নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ভাগ্যক্রমে আমি এই সুন্দর গ্রহের এক বাসিন্দা! তবে মাঝেমধ্যে নিজেকে এলিয়েন মনে হয়। তবে বুদ্ধিমান এলিয়েন না কোন আজব গ্রহের বোকা এলিয়েন!

নূর আলম হিরণ

ভাগ্যক্রমে আমি এই সুন্দর গ্রহের এক বাসিন্দা! তবে মাঝেমধ্যে নিজেকে এলিয়েন মনে হয়। তবে বুদ্ধিমান এলিয়েন না কোন আজব গ্রহের বোকা এলিয়েন!

নূর আলম হিরণ › বিস্তারিত পোস্টঃ

শেখ হাসিনার রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান বই কোন লেখকের লেখা?

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:২২


আমার এলাকায় একবার ডাকাত ধরা পড়ে, লোকজন ডাকাত ধরে পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে সেখানে উপস্থিত কয়েকজনকে বলে গণপিটুনি দিয়ে মেরে ফেলতে। এভাবে পিটিয়ে মেরে ফেললে ভালো হবে, গণপিটুনির শক্ত কোনো বিচার নেই। এরপর লোকজন ডাকাত দুইটিকে বেদম মারধর করে। এক পর্যায়ে মরে গেছে ভেবে পুলিশ তাদের হাসপাতালে নিয়ে যায় কিন্তু তারা শেষ পর্যন্ত মরেনি।
পুলিশের উপর আস্থা আছে, পুলিশের হাতে অপরাধী ধরা পড়লে অপরাধের সঠিক বিচার হবে এরকম বিশ্বাস কতজনের আছে? সম্ভবত পুলিশের ভিতরও এমন বিশ্বাস নেই! তাদের হাতে ধরা পড়লে অপরাধীর বিচার হবে এই আস্থাও তাদের নেই। পুলিশ হচ্ছে রাষ্ট্রযন্ত্রের একটা গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান। রাষ্ট্রযন্ত্রের এছাড়াও আরো অনেকগুলো প্রতিষ্ঠান আছে। পুলিশ ছাড়া আর কোন কোন রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানের উপর আপনার আস্থা আছে? মিল্কভিটা ছাড়া মনেহয় আর তেমন কোন প্রতিষ্ঠান নেই।
মানুষ কখন আইন নিজের হাতে তুলে নেয়? কখন কোনো অপরাধী ধরতে পারলে গণপিটুনি দেয়, পিটুনি দিয়ে মেরে ফেলে?
যখন আইনশৃঙ্খলার উপর আস্থা উঠে যায়, এবং একই কাজ যখন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে করতে দেখে।
ক্রসফায়ার কথাটির সাথে আমাদেরকে প্রথম পরিচয় করিয়ে দিয়েছে বেগম জিয়া। শেখ হাসিনা বেগম জিয়ার সেই কৌশলটি জিইয়ে রেখেছে এবং সাথে গুম ব্যাপারটি জড়িয়ে নিয়েছে।
অপরাধ দমনে এগুলি খুব একটা কার্যকরী কৌশল নয়, সাময়িকভাবে আপনার, আমার মনে হতে পারে এটাই সঠিক উপায়। আসলে ক্রসফায়ার দিয়ে, গুম করে অপরাধপ্রবণতা কমানো যায় না। এখনকার পরিস্থিতির দিকে তাকালেই বুঝতে পারবেন এগুলি দীর্ঘমেয়াদে কোন কাজে দেয়নি বরং বিভিন্ন প্রশ্ন, সন্দেহের জন্ম দিয়েছে।
আমাদের দেশে অপরাধ বিজ্ঞানের উপর আলাদা কোন গবেষণা ইনস্টিটিউট আছে? অপরাধ কেন হয়, কিভাবে হয়, কেনো মানুষ অপরাধের দিকে ঝুঁকে পড়ে? সুনির্দিষ্ট অপরাধের জন্য সুনির্দিষ্ট কারণ নির্ণয় করে কোন গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়? এবং এগুলি থেকে সমাজের উত্তরণের জন্য কোন সুপারিশপত্র প্রকাশিত হয়?
আগে যখন রাজারা রাজ্য পরিচালনা করতো তখন প্রজারা খাজনা দিতো এই জন্য যে, তাদের রাজা অন্য অত্যাচারী রাজা থেকে তাদেরকে রক্ষা করবে। এখন রাজা নেই আছে সরকার কিন্তু ব্যাপারটা সে আগের মতোই। জনগণ ট্যাক্স দেয় সরকারকে এবং আশা করে তাদের ছেলে মেয়ে নির্দ্বিধায় রাস্তায় চলাচল করতে পারবে। নিজেরা ব্যবসা-বাণিজ্য, চাকুরী করতে পারবে, সরকার এতে তাদের সাহায্য করবে।
শেখ হাসিনা সরকার জনগণ থেকে ভ্যাট, ট্যাক্স নিচ্ছে কিন্তু সে অনুযায়ী জনগণকে নিরাপত্তা দিতে পারছে না, ব্যবসা-বাণিজ্যে, চাকুরিতে জনগণকে সহযোগিতা করছে না।
শেখ হাসিনা কোন লেখকের রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান বই পড়ে দেশ চালাচ্ছেন?

মন্তব্য ২৪ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (২৪) মন্তব্য লিখুন

১| ৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: ডেঙ্গু নিয়ে সচেতন থাকুন, গুজব ছড়াবেন না: ফোনে প্রধানমন্ত্রী

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: ফোনে উনি পাস্তুরিত তরল দুধ নিয়ে গুজব ছড়াতে নিষেধ করেছেন। নগরপিতা ডেঙ্গুকে গুজব বলেছেন।

২| ৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৯:৩৮

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনার লেখা থেকে মনে হচ্ছে যে, শেখ হাসিনা ডক্টরেট করেছেন; আসলে, উনি কোন বিষয়ের উপর ডক্টরেট করেননি।

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০৩

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আমি জানি উনি ডক্টরেট করেননি। উনাকে সম্মানী ডক্টরেট দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু দেশ চালাতে সমাজ বিজ্ঞান, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বুজতে হয় উনি কি এই বিষয়ে কোন লেখকের বই পড়ছেন?

৩| ৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:০৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


উনি ইন্দিরা গান্ধীর কাছে দীক্ষা পেয়েছেন, এটুকু আমি বলতে পারি; ইন্দিরা উনার রাজনৈতিক গুরু, এবং উনি বই থেকে বেশী বুঝেন; সেইজন্যই এতদিন টিকে আছেন।

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২৫

নূর আলম হিরণ বলেছেন: উনার দেশ চালানোর প্যাটার্ন উনার জন্য ঠিক আছে। উনাকে টিকে থাকার জন্য ইন্দিরা গান্ধীর পরামর্শ এখন মেনে চলার দরকার নেই। উনি এখন রাষ্ট্রবিজ্ঞান মেনে দেশ চালাক।

৪| ৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২০

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: প্রথমত, দেশের বেশিরভাগ আলোচিত অপরাধের সাথে ক্ষমতাসীন এমপি, মন্ত্রী, রাজনীতিবিদদের কাছের মানুষেরা জড়িত। তাই এসব নিয়ে গবেষণা, টবেষনা হয় না। তদন্ত হয় না। বিচার হয় না। ফলে, দিনদিন অপরাধ বাড়ছে। বাড়ছে অপরাধী।

দ্বিতীয়ত, সরকার এইসব দুর্নীতিবাজ, সন্ত্রাসদের অপকর্মের বলে; ক্ষমতার অপপ্রয়োগ করে, ক্ষমতা ধরে রেখেছে, তাতে দুর্নীতিবাজ-সন্ত্রাসদের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়ার মতো মানসিক অবস্থা সরকারের নেই।

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আইন প্রযোগ করে অপরাধ সাময়িক ভাবে কমানো যায়। যেসব দেশে মৃত্যুদণ্ড নেই সেসব দেশে অপরাধ তুলনামূলকভাবে কম। অপরাধের কারন গুলো বের করে সেগুলো নিয়ে দীর্ঘমেয়াদি প্রকল্প নিতে হয়।

৫| ৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:২৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: বাংলাদেশের নাগরিকদের কে প্রথমতঃ মানুষ হতে হবে । তারপর সৎ হতে হবে।

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১১:৪৬

নূর আলম হিরণ বলেছেন: মানুষ হতে হলে সু-শিক্ষায় শিক্ষিত হতে হবে, সে জায়গায় ইনভেস্ট এবং ইনভেস্ট করা অর্থের সঠিক প্রয়োগ নেই।

৬| ৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১০:৩৫

চাঁদগাজী বলেছেন:



লেখক বলেছেন, "উনার দেশ চালানোর প্যাটার্ন উনার জন্য ঠিক আছে। উনাকে টিকে থাকার জন্য ইন্দিরা গান্ধীর পরামর্শ এখন মেনে চলার দরকার নেই। উনি এখন রাষ্ট্রবিজ্ঞান মেনে দেশ চালাক। "

-বই পড়ে দেশ চালানোর মতো খুকী উনি নন; উনি তার থেকে বড় কিছু দিয়ে দেশ চালাচ্ছেন; উনার বাবা উনার চেয়ে কোটীগুণ জনপ্রিয় নেতা ছিলেন, সেটা তিনি ভুলেননি।

৩০ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১১:৪৯

নূর আলম হিরণ বলেছেন: উনার বাবা শেষ দিকে এসে দেশ চালানোর যে আইডিয়া গুলো বের করেছেন সেগুলো এখনো কার্যকর পন্থা হবে। উনি সেই দিকেও নেই।

৭| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১:৪৬

ঢাকার লোক বলেছেন: রাস্ট্রবিজ্ঞান আর সমাজবিজ্ঞান পড়েই যদি দেশ চালানো যেতো তবেত ঐ সব বইয়ের লেখকগন ও ঐ সব বিষয়ের অধ্যাপকগনই দেশের প্রধানমন্ত্রী প্রেসিডেন্ট হতেন! কজন আছেন তা হতে পেরেছেন?

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৯:২৪

নূর আলম হিরণ বলেছেন: রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞানে প্রেসিডেন্ট, প্রধানমন্ত্রী কিভাবে হবেন সেটা নিয়ে তেমন বিশ্লেষণ নেই। দেশ কিভাবে পরিচালিত হবে সেগুলোর বিশদ ব্যাখ্যা আছে।

৮| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ৩:২৩

নীল আকাশ বলেছেন: এর সাথে সাথে গনতন্ত্রের কোন ধারায় দেশ চালাচ্ছে সেটাও জানা দরকার!

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:০০

নূর আলম হিরণ বলেছেন: আমাদের সংবিদান উন্নত সংবিধান তবে দেশ চলছে গণতন্ত্র, একনায়তন্ত্র, সমাজতন্ত্র, রাজতন্ত্রের জগা খিচুরীর মত।

৯| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ৯:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: ফোনে উনি পাস্তুরিত তরল দুধ নিয়ে গুজব ছড়াতে নিষেধ করেছেন। নগরপিতা ডেঙ্গুকে গুজব বলেছেন।

দেশের এই সমস্যা গুলো সমাধান করার জন্য কাউকে দেখি না।

৩১ শে জুলাই, ২০১৯ সকাল ১০:০১

নূর আলম হিরণ বলেছেন: সমস্যা গুলি খুব বড় ছিল না, অপশাসনের কারণে সেগুলিও এখন বড় আকার ধারণ করেছে।

১০| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ১:৫৮

আখেনাটেন বলেছেন: আপনার কি মনে হয় আমাদের দেশের মাথারা কখনও সমাজবিজ্ঞান, অর্থনীতি, রাষ্ট্রবিজ্ঞান নিয়ে ভেবেছিল?

চাঁদগাজী ঠিকই বলেছেন, 'বই পড়ে দেশ চালানোর মতো খুকী উনি নন; উনি তার থেকে বড় কিছু দিয়ে দেশ চালাচ্ছেন;'। অতীতের সকল নেতারাই এভাবেই(বই না পড়ে; জ্ঞান অর্জন না করে; প্রকৃত জনবান্ধব না হয়ে মধ্যযুগের রাজনদের মতো) এ দেশ চালিয়েছিল। ফলগুলোও হাতে নাতে পাচ্ছি এখনও। অতীতেরগুলোকে মানুষ যেমন ছুঁড়ে ফেলেছে, ভবিষ্যতে....

ইতিহাস থেকে কেউ শিক্ষা নেয় না। একটি অসীম সম্ভাবনাময় দেশ জনগণের মুল্যবোধের চরম অবনমন ঘটিয়ে ধুঁকে ধুঁকে এগুচ্ছে। শিক্ষার যে বেহাল অবস্থা এর জন্য জাতিকে মারাত্মক কঠিন সময়ের মধ্যে দিয়ে যেতে হবে একসময় সামন্য বিপর্যয়ে।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:৫১

নূর আলম হিরণ বলেছেন: শিক্ষা ব্যবস্থার যে ক্ষতি করা হয়েছে এর রেশ ৩০ বছর পর্যন্ত থাকবে। একটা অপরিপক্ক জেনারেশন বেড়ে উঠছে, এদের ইচ্ছে করে তৈরি করা হয় যেন শাসক গোষ্ঠীর কঠিন প্রতিদ্বন্দ্বীর মুখোমুখি না হতে হয় আগামী কয়েক দশক।

১১| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ দুপুর ২:৪৭

সুপারডুপার বলেছেন: খুবই সিম্পল ও সবাই জানে , শেখ হাসিনা যেটা চান, সেটা পাওয়ার জন্য বাবার শিক্ষা, অন্য অন্য দেশ গুলোতে শাসকদের অবস্থা ও অতীত অভিজ্ঞতাগুলোকে কাজে লাগিয়ে দেশ চালাচ্ছেন।

রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান এইগুলো পড়ার দরকার নাই। কারণ রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান এইগুলো মানুষের অভিজ্ঞতা , পরীক্ষা থেকেই লেখা হয়।

তাই শেখ হাসিনা উনার অভিজ্ঞতা থেকে নতুন রাষ্ট্রবিজ্ঞান, সমাজবিজ্ঞান ও লিখে ফেলতে পারবেন।

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:৫৩

নূর আলম হিরণ বলেছেন: উনি উনার প্যাটার্নে বই লিখে সেটা রাষ্ট্রবিজ্ঞানের বই হবে না। সেটা ট্রেজিডি আর কিছুটা রম্য বই হয়ে যাবে।

১২| ৩১ শে জুলাই, ২০১৯ রাত ১১:৩০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: মাও সেতুং আর লেনীনকে জাগাতে চাচ্ছেন ?

০১ লা আগস্ট, ২০১৯ রাত ১২:৫৪

নূর আলম হিরণ বলেছেন: মাও আর লেলিন টিশার্টে জেগে আছে।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.