ছে। ভারতে বাইরে থেকে কয় জন এসে টেগর পিস অ্যাওয়ার্ড পায়?
আমরা খাই, খেয়ে অস্বীকার করি, বলি খাবার ভালো ছিলো না, পরিমানে কম ছিল- কতো কি। ওনাদের সৌজন্যবোধ দেখুন! এমন অতিথি ঘরে আসলেও গৃহস্থের কল্যান হয়। B-)

১৫| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:০৬

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: ব্লগের অনিবার্য গুমোট পরিবেশে কিছুটা স্বস্থি দেয়ায় মা, হাসান ভাইকে একটা উপহার-

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৭

মা.হাসান বলেছেন: ধন্যবাদ লিটন ভাই, তালা বদ্ধ করিয়া রাখিলাম।



ছবি সূত্র- আমার ১২ বছর বয়সি ভাগিনা, যাহার সাব চাইতে প্রিয় খাবার মুরগি, কিন্তু পিয়াজ ছাড়া মুরগি রান্না সম্ভব নহে বলিয়া তাহার বাসায় মুরগি ঢুকিতেছে না, সে ইদানিং খুব বিষন্ন।

১৬| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ২:২২

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন: - চাঁদগাজী কোথায়?

১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫১

মা.হাসান বলেছেন: আজ সকালে একজন বৃক্ষবাসি মার্ক্সিজমকে ধর্মের সাথে তুলনা করায় তিনি খুব গোস্বা করেছেন। তাৎক্ষনিক ভাবে ব্লগে গোস্বা ওগরানোর মতো কাউকে না পেয়ে মনে হয় গো্স্বা ওগরানোর জন্য নিউইয়র্কের রাস্তায় মনের মতো লোক খুঁজছেন। শীঘ্রই প্যাচা মার্কা পোস্ট আসিতে পারে।
অনেক শুভ কামনা।

১৭| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫৩

জুন বলেছেন:
ঝেটিয়ে বিদায় করতে গিয়ে যদি হাতের কাছে ঝাড়ু না পায় তাই অগ্রিম দিয়ে গেলাম মা হাসান /:) B:-/
+

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৮:৩৯

মা.হাসান বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। পার্ফেক্ট ছবি । ফুল ঝাড়ু চাইতে শলার ঝাড়ুই এই কাজে বেশি উপযোগী। তবে আজ থেকে কুড়ি পঁচিশ বছর আগে মধ্যবিত্তের বাথরুমে, এবং এখনো গরু ওয়ালা গৃহস্থের গোয়াল ঘরে মাথাভাঙ্গা, ক্ষয়ে যাওয়া শলার ঝাড়ু দেখা যায়। বর্তমান ক্ষেত্রে নোংরা পরিষ্কারের জন্য ওগুলি পাওয়া গেলে মন্দ হতো না। আমি এখন একটা কাজে ঢাকার বাইরে, তিন দিনের জন্য। আগামীকাল বিকেলে এক গৃহস্থের গোয়াল ঘরে যাওয়ার সম্ভাবনা আছে। যদি ওরকম ঝাড়ু দেখি তবে এখানে একটা ছবি এড করে দেবো ।

আপনার শেষ পোস্টে আমার মন্তব্যের জবাবে যা বলেছিলেন তার প্রেক্ষিতে বলতে চাই। পারিবারিক ব্যস্ততা, কর্মব্যস্ততা এবং শেষে অসুস্থতার জন্য ভ্রমন নিয়ে লেখা পোস্ট করার সুযোগ হয়নি । তবে গত কয়েক দিনে কিছুটা লিখেছি। সোমবার বা মঙ্গলবারে প্রথম কিস্তি পোস্ট করব, তবে আশংকা করি আপনার জন্য নতুন কিছু থাকবে বলে মনে হয় না ।

অনেক শুভকামনা ।

১৮| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রতিমন্তব্যে আবার আসা। সাম্প্রতিককালে আমার বেশি ব্যস্ততার কারণ সম্পর্কে আপনি অবগত আছেন। যে কারণে ব্লগে সময় দেওয়া খুব কঠিন হয়ে দাঁড়াচ্ছে। রাঁচির পাগলা গারদ দর্শনের আর সুযোগ হয়নি কিন্তু জল-হাওয়াতেই কিছুটা কাজ হয়েছে বলে মানসিকভাবে ফুরফুরে লাগছে। যার নিদর্শন আগামীতে কিছু লেখালেখিতে অবশ্যই পাবেন।

শ্রদ্ধেয় দিলীপ ঘোষ সম্পর্কে আপনি যেই স্ক্রিনশটটি করেছেন তা দিয়ে ওনার চরিত্রকে যতটা কালিমালিপ্ত চেষ্টা করুন না কেন আমরাও সবাই ভুলছি না। দিলীপ ঘোষ সিংহ সদৃশ্য একজন বীর্যশালী পুরুষ। আধুনিকতার নামে ঊশৃংখল ছাত্রছাত্রীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশকে যেভাবে কলুষিত করছে, দিলীপ ঘোষের মত মানুষরা তা দেখে আমার আপনার মত নীরব থাকতে পারেন না। কাজেই ওনার সামান্য এরূপ শিক্ষার মধ্যে কোন দোষ-ত্রুটি দেখিনা।
পাশাপাশি আপনাকে অবগত করি যে এই মুহূর্তে আমরা মানসিকভাবে অত্যন্ত হতাশ। মেকিং ইন্ডিয়ার রূপকার মোদিজি যেভাবে আসমুদ্রহিমাচল সমস্ত মানুষকে এক বর্ণে এক ধর্মে পরিণত করে নয়া ভারত গড়তে চলেছেন তাকে সম্মান জানিয়ে নোবেল কমিটি বিশ্ব শান্তিতে নোবেল পুরস্কার দিতেই পারতেন। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য এই মুহূর্তে কারিশমার দিক থেকেও বিশ্ব রাজনীতিতে ডোনাল্ড ট্রাম্পের পরেই যার স্থান সেই মোদীজিকে বাদ দিয়ে ছোট্ট দেশ ইথিওপিয়ার প্রধানমন্ত্রীকে নির্বাচিত করে নোবেল কমিটি নিজেদের অপদার্থতার পরিচয় রেখেছেন তাই নয় একাসনে বসা ডোনাল্ড ট্রাম্প/মোদিজির মত লোককে অসম্মান করেছেন। যদিও আমরা বিচলিত নই। মোদিজি নোবেল পুরস্কার পাওয়ার অনেক অনেক ঊর্ধ্বে।

এক্ষেত্রে বরং সাময়িক অপ্রাপ্তিতে দিলীপ ঘোষের মত গুণীজনেরা সামান্য বেফাঁস কথা বলে থাকেন সেটাকে প্লিজ খারাপ অর্থ নেবেন না। আর তাছাড়া উনি তো আর পা ভাঙ্গার কথা বলেননি। ওরে বাবা!কি আছে অপ্রোজনীয় একটা হাত যদি ভাঙ্গা যায় তা নিয়ে এতো হৈ হট্টগোল করার বা কি আছে? আমরা একটা হাত দিয়ে কি খেতে পড়তে পারিনা? আর তাছাড়া দলটার একটা ঐতিহ্য আছে। তারা কংগ্রেসের মতো ভগ্ন মেরুদন্ডের নয়। সোজা কথা সোজা ভাবেই বলতে পারে।

আপনার না কেমন যেন নিন্দুক, শুধু খারাপ দিক খুঁজে খুঁজে বেড়ান। এইযে ভালো দিকটা দেখুন, সগ্গত সাভারকার এ বছর ভারতরত্ন উপাধি পেতে চলেছেন। সুতরাং তাদের সঙ্গে সরাসরি ভগবানের যোগ। খোদ সর্গ্গ থেকে সাভারকার সম্মান নিতে আসবেন সেখানে আপনারা মনুষ্যকুল কোন গোল বাঁধালেও তা গ্রাহ্য হবে না। দুই একটা হাত পা ভাঙলেও জানবেন তা বিফলে যাবেনা; সগ্গ নিশ্চিত।


শুভকামনা প্রিয় মা.হাসান ভাইকে।

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৮:৪৭

মা.হাসান বলেছেন: আপনি যে বোমা ফাটালেন তা অপ্রত্যাশিত ছিল । আমার আগের পোস্টটি আপনি কিন্তু পড়েছেন। ওখানে কিন্তু আমি মোদিজীর নোবেল পাওয়ার পক্ষে যুক্তি দেখিয়েছি । ভারতরত্ন উপাধি পেতে যাওয়া সাভারকার ভারতের জাতীয় বীর। শিশুদের আদর্শ। শিশুরা বড় হয়ে সাভারকারের মত হোক। সমস্যা একটাই, সমাজের নতুন গান্ধী না জন্মালে সাভারকার রা মারবে কাদের?। নিচু জাতের লোকেরা এবঙ মুসলমানরা একটা বিকল্প হতে পারে।

১৯| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৫৬

ঢাবিয়ান বলেছেন: মন ভাল করা রারেকটি খবর এসেছে আজকের প্রথমআলোয়। রাস্তায় চলাচলে সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে: প্রধানমন্ত্রী

নিরাপদ সড়ক নিশ্চিত করতে এর এর চেয়ে ভাল প্রেস্ক্রিপশন আর কি হতে পারে !!

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৮:৫২

মা.হাসান বলেছেন: বড় মানবিক কথা, জাতি বড়ই আনন্দিত।
ঠিক উত্তরের নিচে দাগ দিন-- এমন সুন্দর কথা শুনিয়া কি বলিতে হয়?
১ কেয়া বাত কেয়া বাত।
২ মারহাবা।
৩ হালেলুইয়া
৪ জয়....

২০| ১৬ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৭

আহমেদ জী এস বলেছেন: মা.হাসান,




তেতো ক্যাপশান সহ মন ভালো করা খবরই বটে.............

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৮:৫৬

মা.হাসান বলেছেন: ছোটবেলায় বড়দের কাছে শুনেছি এবং পরবর্তীতে নিজের অভিজ্ঞতায় দেখেছি কোন কোন জ্বর আসলে মুখ তেতো হয়ে যায়, যে কোন সুস্বাদু খাবার ও তেতো লাগে । জ্বর সরাবার জন্য দুইটি ওষুধ। চেতনার বড়ি এবং ক্রিকেট স্টাম্পের বাড়ি। আমার কাছে প্রথম টিই পছন্দ।
অনেক শুভকামনা ।

২১| ১৭ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪৮

ঘুটুরি বলেছেন: ধন্যবাদ, মন ভালো হয়েছে

১৭ ই অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১২

মা.হাসান বলেছেন: অপর কারো মন ভালো লাগার উপলক্ষ্য হতে পেরেছি জানলেও ভালো লাগে। দীর্ঘমেয়াদে মন খারাপ থাকলে তাতে নিজের স্বাস্থ্যের ক্ষতি হয়, অন্য কারো উপকার হয় না, সমস্যার সমাধানও হয়না।

২২| ১৮ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৪৩

আরোগ্য বলেছেন: দেরিতে মন্তব্যে আসলাম, মাইন্ড কইরেন না, আমরা আমরাই তো। ;)

১৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:১৬

মা.হাসান বলেছেন: আমরা আমরাই তো , মাইন্ড করার কিছু নাই। তবে আপনার কি মন ভালো হইছে? মন ভালো না হইলে খানিকক্ষণ বিটিভির খবর দেখে আসেন । ;)

২৩| ২০ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৪৩

করুণাধারা বলেছেন: মন ভালো করার জন্য আপনার এই প্রচেষ্টাকে সাধুবাদ জানাই। ভালোই হয়েছে পোস্ট। তবে মন ভালো হবে কি করে! যখন আপনার এই পোস্ট দিয়েছেন, একই সময় আর একটি পোস্টে ব্লগের ভাড় আর চাটুকারের মিথ্যা মন্তব্যর বন‍্যা দেখে মেজাজ খারাপ হয়ে গেল। সেই মেজাজ টি আর ঠিক হয়নি। তাই এতদিন বাদে মন্তব্য করতে আসলাম।

২০ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:১৮

মা.হাসান বলেছেন: জগৎ সংসারে সবারই প্রয়োজন আছে। জ্ঞান পাপী ও চামুচদের মন্তব্যকে বিনোদন হিসাবে নিন, এই আবেদন থাকিলো। পূর্বে ব্লগে ডিজলাইক বাটন আছিলো। উহা উঠাইয়া দেয়া হইয়াছে। যদি 'ভাড়' বাটন যোগ করা হইতো তবে এই সব জ্ঞানীরা অখন্ডনীয় রেকর্ড করিতে পারিতো।
মন্তব্য ও লাইকের জন্য অশেষ ধন্যবাদ।

২৪| ৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৫৫

আমি তুমি আমরা বলেছেন: খবরগুলো ভাল কি মন্দ সে বিষয়ে মন্তব্য করছি না, তবে ছবির সাথে ক্যাপশানগুলো অসাধারন হয়েছে-সেজন্য একটা ধন্যবাদ পেতেই পারেন। :)

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:১৬

মা.হাসান বলেছেন: এত মন ভালো করা খবরেও আপনার মন ভালো না হলে তো বড় সমস্যা। তবে মন্দের ভালো যে ক্যাপশন আপনার ভালো লেগেছে।

ব্যস্ততা আছে আগে বলেছেন, তবে আরেকটু নিয়মিত হওয়া যায় কি? জঙ্গল বসন্তের মতো লেখা আরো পড়ার ইচ্ছে হয়।
নিজের পোস্টে কয়েকটা কমেন্ট জমে ছিল, কমেন্ট রিপ্লাই দিতে যেয়ে আপনার নতুন লেখাটা এখনো পড়ে উঠতে পারি নি, এখনই ধরার ইচ্ছে আছে।

২৫| ৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:২৫

আমি তুমি আমরা বলেছেন: আসলে গল্প লিখি সবসময় ঝোকের মাথায়, অধিকাংশ সময় চেষ্টা থাকে এক বসায় শেষ করার। জঙ্গল বসন্ত-ও সেরকম লেখা। এরকম আরো গল্প পড়ার আপনার ইচ্ছা আছে-জেনে একই উৎসাহিত এবং সম্মানিতবোধ করছি। :)

আরো নিয়মিত হতে পারব কিনা জানিনা, তবে অবশ্যই চেষ্টা থাকবে নিজের সেরা লেখাটাই আপনাদের জন্য পোস্ট করার।
চমৎকার একটি প্রতিমন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ :)

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৩৬

মা.হাসান বলেছেন: ভাই, আবার ফিরে আসায় অনেক ধন্যবাদ। জঙ্গল বসন্তের কথা মানুষকে গল্প করার মতো। ঐ সময়ে ঐ পরিস্থিতিতে ব্লগে আসা সেরা গল্প। আপনার ভয়ের গল্পের লিংক গুলো দেখেছি। আজ (মানে ক্যালেন্ডারের কাল) পরে ঢুকবো আশা রাখি। অনেক শুভ কামনা।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.