নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি আমার নিরক্ষর,কিন্তু বুদ্ধিমতি মায়ের কাছ থেকে এই শিক্ষাই পেয়েছিলাম,যথাযথ কর্তব্য পালন করেই উপযুক্ত অধিকার আদায় করা সম্ভব। - মহাত্মা গান্ধি

পদাতিক চৌধুরি

হাই,আমি পদাতিক চৌধুরী।পথেঘাটে ঘুরে বেড়াই।আগডুম বাগডুম লিখি। এমনই আগডুম বাগডুমের পরিচয় পেতে হলে আমার ব্লগে আপনাদের আমন্ত্রণ থাকলো।

পদাতিক চৌধুরি › বিস্তারিত পোস্টঃ

কবিতা -মেলা

২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:০৭






উপরে মূল কবিতার স্ক্রিনশট:-

মেলা এসেছে খুশি এনেছে নিজের সঙ্গে,
বেরোও সবাই ঘর থেকে বসে আছো কেন ঘরে?
মেলার দিনে সবাই থাকে আনন্দে ভরা,
রাস্তার পাশে বাজারের আলো মনে হয় যেন এক বড় আলোর তারা।

কেনাকাটা করতে এসেছে সবাই এক বস্তা নিয়ে,
মেলায় এত রাইড আছে মাথা ঘুরে যায় তা দেখে।
অনেক রকমের মেলা আছে সেটা জানে না এখনো কেউ,
আর এমন ধরনের মেলা আছে সেটা দেখে কান্না আর ভয়ে বুক করে দুরু দুরু।

মেলায় এত মজা আছে এমন যে সবার মুখে হাসি ফুটে ওঠে,
গরিবের সঙ্গে ভাগাভাগি করলে সেই মজা সেই কেবল জানে।
মেলা মানে প্রচন্ড মজা সেটা গরিব হোক বা ধনী হোক সবার একই,
তাইতো বলি ধনী-গরীব আমরা সবাই হাত ধরে মেলায় ঘোরাঘুরি করি।

২২-০৯-২০২৯
অচিনপুর



মন্তব্য ৭০ টি রেটিং +১৮/-০

মন্তব্য (৭০) মন্তব্য লিখুন

১| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৫

আনমোনা বলেছেন: যাক, আপনার লেখায় না হলেও কবি শ্রন্থন চৌধুরীর লেখায় প্রথম হতে পারছি মনে হয়। মেলা নিয়ে খুব সুন্দর বর্ণনা। আসলেই আনন্দ ভাগ করলে বাড়ে।

২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: ভেবেছিলাম প্রতিমন্তব্যটি দেওয়ার সময় ওর মতামত তুলে ধরবো। কিন্তু না! বাবুর আর ধৈর্য নেই। অগত্যা আমাকেই হাল ধরতে হলো।বাবার পক্ষ থেকে প্রথম মন্তব্য করার জন্য অশেষ ধন্যবাদ আপনাকে। সঙ্গে প্রেরণা সূচক পোস্টটিতে লাইক করার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাই।

শুভেচ্ছা নিয়েন।

২| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৫

মা.হাসান বলেছেন: আচিনপুর জায়গাটা কোথায়?

২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: সেই যেখানে কেউ যায়নি,
কেউ যায় না কখনো...
সেই দেশে সেই ঝর্ণাতলায়।

৩| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২১

বলেছেন: মেলায় যাইরে দূরে বহু দূরে আচিনপুরে........................…?

কবিকে সাধুবাদ .

২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বাবার পক্ষ থেকে আপনাকে জানাই ধন্যবাদ ও আন্তরিক কৃতজ্ঞতা।
শুভকামনা প্রিয় লতিফভাইকে।

৪| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২৫

মা.হাসান বলেছেন: ধনী-গরিব হাত ধরে ঘোরাঘুরির কথা শুনে ভালো লাগলো। প্রার্থনা করি মেঘ যেন এরকম মানুষই হয়ে উঠতে পারে। সম্ভব হলে ওর থেকে জেনে নিয়েন- "আর এক ধরনের মেলা আছে সেটা দেখে কান্না আর ভয়ে বুক করে দুরু দুরু"- এটা কোন মেলা?

২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৫২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় মা.হাসান ভাই,
বড়বুবু ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত হয়ে আট দিনের মাথায় আজ ছুটি পেল। গতকাল ছুটি ঘোষণার খবর পেয়ে মেঘের কবিতা পোস্ট করে একটুখানি স্বস্তির অভিব্যক্তি প্রকাশ করি। যদিও সে আনন্দ বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। জেলা শহর থেকে অনেক দূরের বাসিন্দা ছোটবুবর প্রবল জ্বর ও সঙ্গে যন্ত্রণার কথা শুনে তৎক্ষণাৎ গাড়ি করে পাশ্ববর্তী নার্সিং হোমে ভর্তির পরামর্শ দিই। সেই মতো রাত দেড়টা নাগাদ ছোট বুবুকে ভর্তি করে বাড়ি ফিরে আসি।আজ রক্ত পরীক্ষায় টাইফসের সঙ্গে ডেঙ্গু পজেটিভ হওয়ায় নুতন করে লড়াই শুরু হলো। জানিনা এ অবস্থা থেকে কবে মুক্তি পাবো।
আশাকরি বিলম্বিত প্রতিমন্তব্যের জন্য ক্ষমার দৃষ্টিতে দেখবেন।
শুভকামনা জানবেন।


২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৫৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: দুঃখিত যে আপনার প্রশ্নের উত্তর দিতে ভুলে গেছি। উল্লেখিত লাইনে মেঘের ওরকম অভিব্যক্তির কারণ হলো মহরমের তাজিয়া ও তাকে কেন্দ্রে বসা মেলা। মহররমকে ও ভীষণ ভয় পায়।

৫| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৩

রাজীব নুর বলেছেন: দাদা, এত দিন কোথায় ছিলেন??
পরিবারের সবাইকে নিয়ে বেড়াতে গিয়েছিলেন। পাহাড় আর ঝরনার কাছে। আমি জানি।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:০০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: ভায়ের আন্তরিক মন্তব্যে প্রীত হলাম। হ্যাঁ পরিবার নিয়ে মাঝে বেশ কিছু দিন ছুটি কাটিয়ে এলাম। এই মূহুর্তে বোনদের নিয়ে ডেঙ্গুর বিরুদ্ধে লড়াই করছি। সময় সুযোগে পাহাড় ঝর্ণা নিয়ে পোস্ট দেবো।
অফুরান শুভেচ্ছা প্রিয় ছোট ভাইকে।

৬| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: দাদা কবিতা আসলেই খুব-খুব সুন্দর হয়েছে।
একদম সহজ সুন্দর।
আমি দশে দশ দিবো। ( আমি আমার জীবনে কাউকে দশে দশ দেই নাই। এই প্রথম)

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:০৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: অশেষ ধন্যবাদ প্রিয় ছোট ভাইকে। এমন মন্তব্যে ভাতিজা দারুণ অনুপ্রেরণা পেয়েছে। ভায়ের নিকট থেকে দশে দশ নিয়ে শুধু ভাতিজা একনয় বাবাও সমান আনন্দিত। ধন্যবাদ ভাইকে।
শুভকামনা রইল।

৭| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৫

রাজীব নুর বলেছেন: ও দাদা আরেকটা কথা বলতে ভুলে গেছি।
আগামী মাসে সুরভিকে নিয়ে কোলকাতা আসতেছি।
দেখা হবে আপনার সাথে??

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:১২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বিলম্বিত উত্তর দেওয়ার জন্য ভাইয়ের কাছে ক্ষমাপ্রার্থী। ভাই আমার ছোটবোনকে নিয়ে কলকাতা আসছে জেনে আনন্দিত হলাম। অবশ্যই আমার বাসায় আসার জন্য অগ্রিম দাওয়াত রইলো। ফ্লাইটে এলে ট্যাক্সি নিয়ে সোজা বারাসাতে অথবা বাসে এলে প্রথম দিনেই বারাসাতে নামতে বলবো। বড় ধরনের কোনো অঘটন না ঘটলে ভাইয়ের সঙ্গে তাহলে দেখা হচ্ছেই। অপেক্ষায় রইলাম....

৮| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৫৪

আহমেদ জী এস বলেছেন: পদাতিক চৌধুরি,




কিশোর কবি শ্রন্থন চৌধুরীর মতোই বলতে চাই - ধনী-গরীব আমরা সবাই হাত ধরে মেলায় ঘোরাঘুরি করি।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:১৭

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: শ্রদ্ধেয় জী এস ভাই,

ধন্যবাদ আপনার সুন্দর অনুপ্রেরণা সূচক মন্তব্যের জন্য। আমি ইতিমধ্যে আপনাদের মন্তব্যগুলো সব কিশোর কবিকে পড়িয়ে শুনিয়েছি। কিন্তু পারিবারিক সমস্যার কারণে ব্লগে লগইন করা গত দু'দিনে সম্ভব হয়ে ওঠেনি। যে কারণে বিলম্বিত প্রতিমন্তব্যের জন্য দুঃখিত।

শুভেচ্ছা অফুরান।

৯| ২২ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:১০

ইসিয়াক বলেছেন:


আমি ভাবছি ,
এইটুকু বয়সে কত গভীর ভাবনা খেলে মেঘের মনে .......
একদিন ঠিক দেখা হবে তাহার সনে ,
সুখের সেই অচিনপুরে গহীন বনে
যেথা সব বসে আছে আলোচনারত বিদগ্ধ জনে ।।

আর্শিবাদ রইলো.....

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:২২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ইসিয়াক ভাই,

প্রথমে ক্ষমাপ্রার্থী বিলম্বিত উত্তর প্রদানের জন্য। বাবার পক্ষ থেকে আপনার জন্য রইল ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।
নিশ্চয়ই একদিন দেখা হবেই হবে,
কোন সে অচিন পুরে অথবা,
আলোচনার জন্য কোনো টেবিলে।
আপনার আশির্বাদ হোক ওর আগামীর দিশারী। আবারো ধন্যবাদ আপনাকে।
শুভকামনা জানবেন।

১০| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:২৩

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন:

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:২৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ঠাকুর মাহমুদ ভাই,

কবিমশাই এত মিষ্টি দেখে অভিভূত। বাবার পক্ষ থেকে আপনাকে জানাই ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা।


আপনার জন্যও রইল হার্দিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

১১| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১০:৫০

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সবা্ই মিলে আনন্দে ভালো লাগা ।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:২৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হ্যাঁ ঠিকই বলেছেন প্রিয় কবি ভাই ,সবাই মিলে আনন্দ ভাগ করার মজাই আলাদা।
ধন্যবাদ আপনাকে।
শুভেচ্ছা নিয়েন।

১২| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:০৩

আরোগ্য বলেছেন: বাহবা! বাবা তো দেখছি কবিতার ঝুলি নিয়ে বসেছে। খুব ভালো। কবিতাটি পড়ে মার্টিন লুথার কিং এর আই হ্যাভ আ ড্রিম মনে পড়ে গেল।
রাতেই দেখেছি কিন্তু লগইনেে সমস্যা হচ্ছিল এখনও অন্য এ্যাপ দিয়ে লগইন করলাম। তা ভাইটি ২০২৯ সাল কেন?
ইদানীং আমারও অচিনপুরের মত দুর নীলদিগন্তে যেতে মন চায়। ফ্যামিলি প্রেসার, মেন্টাল প্রেসার তার উপর আবার ইমোশনাল প্রেসার লোডটা একটু বেশিই হয়ে যাচ্ছে।

কবি শ্রন্হন চৌধুরীকে অনেক শুভকামনা। ভালো থাকো বাবা।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় আরোগ্য,

প্রথমেই ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি বিলম্বিত উত্তর প্রদানের জন্য। ভালো লাগলো তোমার মার্টিন লুথার কিংয়ের আই হ্যাভ এ ড্রিম কবিতাটি মনে পরে যাওয়াতে। কবিতাটা আমার পড়া নেই ‌ যদি সামান্য কিছু মনে থাকে শেয়ার করার অনুরোধ রাখলাম।
আর লগ ইন সমস্যাটা ইতিহাস হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা একটা জলবিভাজিকার মধ্যে অবস্থান করছি। আপাতত আমরা শৃংখল মুক্ত বা মুক্তবিহঙ্গ।
বর্তমানে তোমার মানসিক ও শারীরিক সমস্যায় আমি প্রচন্ড উদ্বিগ্ন। উপরওয়ালার কাছে একটাই প্রার্থনা তোমার পারিবারিক ব্যস্ততা ও মানসিক দুশ্চিন্তা দূর হোক। আবার আগের মত সব কিছু স্বাভাবিক হোক কামনা করি।
কবি মশাই তোমার শুভেচ্ছা গ্রহণ করেছে। বাবার পক্ষ থেকে তোমাকে ধন্যবাদ রইল।
অফুরান শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানবে।

১৩| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৩৬

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
বাবার মত ছেলেও সাহিত্যের তারকা হয়ে উঠুক।+++++

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৩৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: লজ্জা লজ্জা লজ্জা! কি যে বলেন বাবার মত সাহিত্যের তারকা! এমন বিশেষণ প্রয়োগ করলে যে লজ্জায় প্রকাশ্য স্থানে আসাই দায় হয়ে যাবে প্রিয় মইদুল ভাই।হাহা হা....

শুভকামনা জানবেন।

১৪| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৪১

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: কবিকে অভিবাদন জানাবেন। শুভকামনা।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৩৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: মন্তব্য ও শুভকামনার জন্য ধন্যবাদ প্রিয় সৌরভ ভাই। কবি মশাইকে ইতিমধ্যে আপনার অভিবাদন জানিয়ে দিয়েছি।
আপনার জন্যও রইল অফুরান শুভেচ্ছা।

১৫| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:১১

হাবিব স্যার বলেছেন: ভিপিএন ছাড়াই ঢুকলাম

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৫৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হাহা হা..... আনন্দধারা বহিছে ভুবনে..
শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানবেন।

১৬| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:৫৫

নীল আকাশ বলেছেন: উদিয়মান কবি শ্রন্থন চৌধুরীকে শুভেচ্ছা রইল।
বাপকা বেটা বলা মনে হয় ঠিক হবে না, বাপের তো কবিতা দেখলাম না এখন পর্যন্ত!
শুভ কামনা রইল!

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৫৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বিলম্বিত উত্তর প্রদানের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী প্রিয় নীল আকাশ ভাই।
কবি মশাইয়ের শুভেচ্ছা যথাস্থানে পৌঁছে দিলাম। বাবার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ আপনাকে।
সহমত আমার আপনার সঙ্গে যে বাবা কবিতা লেখে না বা লিখতে পারেনা।
সুন্দর মন্তব্যে শিশু কবিকে অনুপ্রেরণা করার জন্য আবারো ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানাই।
অফুরান শুভেচ্ছা জানবেন।

১৭| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:৫৫

আখেনাটেন বলেছেন: সুন্দর চিন্তা কবির।

তবে আমার মনে হয়ে এই ভাবনাগুলো কবিতার পাশাপাশি গদ্যেও প্রকাশ করা উচিত কবির। এতে ক্রিয়েটিভ রাইটিংয়ের স্কিল বাড়বে। ভুলভ্রান্তিগুলি অনেক আগেই টের পাওয়া যাবে।

আমার এক পরিচিত (এবার ও-লেভেল এক্সাম দিবে) পিচ্চিকাল থেকেই অনলাইন পোর্টালের এখানে সেখানে বকরীর লাদির মতো লিখে বেড়াত। আমাকে দেখাত। উৎসাহ দিতাম। বই রেকামেন্ড করতাম। কিছুদিন থেকে ফিকশন লিখছিল বিখ্যাত কিছু সাইটে। লেখায় আমূল পরিবর্তন। কয়েকদিন আগে শুনি ক্রিয়েটিভ রাইটিংএ কি একটি প্রতিযোগিতায় একটি পুরস্কার বাগায়ে ফেলেছে। বাসার কেউ জানেই না এত কিছু করে ফেলেছে পিচ্চি মেয়ে। হা হা হা।

শুভকামনা কবির জন্য।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:০৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় আখেনাটেনভাই,

আপনার চমৎকার মন্তব্যে প্রীত হলাম। ধন্যবাদ দিয়ে ছোট করবো না। তবে একথা সত্যি যে ওকে আগে যেকোনো বিষয়ের উপরে পাঁচটি/ ছয়টি বাক্য লিখতে দিতাম। সেগুলো যে ও খুব খুশি মনে লিখতো তা নয়। আপনার পরামর্শের পর ওকে আবারো পূর্বের ন্যায় লেখানোর চেষ্টা করবো।
ভালো লাগলো আপনার পিচ্চিটির সুন্দর সাফল্যের পরিচয় পেয়ে। বাচ্চাটি নিঃসন্দেহ জিনিয়াস। ওর উজ্জ্বল ভবিষ্যৎ ও সুস্বাস্থ্যের কামনা করি।
আপনার শুভকামনার জন্য ধন্যবাদ। বাবার পক্ষ থেকে আপনার জন্যও রইল নিরন্তর শুভেচ্ছা।


১৮| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:১৫

ঢাবিয়ান বলেছেন: আহ মেলা । ছোটবেলার মেলার কথা মনে হলে আমার খালি আজিম্পুর এলাকায় বসা মহররমের মেলার কথা মনে হয়। কদমা, বাতাশা, মুড়ালি, মুড়কি উফফ স্বাদ মনে হয় এখনো মুখে লেগে আছে। আরো মনে পড়ে মেলায় চড়া চড়কির কথা। মাথা ঘুড়াতো , তারপরেও চড়া চাই চাইই। তাজিয়া মিছিলের কথাও মনে পড়ে। এখনও ঐ এলাকায় সেই মেলা বসে কিনা জানি না।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ঢাবিয়ান ভাই,

আট এ গ্লান্স আপনি যেন আমাদের শৈশবকে তুলে আনলেন চমৎকার মন্তব্যের মাধ্যমে। সত্যিইতো শৈশবের সেই সমস্ত মেলায় কদমা, বাতাসা, মুড়কি, ছোলা ভাজা বাদাম ভাজা, সম্ভব হলে দু একটা মচমচে পাপড় সঙ্গে দু'একটি জিলাপির মজাই আলাদা। অথচ এখন আমরা নিজেদের বাচ্চাদেরকে এসমস্ত রাস্তার খাবার খাওয়াতে রীতিমত ভয় পাই। সময়ই বুঝি মানুষের চিন্তা ধারাকে আমূল বদলে দেয়।
নস্টালজিয়া আমাদের মাঝে মাঝে স্মৃতিকাতর করে তোলে। তবুও এমন অনুভূতি বয়ে চলুক জীবনভর।

অফুরান শুভেচ্ছা জানবেন।


১৯| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:১৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: ফ্যামিলি প্রেসার, মেন্টাল প্রেসার তার উপর আবার ইমোশনাল প্রেসার লোডটা একটু বেশিই হয়ে যাচ্ছে।

@ আরোগ্য , কি ব্যপার প্রেমঘটিত সমস্যা নাকি? =p~

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হাহাহা ব্লগারদের মিথস্ক্রিয়ার এমন সুন্দর প্লাটফর্মের জন্য ব্লগকে কুর্নিশ না জানিয়ে পারিনা। প্রিয় আরোগ্য ইতিমধ্যে 25 নম্বর কমেন্টে আপনাকে কনফেস করেছে। আরোগ্য বলছে, আমি আরোগ্য লাভ করেছি। হাহা হা ....

২০| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩২

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর লিখে ও শুভকামনা

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ আপু আপনাকে।
আপনার জন্যও রইল অফুরান শুভেচ্ছা।

২১| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:১৯

বিজন রয় বলেছেন: বাহ!!
অনেক ভাল লাগল ব্যাপারটি।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় দাদা,

অনেকদিন পরে আপনার কমেন্ট পেয়ে আনন্দিত হলাম। ব্যাপারটি ভালো লেগেছে জেনে পুলকিত হলাম। ধন্যবাদ আপনাকে।
অফুরন্ত শুভেচ্ছা রইল।

২২| ২৩ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:২০

ভ্রমরের ডানা বলেছেন: মেলা মানেই আনন্দ...

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বহুদিন পর প্রিয় কবি ভাইকে ব্লগে দেখে আনন্দ পেলাম।
আশা করি এখন থেকে আপনি আবার আগের মতোই নিয়মিত হবেন।

শুভকামনা জানবেন।

২৩| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১:০৯

আরোগ্য বলেছেন: ঢাবিয়ান বলেছেনঃ @ আরোগ্য , কি ব্যপার প্রেমঘটিত সমস্যা নাকি?

হা হা হা। আদৌ সম্ভব না। মনে হয় কষ্মিনকালেও না। :(

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: দ্বিতীয়বার আবার এসে মন্তব্যে কনফেস করার জন্য ধন্যবাদ তোমাকে।
আদৌ সম্ভব নয় বা মনে হয় কস্মিনকালেও হবে না- এমনটি কেন ভাবছো? সবার জীবন সবসময় একই ছন্দে রচিত হয়না। জীবনের উত্থান-পতন থাকবেই। মনকে অবিচল রাখো। উপরওয়ালার কাছে ভিক্ষা মাগি, একদিন নিশ্চয়ই তুমি ফল পাবে।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৪২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় আরোগ্য,

তোমার এই কমেন্টের প্রতিমন্তব্যে আমাকে আবার আসতে হলো। ঢাবিয়ান ভাই কিন্তু চমৎকার মন্তব্য করেছেন,
@আরোগ্য, কি ব্যাপার প্রেমঘটিত সমস্যা নাকি?
যে প্রেম হৃদয়ে রিনঝিন বাজায় সে প্রেম যে কখনও থামার নয়.... বয়ে চলুক আবহমান।

২৪| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২০

রাকু হাসান বলেছেন:

ছোট হলেও কি সুন্দর মানসিকতার কবিতা । উজ্জ্বল আগামী কামনা করছি।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: স্নেহের রাকু,

তোমার ছোট্ট আন্তরিক মন্তব্যে মুগ্ধ হলাম। তোমার দোয়া যেন কবুল হয়। ধন্যবাদ তোমাকে।

অফুরান শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানবে।

২৫| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:০৪

আরোগ্য বলেছেন: ভাইটি আবার আসলাম । কি লিখলাম আর কি বলছে সবাই :P । ঢাবিয়ান ভাইয়ের মন্তব্য পড়ে লজ্জা পেলাম । আর মা হাসান ভাইয়ের পোস্টের মন্তব্যের উত্তর পড়ে আমি হাসতে হাসতে শেষ । আর চিন্তা করোনা ভাইটি আমি আরোগ্য লাভ করেছি । :)

আই হ্যাভ এ ড্রিম চার পাচ পেজের একটি ভাষণ তাই তোমার সাথে শেয়ার করতে পারছি না । পরে কথা হবে ।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় আরোগ্য,

তোমার আবার আগমনে আমি শতধিক আনন্দিত। প্রিয় ঢাবিয়ান ভাই, মা.হাসান ভাইদের মতো গুণী ব্লগারদের মন্তব্য বা তার উত্তর যে তোমার কাছে যথেষ্ট উপভোগ্যের কারণ হয়েছে জেনে পুলকিত হলাম। এটাই বোধহয় সামুব্লগে আমাদের শ্রেষ্ঠ। এই মনের রসদ খোঁজার জন্যই আমরা সামান্য অবসরেও ঢুঁ মারি আমাদের প্রাণাধিক প্রিয় ব্লগটিতে।
মার্টিন লুথার কিংয়ের লেখাটা যে চার পাতার, সেটা জানতাম না। অনাবশ্যক বিব্রত করার জন্য দুঃখিত ক্ষমাপ্রার্থী।

শুভকামনা ও ভালোবাসা প্রিয় আরোগ্যকে।


২৬| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:২৯

ডার্ক ম্যান বলেছেন: কবিতা মানুষকে শুদ্ধ করে তোলে । কবিতা চর্চা অব্যাহত থাকুক

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: পাঠ ও মন্তব্যের জন্য ধন্যবাদ প্রিয় ভাইকে। সহমত যে কবিতা মানুষকে শুদ্ধ করে তোলে, তুলে ধরে নতুন পথের দিশা।
শুভকামনা ও ভালোবাসা জানবেন।

২৭| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:২৪

জাহিদ অনিক বলেছেন: কবিতা মেলা, আমি তো বলব কবিতা মেঘ!


দারুণ!!

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৫৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হাহাহা ..... মেঘমল্লার কবিতা যদি হয়ে থাকে তাহলে বেশ তো।
দারুণ প্রেরণাদায়ক মন্তব্য। ধন্যবাদ প্রিয় কবি ভাইকে।
বাবার পক্ষ থেকে জানাই আন্তরিক অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা।

২৮| ২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: দাদা আমার তিনটি মন্তব্যের খুব সুন্দর উত্তর দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ।

২৪ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৫৭

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ছোট ভাইয়ের সুন্দর অভিব্যক্তিতে আমি মুগ্ধ। ধন্যবাদ ভাইকে।

অফুরান শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো।

২৯| ২৫ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:০৯

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: বাহ! সময়ের সাথে সাথে লেখনীর ভাব, শৈলী উন্নত হচ্ছে।
আগামীর এই কবিকে আমার শুভেচ্ছা পৌছিয়ে দিয়েন, দাদা!

২৫ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:১২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপনার আগমন আনন্দ পেলাম। পাঠ ও মন্তব্যে ধন্যবাদ।
আপনার শুভেচ্ছা কবি মশাইয়ের কাছে পৌঁছে দেবো।
বাবার পক্ষ থেকে আপনার জন্যও রইল অফুরন্ত শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা।

৩০| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:২৪

আরোগ্য বলেছেন: ভাইটি,
বড়বুবু এখন কেমন আছে? আশা করি আগের চেয়ে ভালো আছেন।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৪৭

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বড়বুবুর ছুটি হয়ে গেছে আটদিনের মাথায়। কিন্তু ছোটবুবু আবার ডেঙ্গু জ্বরে আক্রান্ত।একই নার্সিংহোমে ভর্তি। এই মুহূর্তে কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও কিডনিতে সংক্রমণ আছে। ডাক্তার বলেছে সময় লাগবে।

৩১| ২৭ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৫৫

আরোগ্য বলেছেন: আল্লাহ ভরসা।

২৭ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৫৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: নিশ্চয়ই।

৩২| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১০:৩৪

মিথী_মারজান বলেছেন: অনেক সুইট একটা কবিতা।
মুগ্ধ হলাম মেঘের কাব্যিক প্রচেষ্টায়, অভিভূত হলাম ছোট্ট বাবাটার মন- মানসিকতায়।
কবিতাতে শুধুমাত্র লাইক নয়, আমার পক্ষ থেকে ভালবাসা রইল মেঘ বাবুটার জন্য। :)

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:৪৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় আপু,

আপনার সুন্দর মন্তব্যের প্রীত হলাম। আপনার মন্তব্যটি মেঘকে পড়িয়ে শুনিয়েছি। ও ভীষণ খুশি হয়েছে। আজই বায়না করছে নতুন একটি কবিতা পোস্ট করার। আমি ওকে অনেক বুঝিয়ে নিরস্ত করেছি, যে এত ঘনঘন নয়। একটা নির্দিষ্ট গ্যাপে পোস্ট দেওয়া সমীচীন। মেঘের হয়ে বাবার পক্ষ থেকে আপনাকে জানাই আন্তরিক ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা আপু।

অফুরান শুভেচ্ছা জানবেন।

৩৩| ০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:২৫

মুক্তা নীল বলেছেন:
দাদা ,
মেঘ বাবার কবিতা পড়ে অনেক আনন্দ পেলাম। আসলে আমরা যারা ছোট ছিলাম তখনই ভালো ছিলাম । মেলায় যাওয়ার আনন্দ
মেলা থেকে ফিরে আসার পর স্মৃতিচারণ করে গল্প করা সেদিন গুলো সত্যিই আর নাই। এখন তো মেলায় তেমন একটা যাওয়া হয় না আর গেলেও সেটা নিতান্ত প্রয়োজনে। ধনী গরিবের ব্যবধান
কি সুন্দর করেই না উপস্থাপন করেছে ।
মেঘ বাবাকে শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা জানাবেন।

০১ লা নভেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৪৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ছোট বোন,

মেঘের কবিতা পড়ে আনন্দ পেয়েছেন জেনে আমিও আনন্দ পেলাম। সহমত আপনার সঙ্গে যে শৈশবের স্মৃতি সমস্ত কিছু থেকেই এক্কেবারে অকৃত্রিম ও আলাদা যা পরবর্তীকালে আমাদেরকে স্মৃতিমেদুর করে তোলে। আগের অপরিকল্পিত মেলাগুলি যতটা আনন্দে মুখরিত করে তুলতো নয়া প্রজন্মের পরিকল্পিত শহুরে মেলাগুলি কেমন যেন প্রাণহীন ও কৃত্রিমতায় পরিপূর্ণ বলে মনে হয়।
মেঘের উপস্থাপন ভালো লাগাতে বাবার পক্ষ থেকে প্রিয় ছোট বোনকে আবারও ধন্যবাদ জানাই।
অফুরান শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা রইলো।

৩৪| ১৫ ই নভেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৩০

নার্গিস জামান বলেছেন: বড় সুন্দর :)

১৫ ই নভেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:১৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: পরপর তিনটি পোস্টে পরিভ্রমণ করাতে অত্যন্ত আনন্দ পেলাম।বাবার পক্ষ থেকে ধন্যবাদ আপনাকে।

অফুরান শুভেচ্ছা জানবেন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.