নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

যে কোনো ভূমিকায় সমানে লড়ে যাই, আপনি যেমন চান আমি ঠিক তাই।

নান্দনিক নন্দিনী

লেখালেখি হচ্ছে প্রেমে পড়ার মতন একটা ব্যাপার, কোনো ধরনের কর্তৃত্ব জাহির করা নয়।

নান্দনিক নন্দিনী › বিস্তারিত পোস্টঃ

বিয়ে দ্যা ট্রিগার ফ্যাক্টর

১৩ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:১৪



রোকেয়া হলে আবাসিক ছাত্রী হিসেবে দীর্ঘ ৭বছর কেটেছে। হলের নানান গল্পের একটা আজ বলি। হলের প্রতিটি কক্ষে ৪টা বেড থাকলেও থাকতে হতো ৫জনকে। মানে রুমের সব থেকে জুনিয়র দুইজনকে একটা বেড শেয়ার করতে হতো। প্রথম বর্ষে ভর্তি হওয়া একমেয়ে হাউজ টিউটর রুমে এক দুপুরে একটা আবেদনপত্র নিয়ে হাজির। আবেদনশপত্রে বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে 'সহবাসের জন্য আবেদন'। হাউজ টিউটর ম্যাডামের চক্ষু তো চড়কগাছ! এই মেয়ে বলে কী! আসল ঘটনা হলো মেয়েটি 'দ্বৈতাবাসের আবেদন' করতে গিয়ে ভুলে সহবাস লিখে ফেলেছিল।

ব্লগের লাস্ট লেখায় মন্তব্যকারীরা সবাই বিয়ের পক্ষে ইতিবাচক অবস্থান নিয়েছেন। আমিও বলি মানুষের অবশ্যই বিয়ে করা উচিত। কারণ জীবনে বিয়েটাই সত্যি। নিজের জন্মটা মানুষ দেখেনা আর মৃত্যুটতকেও গভীরভাবে দেখার সুযোগ পায় না। চুপিচুপি বলে রাখি বিখ্যাত’রা কিন্তু একাধিক বিয়ে করেন।

তো দাম্পত্য জীবনের তিনটি পর্যায়-
ক) বাকমুগ্ধ
খ) বাকযুদ্ধ
গ) বাকরুদ্ধ

বিয়ের প্রথম দিকে স্ত্রী আপনাকে বহুল প্রচলিত দুটি প্রশ্ন করবে:
স্ত্রী > আমি মরে গেলে তুমি কি আবার বিয়ে করবা?
স্বামী > হুম করবো।
স্ত্রী > তুমি কী তাকেও আমার মতোই ভালবাসবা?
স্বামী > হ্যাঁ বাসবো, স্ত্রীকে তো ভালাবাসতেই হয়!
অত:পর কখনো কখনো স্ত্রী পিত্রালয়ে গমন করেন, আর কখনোবা কথা বন্ধ করে দেন।
এক্ষেত্রে স্বামীজাতিকে মনে রাখতে হবে যে:
স্ত্রী আপনার কাছে 'সঠিক' জবাব চায়নি,
চেয়েছে 'মনের মতো' জবাব। সুখে থাকতে চাইলে প্রশ্নগুলো মন দিয়ে শুনুন, এবং উত্তর বুঝেশুনে দিন

অধিকাংশ স্ত্রীই স্বামীর পছন্দ/রুচির উপর আস্থা রাখতে পারেন না। বিয়ের সময় স্বামী যে তাকে পছন্দ করেছিলেন, সেটাই আস্থাহীনতার মূল কারণ!


অস্কার ওয়াইল্ডের মতে- পুরষ বিয়ে করে কারণ সে ক্লান্ত, নারী বিয়ে করে কারণ কৌতুহলী, বিয়ের পর অবশ্য দু’জনকে হতাশ হতে হয়।


নোবেল বিজয়ী অ্যাঙ্গয়াস ডিটনের গবেষণা অনুযায়ী বিয়ে করলে আত্মহত্যার প্রবণতা কমে। তিনি মনে করেন, বিয়েটাই তো একটা আত্মহত্যা! সুতরাং আপনার পুনরায় অর্থাৎ দ্বিতীয়বার আত্মহত্যা করার দরকার নেই!


সক্রেটিস এর কথা- যদি তুমি ভাল স্ত্রী পাও, তবে তুমি সুখি হবে, আর যদি খারাপ স্ত্রী জোটে ভাগ্যে, তবে দার্শনিক হবে।



বোদলেয়ারের কথা- প্রেমিকা হলো এক বোতল ওয়াইনের মতো, আর স্ত্রী হল ওয়ানের একটি বোতলের মতো।


সাইকোলজিস্ট রবার্ট স্টেনবার্গ এর মতে, তিনটি উপাদানের সমন্বয় থাকা দরকার। উপাদান গুলো হলো- আবেগ (যৌন অথবা রোম্যান্টিক আকর্ষণ), অন্তরঙ্গতা (গভীর অনুভূতি) এবং সহানুভূতি (শুধুমাত্র সম্পর্ককে রক্ষা করাই নয়, তাকে সসম্মানে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া)। অন্তরঙ্গতা, আবেগ এবং প্রতিশ্রুতি এই তিনটি উপাদান যখন মিলে মিশে যায় তখন সেটা অনবদ্য। এতে অন্তরঙ্গতা যে রকম থাকে, ঠিক তেমনি থাকে একে অপরের প্রতি বিশ্বাস, ভরসা। অনেক সময় দেখা যায় কেউ হয়ত কাউকে প্রতিশ্রুতি দিয়ে বসে আছেন। কিন্তু সেই মানুষটির প্রতি কোনো রকম আকর্ষণ অনুভবই করছে না। কিন্তু তাকে ছেড়ে দিতেও মন চাইছে না। অনেক সময় অনেকেই বিয়ে করেন কেবলমাত্র একে ওপরের কাছে প্রতিশ্রুতি বদ্ধ থাকেন বলে। মানুষকে কাছ থেকে নয় বরং দূর থেকে দেখেই তাকে আমরা বিচার করতে থাকি। যার ফলে ভবিষ্যতে অনেক সময়ই বড় রকমের ধোকা খেতে হয়। ভালোলাগা, মোহ আর রোমান্টাসিজম জীবনের অনাবশ্যক অনুভূতি। এগুলো বাদ দিয়ে নয়, তবে বুঝে শুনে সিদ্ধান্ত নিতে হয়।

মন্তব্য ৩০ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (৩০) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৪৪

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

আমার মনে হয় খুব অল্প সময়ে অভিজ্ঞতার ঝুড়ি
ভর্তি করে ফেলেছেন। তবে আমি শুধু একটা কথাই
বুঝতে পেরেছি যে পুরুষ দুই প্রকারের যথাঃ ১। জীবিত আর
২। বিবাহিত!

নিঊটন যে এত কর্মক্ষম একটা সময় অতিবাহিত করতে পেরেছিলেন –
এর একটা কারণ অনেকেই মনে করেন – তিনি অবিবাহিত ছিলেন।
ফলে ‘প্রকারন্তরে মৃত’ হবার হাত থেকে বেঁচে গেছেন।

নচিকেতার একটা গান আছে –
জনতা জনার্দন শুনে হবেন বড় প্রীত
পুরুষ মানুষ দু’প্রকারের, জীবিত ও বিবাহিত।
পুরুষ মানুষ বেঁচে থাকে বিয়ে করার আগে গো
বিবাহিত মানে প্রকারন্তরেতে মৃত –
পুরুষ মানুষ দু’প্রকারের, জীবিত ও বিবাহিত।

জীবিত আছেন তারা হয়নি যাদের বিয়ে
মাঝে মাঝে ভাবি আমি ওদের কাছে গিয়ে।।
কত সুখে আছেন ওরা লাগিয়ে গায়ে হাওয়া হয়নি যাদের বিয়।


১৩ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:০৯

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: অভিজ্ঞতার ঝুড়ি ভর্তি করতে হলে কিছু কিছু লেখাপড়া করতে হয়।
নচিকেতার গানটা বছর বিশেক আগের

২| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমার কাছে একটা বই আছে। বইয়ের নাম- বিয়ে। বাংলা একাডেমি প্রকাশ করেছে।

বিয়ে করাটা মেয়েদের জন্য জরুরী।
তবে আমি মনে করি বিয়ে না করাই ভালো। হাজারটা ঝামেলা। বিয়ে না করলে ঝামেলা পোহাতে হয় না।
আমি বলল, বিয়ে করার দরকার নাই। আর যদি শরীরের ক্ষুধা থাকে তবে হোটেলে যাও, তবু বিয়ে করোনা বন্ধু। আমার যারা বন্ধু আছে তাদের আমি এই কথাই বলি।

বেশির ভাগ লোকই বিয়ে করে সুখে নাই। সেদিন সিটি করপোরেশন অফিসে গিয়ে দেখলাম। হাজার হাজার তালাকের কাগজ।

১৩ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:১০

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: আপনার যে এই অবস্থা সুরভী ভাবি কি জানেন?

৩| ১৩ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১১:৪৬

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

লেখক বলেছেন: অভিজ্ঞতার ঝুড়ি ভর্তি করতে হলে কিছু কিছু লেখাপড়া করতে হয়।
নচিকেতার গানটা বছর বিশেক আগের


জানতে হলে পড়তে হবে এ কথাটা আমি
প্রায়ই আমার পাঠকদের বলি।

নচিকেতার গানটা ২০ বছর পুরোনো হলেও এর
আবেদন এখনো একটুও কমে নি !! আর দই
শতাব্দিতেও কমার সম্ভাবনা নাই!!

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:২০

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন: আমার মনে হয় খুব অল্প সময়ে অভিজ্ঞতার ঝুড়ি ভর্তি করে ফেলেছেন।

আমার জানতে ইচ্ছে করছে, অল্প সময় বলতে কই বোঝাতে চেয়েছেন ভাই?

নচিকেতা পুরো গানটা খুব এনজয় করে পরিবেশন করেন। আমার পছন্দের গানগুলোর একটা।

৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:৩৩

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

লেখক বলেছেন: নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন: আমার মনে হয় খুব অল্প সময়ে অভিজ্ঞতার ঝুড়ি ভর্তি করে ফেলেছেন।
আমার জানতে ইচ্ছে করছে, অল্প সময় বলতে কই বোঝাতে চেয়েছেন ভাই?

আপনার বয়সের দ্বিগুন হয়েও যে জ্ঞান অর্জনে সক্ষম হইনি :((
আপনি আমার আধেক বয়সের হযেও বিয়ে সম্পর্কে যে
উপলব্ধি করতে পেরেছেন তা আমার চেয়ে দ্বিগুন। আপনার
লব্ধ জ্ঞানকে আমার হিংসে হয !! =p~

তবে তাই হোক শুনুন নচিকেতার জীবতি বিবাহিত

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:৪০

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: হা হা হা

৫| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:৩৯

নিশাচর১/১০০ বলেছেন: সঠিক বিয়ে বা সুখী দাম্পত্য জীবনের কোন সরলসূত্র নেই। বিয়ের মাধ্যমে জীবনের নতুন অধ্যায় শুরু হয়, যেখানে ভাল-মন্দ সবই থাকে। শুধু 'মন্দ'গুলো না ভেবে 'ভাল'গুলোও বিবেচনায় নিতে হবে। এমন তো নয় যে, অবিবাহিত জীবন মাত্রই সুখ আর সুখ!

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন: "নিঊটন যে এত কর্মক্ষম একটা সময় অতিবাহিত করতে পেরেছিলেন –
এর একটা কারণ অনেকেই মনে করেন – তিনি অবিবাহিত ছিলেন।"
- আইনস্টাইন কিন্তু একাধিক বিয়ে+প্রণয়ে জড়িয়েছিলেন....।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:৪১

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: একটা ফান পোষ্ট এটা

৬| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:৩৯

নতুন বলেছেন: ভালো লিখেছেন। ++

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:৪২

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: ধন্যবাদ নতুন ভাই

৭| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১:০৩

রাফা বলেছেন: ইসলাম ধর্মের বিধান অনুযায়ি বিয়ে করা ফরয তাদের জন্য যারা সক্ষম । আমার মতেও সকল বিবেচনায় সক্ষমতা থাকলেই বিয়ে করা উচিত। অন্যথায় পরিহার করাই শ্রেয়।
ধন্যবাদ , না. নন্দিনী।

ভালো থাকার চেষ্টা করছি। ধন্যবাদ ।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ২:২৯

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: Social Process and Institutions নামের একটা কোর্স পড়াই অনার্স থার্ড ইয়ারের শিক্ষার্থীদেরকে। এদেশের বেশিরভাগ ছেলেমেয়ের কাছে বিয়ে একটা ফ্যান্টাসি। চ্যাপ্টারটা পড়ানোর সময় তাদের ধারণা দিতে চেষ্টা করি, 'বিয়ে কী'।

জীবনে শয্যাসঙ্গী এবং এবং জীবনসঙ্গী'র মধ্যে পার্থক্যটা বোঝা জরুরি।

আল্লাহতায়ালা আপনার মাসলা হাল করুক, আমিন।

৮| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ২:১৭

নুরুলইসলা০৬০৪ বলেছেন: শেষের দুটি লাইন খুবই ভাল লাগলো।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ২:২৯

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: ধন্যবাদ

৯| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ২:৩৮

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: আপনার যে এই অবস্থা সুরভী ভাবি কি জানেন?

না জানে না। অনেক যত্নে লুকিয়ে রাখি সুরভির কাছ থেকে।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ২:৪১

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: জন্মদিনের পোষ্ট পড়ে মনে হয়েছিল আপনি খানিকটা বিক্ষিপ্ত হয়ে আছেন।
খারাপ সময় দ্রুত চলে যাক। শুভ কামনা রইলো।

১০| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ ভোর ৫:২২

সোহানী বলেছেন: আমার একটা প্রশ্ন?

এ লিখাটি কি পড়াশুনালব্ধ নাকি অভিজ্ঞতালব্ধ?

যদি অভিজ্ঞতালব্ধ হয় তাহলে কোন কথা নাই। তবে পড়াশুনালব্ধ হয় তাহলে কথা হলো, বিয়ের পাঁচ বছর পরে এরকম একটা লিখা চাই... :P

১৫ ই অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:০৯

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: বিয়ে না করলে কি হবে, বিয়ের বরযাত্রীতে তো গেছি!
বান্ধবীরা সারাক্ষণ নিজেরদের সংসার নিয়ে আলাপ করে (আমি ভালো শ্রোতা কিনা)

আজ থেকে পাঁচ বছর পরের লেখা হলে ভেবে দেখা যায়,
কিন্তু আপনি চাচ্ছেন বিয়ের পাঁচ বছর পরের লেখা; চিন্তায় ফেলে দিলেন আপু...

১১| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ ভোর ৫:৩৪

স্বামী বিশুদ্ধানন্দ বলেছেন: দিল্লি কে লাড্ডু খাইলেও পস্তাইতে হয় না খাইলেও পস্তাইতে হয়।
খাইয়া পস্তানো ভালো নয় কি ?
নাকি,
জীবনে কোনো রিস্ক না নিয়ে ভাবলেন বড্ডো বাঁচা বেঁচে গিয়েছি ?
;)

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০৬

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: না রে ভাই, দিল্লি কা লাড্ডু না খেয়ে সুপার ওম্যান টাইপের ভাব ধরে আছি

১২| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ সকাল ৮:২১

নীল আকাশ বলেছেন: লেখা দুর্দান্ত লেগেছে। রোকেয়া হলে ৫ (৪+১) জন ছাত্রী থাকার বিষয় আমি আমার এক বান্ধবীর কাছে বিস্তারিতভাবে জেনেছি। ঠিক এই জায়গাটাই আমার নতুন উপন্যাসে ব্যবহার করেছি।
শুনুন, বিয়ে হচ্ছে দিল্লীকা লাড্ডু। খায়ে গি ভি আচ্ছা, না খায়ে গি ভি নেহি আচ্ছা।
শুভ সকাল।

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:০৯

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: যো বাসি লাড্ডু খায়েগি, ও ভি আচ্ছা কিয়া?

১৩| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৪২

পুলক ঢালী বলেছেন: কেউ কেউ বিয়েটাকে শারিরীক চাহিদা পুরনের পরিপুরক হিসেবে দেখে মন্তব্য করছেন। বিয়েটা আসলে দায়িত্ব গ্রহনের বিষয়। বিয়ের পর স্বামী স্ত্রী উভয়কেই দায়িত্বপূর্ন আচরন করতে হয়। পারস্পরিক দোষারোপ এড়াতে না পারলে তালাকের কাগজ বাড়বে। বিয়ের আগে এনগেজমেন্টের পর পাত্রপাত্রীর আসলে বিয়ের ক্লাশে যাওয়ার ব্যবস্থা থাকা দরকার যেখানে শল্য ও মনোচিকিৎসকের তত্বাবধানে প্রতি কাপলের/দের জন্য ২/৩ টা ক্লাসের ব্যবস্থা থাকবে। এই ক্লাসের সনদ না থাকলে বিয়ে দেওয়া যাবেনা (প্রথমে অপশনাল পরে কম্পালচারি)।
আমাদের দেশের বাস্তব অবস্থা বিবেচনায় নিলে এটা একটা অলীক কল্পনা মাত্র। শহরের কলেজ বিশ্ববিদ্যালয়ে কি এটা প্রাথমিকভাবে শুরু করা যায়না ? এই কাপলরাই হয়তো পরবর্তিতে সমাজে শিক্ষক হিসেবে ভুমিকা রাখবেন যদি নিজেরা সৎ থাকেন। :)

১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৪:১৬

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: সুন্দর করে গুছিয়ে বলেছেন। ধন্যবাদ।
এখনকার বিয়েশাদী তো ক্ষেত্রবিশেষ পুতুল খেলা।
যা খুশি তা, যেমন খুশি তেমন, যেভাবে খুশি সেভাবে।

১৪| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:২৬

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: হা হা হা

বিয়ে ছাড়াই এত অভিজ্ঞতা :-/
সোহানীপুর সাথে অপেক্ষায় রইলাম। বিয়ের ৫ বছর পরের পোষ্টের ;)

তাইতো বলি সব্বাই সব বিষয়ে অভিজ্ঞতা চাইলেও এই একটা বিষয়ে কেবল অনভিজ্ঞ খোঁজেন :`>
ছবি গুলোর ডায়ালগ পড়ে হাহাপগে

+++

১৫ ই অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:১২

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: আপনাদের সাথে আমিও সেই লেখার অপেক্ষায় রইলাম :)

১৫| ১৪ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১০:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: জন্মদিনের পোষ্ট পড়ে মনে হয়েছিল আপনি খানিকটা বিক্ষিপ্ত হয়ে আছেন।
খারাপ সময় দ্রুত চলে যাক। শুভ কামনা রইলো।


না আমি ভালো আছি। তবে করোনা পরিস্থিতি আরো অনেকের মতো আমার পরিস্থিতি কিছু ক্ষতিগ্রস্ত করেছে।

১৫ ই অক্টোবর, ২০২০ রাত ১২:০৬

নান্দনিক নন্দিনী বলেছেন: যাক, ভালো থাকলেই ভালো

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.