নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমি আমার নিরক্ষর কিন্তু বুদ্ধিমতী মায়ের কাছ থেকে এই শিক্ষাই পেয়েছিলাম,যথাযথ কর্তব্য পালন করেই উপযুক্ত অধিকার আদায় করা সম্ভব। - মহাত্মা গান্ধী

পদাতিক চৌধুরি

হাই,আমি পদাতিক চৌধুরী।পথেঘাটে ঘুরে বেড়াই।আগডুম বাগডুম লিখি। এমনই আগডুম বাগডুমের পরিচয় পেতে হলে আমার ব্লগে আপনাদেরকে স্বাগত।

পদাতিক চৌধুরি › বিস্তারিত পোস্টঃ

লেখালেখি শিকেয় তুলে...

১৯ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৪:৫৮

আজকের ছাদ বাগানের প্রাপ্তি:-
১.

এবার এক নজরে ছাদ বাগানের সদস্যদের সঙ্গে পরিচয় করে নেওয়া যাক। এ প্রসঙ্গে দু-চার কথা না বললেই নয়।সদ্য সমাপ্ত করোনার আতঙ্ক আর পাঁচ জনের মতো আমাদেরও আতঙ্কিত করে তুলেছিল। পারিপার্শ্বিকতায় উপলব্ধি করেছি মৃত্যু-মিছিল কাকে বলে। বর্তমানে ইলেকট্রনিক মিডিয়ার মাধ্যমে গোটা বিশ্বের কাছে দেশের সেই নিদারুণ অবস্থা ধরা পড়েছে। প্রতিনিয়ত যে ছবি আচ্ছন্ন করে দিয়েছিল আমাদের মনো রাজ্যকে। এক প্রকার হারিয়েই ফেলেছিলাম জীবনে চলার স্বচ্ছন্দ গতিকেও। স্বভাবতই লেখালেখির জন্য কলম গেছিল থেমে। এমতাবস্থায় লেখালেখিকে শিকেয় তুলে রেখে নিজেকে ঘুরিয়ে দেই অন্যদিকে। অবশ্যই যার উদ্দেশ্য ছিল পরিবারকে সময় দেওয়া।
এক্ষেত্রে কতটাা সবুজায়ন করতে পারলাম সেটা আমার কাছে বিবেচ্য নয় কিন্তু এই কঠিন সময়ে পরিবারকে সে স্বাভাবিক রাখতে পেরেছি এটাই ছিল আমার পরিতোষ প্রাপ্তির মূল প্রেরণা। চলুন এবার এক নজরে ছাদ বাগানে ঘুরে আসা যাক।

২.

৩.

৪.

৫.

৬.

৭.

কলমি শাক
৮.


৯.

লাওফুল
১০.

ঝিঙে ফুল
১১.

শিম গাছ আগামীর প্রত্যাশায়...
১২.

১৩.

মেহেন্দি গাছ
১৪.

নোটে শাক
১৫.

পোকার উপদ্রব থেকে রক্ষা পেতে পলিথিনে মোড়ানো লাউ
১৬.

পলিথিনে মোড়ানো ঝিঙে
১৭.

পুঁইশাক উচ্ছে ও ঝিঙে গাছের সহবস্থান
১৮.

এতক্ষণ ধৈর্য ধরে ছবিব্লগটি দেখার জন্য সকলকে অশেষ ধন্যবাদ।

মন্তব্য ৬৪ টি রেটিং +২১/-০

মন্তব্য (৬৪) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:০৫

সামিউল ইসলাম বাবু বলেছেন: মারহাবা মারহাবা, সুন্দর উদ্যোগ

১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বহুদিন পর আপনার এমন আন্তরিক মন্তব্য পেয়ে অত্যন্ত খুশি হয়েছি। অসংখ্য ধন্যবাদ প্রিয় সামিউল ভাই।

নিরন্তর শুভকামনা আপনাকে।

২| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:১৫

শেরজা তপন বলেছেন: কি করেছেন দাদা কি দারুন সব কচি কচি বাহারি সব্জি!!!

- আপনার সব্জি দিয়েইতো পুরো একটা শহরের চাহিদা মেটানো যাবা :-B

১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৩৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: "কি করেছেন দাদা কি দারুন সব কচি কচি বাহারি সব্জি!!!" - হেহে হে...একটু চাষবাস করার চেষ্টা করেছি। তবে আপনার কথায় ফলন এই আনাড়ি হাতে ভালোই হয়েছে। গোটা শহরে চাহিদা পূরণ না করতে পারলেও ব্লগ বাসীদের ছাদ বাগানের সবজি খাওয়ানোর অপেক্ষায় রইলাম। হেহে হে....

পোস্টটিতে like'করে কৃষিকাজে অনুপ্রাণিত করার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।

শুভকামনা প্রিয় ভাইকে

৩| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২১

আহমেদ জী এস বলেছেন: পদাতিক চৌধুরি,




এ দেখি সবুজ বিপ্লব ঘটিয়ে ফেলেছেন! এতো সতেজ , সবুজ সব সব্জী, মনে হয় যেন এদেরও প্রান আছে!
আর নিজের হাতে করা এই সব জিনিষ অমূল্য। খুউব ভালো লাগলো আপনার ছাদ বাগানের ঐশ্বর্য্য।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৪৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: "এ দেখি সবুজ বিপ্লব ঘটিয়ে ফেলেছেন! এতো সতেজ , সবুজ সব সব্জী, মনে হয় যেন এদেরও প্রান আছে!
আর নিজের হাতে করা এই সব জিনিষ অমূল্য। খুউব ভালো লাগলো আপনার ছাদ বাগানের ঐশ্বর্য্য।"- আপনার আন্তরিক মন্তব্যে প্রীত হলাম। অসংখ্য ধন্যবাদ ভাই আপনাকে। একটা কঠিন সময়ে এই কাজে নেমে পড়ি।স্ত্রীর করোনা ভীতি নিয়ে প্রচন্ড উদ্বেগ ছিল।ওসব নিয়ে সারাক্ষণ ভাবনা চিন্তা করতো আর আমাদের কি উপায় হবে মুখে বলতো। উদ্বেগ আমারও ছিল। কিন্তু কখনও ওকে প্রকাশ করিনি। দুশ্চিন্তায় নিজের কলম গেছে থেমে। এমতাবস্থায় পূর্ণ উদ্যমে নিজেকে অন্য দিকে ঘুরিয়ে দেই। আগে এই সম্পর্কে কোনো ধারণা ছিল না। কয়েক জনকে ফোনে জিজ্ঞেস করে মোটামুটি কৃষিকাজ সম্পর্কে একটা ধারণা লাভ করি। তবে সবচেয়ে সহযোগিতা করেছেন যে দোকান থেকে বীজ কিনেছিলাম সেই দোকানদার।আমি ওনাকে আমার ছাদ বাগানের মেন্টর মেনেছি। ভদ্রলোক খুব খুশি হন আমার এমন প্রশংসা বাক্য। বাকিটা তো ছবিতে দেখছেন।

শুভেচ্ছা আপনাকে।

৪| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:২৫

মরুভূমির জলদস্যু বলেছেন: এতো বিশাল ব্যাপার!!

১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:৫০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হেহেহে একটু কৃষিকাজের চেষ্টা করেছি আরকি।
ভালো থাকবেন ভাই সবসময়।

৫| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:১৪

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: মাশাআল্লাহ ইশ এমন একটা ছাদ আমার চাই। বিশাল ব্যাপার, আরও সফলতা আসুক

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:০৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: মাশাআল্লাহ আপু ফলন নিয়ে আমি খুশি। তবে আগামীতে আরও কিছু নুতন ফলনের ইচ্ছা আছে। আপনার স্বপ্ন পূরণ হোক এই কামনাই করি।
শুভেচ্ছা জানবেন আপু।

৬| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৪৪

ঢাবিয়ান বলেছেন: ওয়াও দারুন সুন্দর আপনার ছাদ বাগান। ছবি ব্লগ প্রতিযোগিতায় এই ছবিগুলো দিলে অন্যরকম রঙ ছড়াতো। নিজস্ব সৃষ্টির ফটোগ্রাফির কোন তুলনাই হয় না।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:২২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: " ওয়াও দারুন সুন্দর আপনার ছাদ বাগান। ছবি ব্লগ প্রতিযোগিতায় এই ছবিগুলো দিলে অন্যরকম রঙ ছড়াতো। নিজস্ব সৃষ্টির ফটোগ্রাফির কোন তুলনাই হয় না।"- চমৎকার লাগলো আপনার কমেন্টটি। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।ছবি ব্লগ প্রতিযোগিতার সময় এতোটা সবজি ফলেনি। সেই জন্য আর দিতে পারিনি।কি আর করার... সুতরাং দেরীতে হলেও ছবিব্লগ দিয়ে নিজেকে ছবি ব্লগের আনন্দে সামিল হলাম।
আবারো ধন্যবাদ ভাই আপনাকে।
শুভেচ্ছা জানবেন।

৭| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৭:৫৯

কামাল১৮ বলেছেন: দেখে মুগ্ধ,ছাদের দিকেও খেয়াল রাখবেন।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:২৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: খুব ভালো কথা বলেছেন।ছাদ বাগানের নিচে ছাদের অংশে সোলার প্রটেক্টেড চেক টাইলস বসানোর প্লান আছে।এই মুহূর্তে ভিতরে মার্বেলের কাজ হচ্ছে।ওটা শেষ হলে ছাদের কাজে হাত পড়বে। সঙ্গে আউটলেট গুলো প্লাম্বিং দিয়ে রেইন পাইপে জুড়ে দেওয়ার ইচ্ছা আছে। অর্থাৎ বাগানের মাটির কোনো রকম জল যাতে ছাদে না পড়ে সেই ব্যবস্থা কয়েকমাসের মধ্যেই করার চেষ্টা করবো।
শুভেচ্ছা আপনাকে।

৮| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৮:২৪

হাবিব বলেছেন: দারুণ সবজির চাষ করেছেন

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৩০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হ্যাঁ সে কথা বলতেই পারেন। ছবি দেখা ও কমেন্ট করাতে অসংখ্য ধন্যবাদ।
শুভেচ্ছা জানবেন।

৯| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:০৪

পদ্মপুকুর বলেছেন: চ্যানেল আইয়ের শাইখ সিরাজ আপনার ছাদে আসছে, অপেক্ষা করেন... :D

খুব ভালো লাগলো ছাদকৃষির ফলন দেখে। একবার একলেখাতে আপনি মন্তব্য করেছিলেন যে অ্যাপার্টমেন্ট/ফ্ল্যাট কিনতে গিয়ে হেনস্তা হতে হয়েছিলো। এখন যেখানে আছেন, সেটা কি আপনার নিজের মালিকানাধীন বাসা? ছাদে গাছের বিশাল আয়োজন দেখে বলছি...

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:০৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: "চ্যানেল আইয়ের শাইখ সিরাজ আপনার ছাদে আসছে, অপেক্ষা করেন... :" হেহে হে... তথাস্তু ভাই আমি অপেক্ষায় রইলাম চ্যানেলের আগমনের অপেক্ষায়...হেহেহে
ছাদবাগান দেখে আপনি খুশি হয়েছেন জেনে আমিও আনন্দিত। এমন নির্মল অনুভূতি জানানোর জন্য অকুণ্ঠ ধন্যবাদ আপনাকে।

"একবার একলেখাতে আপনি মন্তব্য করেছিলেন যে অ্যাপার্টমেন্ট/ফ্ল্যাট কিনতে গিয়ে হেনস্তা হতে হয়েছিলো।"- আপনার এই বিষয়টি মনে আছে জেনে আমি উচ্ছ্বসিত। হ্যাঁ জীবনের কোনো একটা পর্বে ফ্লাটে থাকবো বলে খোঁজ নিতে থাকি। আমার চাহিদা ছিল দখিনা খোলা এবং গ্রাউন্ড ও পাঁচতলা যেন না হয় (টপ ফ্লোর)। শহরের প্রাণকেন্দ্রে একটা পেয়েও যাই। কিন্তু খোঁজ নিয়ে জানতে পারি আমি ওখানে ফ্লাট পাওয়ার যোগ্য নই। আমার ধর্মীয় কারণে বাকিরা আপত্তি করে এবং তারাই স্বধর্মের কাস্টমারের সন্ধান দিবে বলে প্রোমোটারকে আশ্বস্ত করে।
আর ঘরভাড়া খুঁজতে গিয়ে তো এরকম অভিজ্ঞতায় বহুবার পড়েছি।

"এখন যেখানে আছেন, সেটা কি আপনার নিজের মালিকানাধীন বাসা? ছাদে গাছের বিশাল আয়োজন দেখে বলছি..."-হ্যাঁ ভাই ছাদ বাগান দেখে আপনার অনুমান সঠিক। এখন যেখানে আছি সেটা নিজেরই বাড়ি।আপনি কলকাতায় এলে আমার বাড়িতে দাওয়াত থাকলো। আশাকরি দেখা হবে একদিন।

শুভেচ্ছা আপনাকে।




১০| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:২৩

মেহবুবা বলেছেন: মন ভাল করা সব ছবি। কত যে ইচ্ছে করে।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:১৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আমার কোনো পোস্টে আপনার প্রথম কমেন্ট। সুস্বাগতম আপনাকে। সবজি দেখতে খুবই ভালো লাগে। সহমত আপু সকাল ও সন্ধ্যায় সবজি বাগানে সময় কাটানোর অনুভূতিই আলাদা। যদি সম্ভব হয় তাহলে আপনাকেও ছাদ বাগান তৈরিতে পরামর্শ দেবো।
শুভেচ্ছা জানবেন আপু।

১১| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:২৪

মেহবুবা বলেছেন: ২ নম্বর এ কি ? বুঝতে পারছি না।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:১৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আবার কমেন্টে এসে মনের অনুসন্ধিৎসা জানানোর জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।‌ দ্বিতীয় ছবিটি কুমড়োর।
এখনো কাঁচা থাকার জন্য কুমড়ো গায়ের রঙ পায়নি। মোট তিনটি কুমড়ো ফেলেছে।

ভালো থাকবেন আপু সবসময় এই দোয়া করি।

১২| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:৫০

ইসিয়াক বলেছেন:




অসাধারণ শাক সবজির আবাদ।
ধন্য ধন্য পদাতিকদা জিন্দাবাদ।

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:২১

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন:

অসাধারণ শাক সবজির আবাদ।
ধন্য ধন্য পদাতিকদা জিন্দাবাদ।"-হেহেহে ... কলকাতায় এলে কিন্তু এটাই খাওয়াবো।মনে রাখবেন।হেহেহে

১৩| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:৫২

ইসিয়াক বলেছেন: শেষ ছবিটির সাদা রঙের ঘরটি কিসের? পটিখানা নাকি :D

১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:৩০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আমার বাড়ির সামনে ১২ ফুট রাস্তা ও দুই দুই চারফুট ড্রেন সহ মোট 16 ফুট ওপারে একটি বাড়ির চিলেকোঠা। আপনি সেই বাড়িটিকে একটা পটিখানা বানিয়ে দিলেন। বাড়িওয়ালা জানলে আপনার জন্য আমাকে পাড়া ছাড়া করেই ছাড়বেন- এই বলে রাখলাম। হুঁ......

১৪| ১৯ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:৫৯

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:

কাজটিতো ভালোই করতে ছিলেন
কেন আবার কলমটাকে শিকে থেকে
নামাতে গেলেন !!
চমৎকার শাক শব্জি আর দারুন ছবি!!
তবে দ্বিতীয় ছবিটি কিসের বুঝি নাই!
ক্যাপশন থাকলে ভালো হতো।

২১ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:৩৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: "কাজটিতো ভালোই করতে ছিলেন
কেন আবার কলমটাকে শিকে থেকে
নামাতে গেলেন !!"- ঐ যে সামুর নেশা পেয়ে বসেছে।তাই বেশি দিন আর দূরে থাকতে পারলাম না। আবার চলে এলাম এই বাংলায়


"চমৎকার শাক শব্জি আর দারুন ছবি!!
তবে দ্বিতীয় ছবিটি কিসের বুঝি নাই!
ক্যাপশন থাকলে ভালো হতো।"- হ্যাঁ ভাই ফলন পেয়ে আমি খুশি।আর ক্যাপশন দিলে আপনার বুঝতে অসুবিধা হতো বলে মনে হয়েছিল। কিন্তু সত্যিই যখন দেখলাম আপনার অসুবিধা হচ্ছে সেইজন্য দুঃখিত। ভবিষ্যতে দেওয়ার চেষ্টা করবো।
নিরন্তর শুভেচ্ছা প্রিয় ভাইকে।

১৫| ২০ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:২১

আমারে স্যার ডাকবা বলেছেন: ভালোই ফলন হইছে। নিজের হাতে লাগানো গাছের ফল/সবজির স্বাদই আলাদা। শুভ কামনা রইলো। :#)

২১ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:৪২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপনার নিকটি আমার ভীষণ ভালো লেগেছে।কি সুন্দর চিন্তা করে এমন একটি নিক নিয়েছেন, আমারে স্যার ডাকবা'।
আমি কিন্তু আপনাকে স্যার ডাকছি।হেহেহে.. ..

আমার কোনো পোস্টে আপনার প্রথম কমেন্ট। সুস্বাগতম স্যার আপনাকে।
"নিজের হাতে লাগানো গাছের ফল/সবজির স্বাদই আলাদা। "- ঠিকই বলেছেন নিজের হাতে লাগানো ফল/ সবজির স্বাদই আলাদা।
এগারো মাস ব্লগিং করছেন কিন্তু এখনো কোনো পোস্ট দেননি। আমরা শীঘ্রই আপনার পোস্ট পেতে চাই।
ভালো থাকবেন স্যার সবসময়।

১৬| ২০ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১২:৫৪

মেহবুবা বলেছেন:

আমার বারান্দায় লাল টুকটুকে মিশরীয় ডুমুর !
ছাদে গাছ বাগান করবার সময় করতে পারবো না এখন; তবে আমার কিছু গাছ আছে লাগানো, সময় পেলে দেব ছবি।

২১ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:৪৮

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আবার মন্তব্যে এসে চমৎকার নিজের হাতে ফলানো বারান্দার টুকটুকে মিশরীয় ডুমুর শেয়ার করাতে প্রীত হলাম। অসংখ্য ধন্যবাদ আপু আপনাকে। ঠিক আছে ছাদ বাগানের দরকার নেই। আপনার লাগানো কিছু গাছের ছবি সময় পেলে আমাদেরকে শেয়ার করবেন এই আশায় রইলাম।

ভালো থাকবেন সবসময়।

১৭| ২০ শে জুলাই, ২০২১ সকাল ৮:৩১

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:



খুবই মুল্যবান ছাদে চাষাবাদ প্রকল্প ।
ফলন দেখে আমি উৎফুল্ল । বেশ
সুন্দর উপকারী কাজে আপনার
সময় ব্যয় হয়েছে । এরকমটি
সকলের জন্যই হতে পারে
অনুকরনীয় ।

ছাদে এ ধরনের ফল মুল ,শাক সবজির
চাষাবাদের জন্য প্রযুক্তির ও পদ্ধতির আরো
উন্নয়ন প্রয়োজন । বড় বড় এপার্টমেন্ট
ভবন ও সরকারী ভবনের ছাদে
কমিউনাল ভিত্তিতে এই ধরনের
চাষাবাদ কর্ম পরিচালনা করলে
ভবন ব্যবহারকারী সকলেই
অংশ গ্রহন করতে পারবেন ।

এখনতো ফ্লাটবাড়ী ও এপার্টমেন্টের
ছাদে শুধু মালিকের অধিকার, অন্যরা
শুধু চেয়ে দেখেন দুর হতে ।
তাই, যাদের মাথার উপরে ছাদ নাই
তাদেরকেও ছাদবাগানের দিতে হবে
অধিকার সমভাবে । ছাদ বাগানের
প্রসার বাড়ুক। তবে কেও খাবে তো কেও
খাবেনা তা হবেনা । ছাদ বাগানের
বিকল্প ব্যবস্থাও করতে হবে একই
সাথে। শহড় এলাকায় কৃষি এলটমেন্ট
প্লট হতে পারে ছাদহীনদের জন্য একটি
কার্যকরী ভাল ব্যবস্থা ।
শহড়াঞ্চলের একটি কৃষি এলটমেন্ট প্লটের মাষ্টার প্লান নীচের মত হতে পারে ।

বিষয়টি নিয়ে আমি গত কয়েক বছর আগে সামুতে
শহরাঞ্চলকে সবজীতে আত্ম নির্ভরশীল করার লক্ষ্যে গৃহিতব্য কিছু পদ্ধতির ধারণাপত্র নিয়ে একটি পোষ্ট দিয়েছিলাম ।
সেখানে বিস্তারিতভাবে আলোচনা করেছি শহরাঞ্চলকে কি ভাবে সবজীতে আত্ম নির্ভরশীল করা যায় ।

সুন্দর সুন্দর সবজির ছবি সমেত পোষ্টটির জন্য ধন্যবাদ ।

শুভেচ্ছা রইল

২১ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:১১

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন:
"খুবই মুল্যবান ছাদে চাষাবাদ প্রকল্প ।
ফলন দেখে আমি উৎফুল্ল । বেশ
সুন্দর উপকারী কাজে আপনার
সময় ব্যয় হয়েছে । এরকমটি
সকলের জন্যই হতে পারে
অনুকরনীয় ।"
শ্রদ্ধেয় ভাই আপনার উৎসাহ বা উৎফুল্ল দেখে আমি উচ্ছ্বসিত।ব্লগে এমন উৎসাহ পাবো ভাবতে পারিনি। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।আপনি বিদ্বজন।হ্যাঁ ভাই প্রচুর সময় লাগে ছাদ বাগানে। আপনাকে বলি তাহলে একটি কথা। আমার ছাদ বাগান দেখে এক বন্ধু তার দুবিঘা জমি আমাকে চাষ করতে চাপ দিচ্ছে। বলুন এখন হাসবো না কাঁদবো?


"ছাদে এ ধরনের ফল মুল ,শাক সবজির
চাষাবাদের জন্য প্রযুক্তির ও পদ্ধতির আরো
উন্নয়ন প্রয়োজন । বড় বড় এপার্টমেন্ট
ভবন ও সরকারী ভবনের ছাদে
কমিউনাল ভিত্তিতে এই ধরনের
চাষাবাদ কর্ম পরিচালনা করলে
ভবন ব্যবহারকারী সকলেই
অংশ গ্রহন করতে পারবেন ।"- ছাদ বাগান প্রসঙ্গে আপনার সুচিন্তিত পরিকল্পনাটি আমার ভীষণ ভালো লেগেছে। অত্যন্ত ভাল প্রস্তাব। আমারও মনে হয় প্রতিটি বড় বড় ফ্ল্যাট বাড়ির অ্যাপার্টমেন্টে যারা থাকেন তাদেরকে ছাদের একটা অংশ যদি এভাবে বন্টন করা হয় চাষ-বাসের জন্য তাহলে নিঃসন্দেহে সকলে উপকৃত হবে। এর একটা প্লাস পয়েন্ট অতিবর্ষণেও ছাদের শাকসবজি নষ্ট হওয়ার ভয় থাকে না। সদ্যসমাপ্ত বর্ষণে আমি তার প্রমাণ নিজে হাতেই পেয়েছি। তবে ছাদের আউটলেট ব্যবস্থাটা যথাযথ রাখতে হবে।

"এখনতো ফ্লাটবাড়ী ও এপার্টমেন্টের
ছাদে শুধু মালিকের অধিকার, অন্যরা
শুধু চেয়ে দেখেন দুর হতে ।
তাই, যাদের মাথার উপরে ছাদ নাই
তাদেরকেও ছাদবাগানের দিতে হবে
অধিকার সমভাবে । ছাদ বাগানের
প্রসার বাড়ুক। তবে কেও খাবে তো কেও
খাবেনা তা হবেনা । ছাদ বাগানের
বিকল্প ব্যবস্থাও করতে হবে একই
সাথে। শহড় এলাকায় কৃষি এলটমেন্ট
প্লট হতে পারে ছাদহীনদের জন্য একটি
কার্যকরী ভাল ব্যবস্থা ।"-আপনার মন্তব্যের এই অংশে সমাজের একটা বিশেষ শ্রেণীর মানুষের জন্য এক হাহাকার ফুটে উঠেছে। শতভাগ সহমত আপনার সঙ্গে যে ছাদ বাগানের ছাদে মাথার উপর যাদের ছাদ তাদের সকলের অধিকার দিতে হবে। বিষয়টি খুবই দুঃখজনক যে বাগানের শাকসবজি কেউ দেখবে কষ্টের সঙ্গে আবার কেউ দেখে হাসবে উৎফুল্ল সহকারে। বিষয়টা খুবই দুঃখজনক।
এ প্রসঙ্গে ছাদহীনদের জন্য শহর এলাকায় কৃষি অ্যালটমেন্ট প্লট পরিকল্পনা নিঃসন্দেহে অভিনব এবং প্রশংসার দাবি রাখে। সঙ্গে ছবিটি দেওয়ায় বুঝতে সুবিধা হয়েছে। আবারো ধন্যবাদ আপনাকে।
এই প্রসঙ্গে আপনার পোস্ট ও লিঙ্কটি দেওয়ায় দারুণ আনন্দ পেলাম। এই পোস্টটিই এখন আমার ছাদ বাগানের গাইড। কি বলে যে কৃতজ্ঞতা জানাবো তা আমার ভাষা নাই।

শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা ভাই আপনাকে।


১৮| ২০ শে জুলাই, ২০২১ সকাল ৯:২৯

জুন বলেছেন: পদাতিক আপনার ছাদ বাগানের সবুজ শ্যমলশোভায় চোখ জুড়িয়ে গেল যেন। লেখা লেখি শিকেয় তুলে অন্য কিছুতে জড়িয়ে না পরে একটি অনন্য শিল্পের সাথেই জড়িয়েছেন দেখে খুব ভালোলাগলো । আমি তো একসময় সামুর প্রতি এতটাই এডিক্টেড ছিলাম যে বাসায় আমার ভাই বোন বা কোন মেহমান আসলে আমার এক চোখ পরে থাকতো সামুর খোলা পেইজে । তারা এটা দেখে আমার উপর অভিমান করে বলতো তোর বাসায় আর আসবোনা । বিশ্বাস করেন আমার নেশা এমন চরম পর্যায়ে ছিল যে তাদের কথা শুনে কষ্ট বা লজ্জা পাওয়া নয় মনে হতো মন থেকে একটা ভার নেমে গেল যেন। কোথাও বেড়াতে গেলেও আর সেখানে নেট না থাকলে বাসায় ফেরার জন্য পাগল হয়ে যেতাম । এখন ভাবলেও হাসি পায় :`> আপনি অত্যন্ত শক্ত মনের যে এত অল্পতেই কিছুটা নেশা কাটাতে পেরেছেন পদাতিক। আপনার সব্জী দেখে দারুন লোভ হচ্ছে । আমাদের এজমালী বাসায় এটা সম্ভব না ।
আপনি তো মনে হয় জানেন আমার কিছুটা প্রকৃতি প্রেম । তাঁরই নিদর্শন হিসেবে ছোটবেলায় বাসার সাথের পুকুর পাড়ে পিয়াজ গাছ বুনে আমার বৃক্ষ রোপন কর্মসুচী শুরু হয়েছিল । সেখানে আমার প্রথম কাজ ছিল প্রতিদিন একবার হলেও পেয়াজের ঝুটি ধরে তুলে শিকড় দেখা মানে গাছটা ঠিক মত হচ্ছে কি না দেখা :P
অনেক অনেক ভালোলাগা রইলো কিন্ত
+

২১ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:৫৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: ": পদাতিক আপনার ছাদ বাগানের সবুজ শ্যমলশোভায় চোখ জুড়িয়ে গেল যেন। লেখা লেখি শিকেয় তুলে অন্য কিছুতে জড়িয়ে না পরে একটি অনন্য শিল্পের সাথেই জড়িয়েছেন দেখে খুব ভালোলাগলো ।"- অসংখ্য ধন্যবাদ আপু আপনাকে।হ্যাঁ আপু অন্য কিছুতে জড়িয়ে পড়ার জো এসেছিল। সেই সুযোগটি কাজে লাগাতে না পেরে ছাদের কাজে মন দেই।আমি কিন্তু অকপটে স্বীকার করলাম। তবে হ্যাঁ কি সেই জো ভবিষ্যতে জানতে চাইলে শুধু আপনাকে বলতে পারি।মাহা ভাই কিম্বা ভূয়া ভাইকে নয়।এই যেমন দেখুন না ভূয়া ভাই কীভাবে আমার পুরানো পেশা নিয়ে টানাটানি করছেন। আপনার কাছে নালিশ দিলাম আপু।এমন চলতে থাকলে আমি কিন্তু আবার আমার পুরানো পেশায় ফিরে যাবো হুঁ।হেহেহে..

"আমি তো একসময় সামুর প্রতি এতটাই এডিক্টেড ছিলাম যে বাসায় আমার ভাই বোন বা কোন মেহমান আসলে আমার এক চোখ পরে থাকতো সামুর খোলা পেইজে ।'- এমন দুর্লভ সামু প্রেম সত্যিই নিন্দনীয় আপু।আমি হলে আপনাকে শাস্তি দিতে সবাইকে সামুর অ্যাকাউন্ট খুলে দিতাম।বোঝাতাম ভাই-বোনদের ইগনর করা কতটা ক্ষতিকর। আমার একটু একটু সামু প্রেম ছিল আপু। কয়েকবার পরকীয়া করতে গিয়ে গৃহকত্রীর হাতে ধরা পড়ে অপদস্ত হয়েছি। শেষবার আমাকে শাসিয়ে ভবিষ্যতে এমন কাজ করলে শুধু নিজে নয় ছেলেকেও সামু ব্লগে অ্যাকাউন্ট খুলে সারাক্ষণ ব্লগিং করেই ছাড়বে।আমি তো ভয়ে আর সামু প্রেমের কথা প্রকাশ্যে বলতে পারি না আপু। বুঝুন তাহলে কতটা চাপে আছি...


" আপনি অত্যন্ত শক্ত মনের যে এত অল্পতেই কিছুটা নেশা কাটাতে পেরেছেন পদাতিক।"- অসংখ্য ধন্যবাদ আপু আপনাকে আমাকে যথার্থই তুলে ধরার জন্য যে আমি প্রকৃতই একজন শক্ত মনের মানুষ। হ্যাঁ আমি এমনিতেই সাহসী। কিন্তু সব সাহস বাড়িতে এসে নিঃশেষ হয়ে যায়। কেন যে যায় মাথায় আসেনা। শুধু মনে হয় কোন যেন শাস্ত্রকার কবেই বলে গেছিলেন, পুরুষেরা বাল্যে মায়ের অধীনে, যৌবনে স্ত্রীর অধীনে এবং বার্ধক্যে পুত্রের অধীনে বন্দি।হেহেহে

আপনার পেঁয়াজ গাছের বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি অভিনব লাগলো। আগামীতেও এমন কর্মসূচির শ্রীবৃদ্ধি ঘটুক। পেঁয়াজের আসবাবপত্রের ব্যবসা করা যায় কিনা ভেবে দেখতে পারেন আপু।শুনেছি দারুণ পালিশ হয় পেঁয়াজে। আপনার পেঁয়াজ কথন নিয়ে শৈশবের সেই স্মৃতিময় দিনগুলোকে সামনে আনতেই পারেন আপু।

সবশেষে পোস্টটি যে ভালো লেগেছে জেনে আনন্দ পেলাম। অনেক ধন্যবাদ আপু আপনাকে।
পোস্টটিকে লাইক করাতে প্রেরণা পেলাম কৃতজ্ঞতা জানবেন।

নিরন্তর শুভেচ্ছা আপনাকে।

১৯| ২০ শে জুলাই, ২০২১ সকাল ১০:৩৯

ভুয়া মফিজ বলেছেন: ইসরায়েলীদের প্যাগাসাসীয় কর্মকান্ডের কারনে অনেক গুপ্তচরই ভাতে মরার উপক্রম হয়েছে। গুপ্তচররা এখন পেশা বদল করে বিভিন্ন কর্মকান্ডে লিপ্ত হচ্ছে। আপনি যে কৃষিকাজে জড়িত হবেন, এতে আর আশ্চর্য হওয়ার কি আছে? তবে গুপ্তচরদের একটা বিষয় আমার ভালো লাগে। সেটা হলো, ধৈর্য আর লেগে থাকার সক্ষমতা। ফলে, আপনি যে কৃষিকাজেও সফল হবেন, সেটা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। :P

শিরোনাম, লেখালেখি শিকেয় তুলে... না দিয়ে গুপ্তচরগিরি শিকেয় তুলে... দিলে বেশী প্রাসঙ্গিক হতো। :-B

১৮ নং ছবির ঘরখানাকে আমিও টাট্টিখানাই মনে করেছিলুম! স্যরি!!! =p~

২১ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:২৬

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: "ইসরায়েলীদের প্যাগাসাসীয় কর্মকান্ডের কারনে অনেক গুপ্তচরই ভাতে মরার উপক্রম হয়েছে। গুপ্তচররা এখন পেশা বদল করে বিভিন্ন কর্মকান্ডে লিপ্ত হচ্ছে।"-ঘোরতর আপত্তি আছে। গুপ্তচরদের প্রতি আরও একট মায়া দয়া দেখানো সমীচিন ছিল। ইসরাইলের কর্মকাণ্ড না লকডাউনে কাজ হারিয়ে পেশা পরিবর্তন বিষয়টি আরও মানবিক দৃষ্টিতে দেখে ব্লগিং ও ব্লগারকে বাঁচানো দরকার ছিল। কিন্তু তা না করায় মুই বড় দুক্কু পেলাম। এবার ঝামেলা হলে কিন্তু আমি দায়ী নই।

গুপ্তচরদের একটা বিষয় আমার ভালো লাগে। সেটা হলো, ধৈর্য আর লেগে থাকার সক্ষমতা। ফলে, আপনি যে কৃষিকাজেও সফল হবেন, সেটা আর......." কারো ক্ষেত্রে ....
কারো দিকে এভাবে নজর দেওয়া কি ঠিক হচ্ছে ? করোনায় এমনিতেই আন্তর্জাতিক পরিষেবা সব বন্ধ। কোনক্রমে চরবৃত্তিটা করে দুমুঠো ভাতের ব্যবস্থা করছিলাম। কিন্তু এভাবে নজর দিলে কাজটা চলে গেলে ভয়ঙ্কর বিপদে পড়ে যাব। কইয়ে দিলুম হু।

আপনার শিরোনামটি বেশ ভালো লেগেছে।একটু আগে বললে ওটাকেই শিরোনাম করতাম। ভবিষ্যতে আগাভাগেই বলে দিবেন। দুইজনে মিল্যা পোস্ট দিমু। শিরোনাম আপনার বিষয়বস্তু আমার।
১৮ নং‌ ছবির ঘরখানাকে টাট্টিখানি মনে হয়েছে ক্ষতিনাই।খামোখাই ভয় পাচ্ছিলাম।এখন বুঝতে পারছি ভদ্রলোক ব্লগিং করেন না। কাজেই জোরে জোরে বললেও ক্ষতি নেই।

পোস্টটিতে like'করাতে প্রেরণা পেলাম কৃতজ্ঞতা জানবেন।




২০| ২১ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৩:৩৩

আরোগ্য বলেছেন: আসসালামু আলাইকুম ভাইটি ঈদের অনেক শুভেচ্ছা রইলো। সবজিগুলো কি হোম ডেলিভারি দেয়া যাবে? :P

২১ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৩০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: ওয়ালাইকুম আসসালাম। আশাকরি এখন সমস্ত রকম সমস্যা কাটিয়ে উঠেছো। নিশ্চয়ই সবজি তোমার জন্য ঢাকা শহরে যেতেও পিছপা নয়।
নিরন্তর শুভকামনা রইল।

২১| ২৩ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১:৪৬

সাহাদাত উদরাজী বলেছেন: এতো দেখি এলাহি কারবার, ছাদ না কৃষিক্ষেত।
দারুন দেখেই মন ভরে গেল। চলুক।

২৩ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:৩৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: হেহেহে....তা যা বলেছেন। ছাদের উপর একচিলতে কৃষিক্ষেত। কিছুটা অবসরে চেষ্টা করেছি।ফলনে খুশি। কমেন্টের জন্য ধন্যবাদ ভাই আপনাকে।
শুভেচ্ছা জানবেন।

২২| ২৪ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১:০১

মনিরা সুলতানা বলেছেন: লেখালিখি শিকেয় উঠলেও আপনি সার্থক বাগানী !!
করোনা কালে খুব জরুরী ছিলো।

২৪ শে জুলাই, ২০২১ ভোর ৬:৫২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: শুভ সকাল আপু।হেহে হে..... ঠিকই বলেছেন আপু। খুবই ভয়াবহ দিন কেটেছে। তবে কোনো ধারণা না থাকলেও ফলনে আমি খুশি। কাজেই পক্কা চাষা হিসেবে না হলেও শিক্ষানবিস চাষা হিসেবে ভাবতে ভালো লাগছে।হেহেহে...
পোস্টে লাইক দিয়ে চাষাবাদকে অনুপ্রেরণা দেওয়ায় কৃতজ্ঞতা জানাই।

ভালো থাকবেন আপু সবসময়।

২৩| ২৪ শে জুলাই, ২০২১ সকাল ১০:৪১

মেহবুবা বলেছেন: যদি সম্ভব হয় সছনে ডাল রুয়ে দিন উত্তর পাশে, শাক খাওয়া হবে আপাততঃ ।

২৪ শে জুলাই, ২০২১ সন্ধ্যা ৬:১৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আবার মন্তব্যে এসে চমৎকার একটি বিষয় উল্লেখ করাতে প্রীত হলাম। কৃতজ্ঞতা আপু আপনাকে। জ্বী আপু আমি ছয়টি সজিনার বীজ নিয়ে এসেছি। জার্মিনেশন করে গাছ করার ইচ্ছা আছে। দোকান থেকে বলছে দু'বছরের মধ্যে ফল আসবে। এখন দেখি কতদিন লাগে। সজিনা গাছ বড় হলে আপনাকে অবশ্যই ছবি দেখাবো।
ভালো থাকবেন আপু সব সময়- এই দোয়াই করি।

২৪| ২৪ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:২৯

নজসু বলেছেন:



একেবারে টাটকা।
কেমন আছেন প্রিয় ভাই?

২৪ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:১৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: উপরওয়ালার ইচ্ছায় ভালো আছি। আশাকরি আপনিও ভালো আছেন। হ্যাঁ ভাই একটু চাষাবাদ করার চেষ্টা করেছি। ফলনে খুশি। আসুন এপারেে, ছাদের সবজি দিয়েই আপনাকে স্বাগতম জানাবো।
পোস্ট লাইক দিয়ে চাষাবাদে অনুপ্রাণিত করার জন্য কৃতজ্ঞতা জানাই।

শুভেচ্ছা আপনাকে।

২৫| ২৬ শে জুলাই, ২০২১ দুপুর ১২:৩৯

চাঁদগাজী বলেছেন:


আপনি ছবি পোষ্ট দেন, সেটাই ভালো হবে।

২৬ শে জুলাই, ২০২১ বিকাল ৫:৩৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আমাদের প্রত্যেকেরই একটা পরিমিতবোধ আছে। সেই বোধ থেকেই আমরা স্থির করি আমাদের কমেন্ট যেন অন্যের স্বাধীকারে হস্তক্ষেপ না হয়। আপনার সেই মাত্রাজ্ঞান শূন্য।উপযাযক হয়ে কাউকে পরামর্শ দিতে এসে তা আরেকবার প্রমাণ করলেন। বারংবার মডারেশন কর্তৃক শাস্তি ভোগ করছেন। তবুও সংশোধনের চেষ্টা করছেন না। ব্লগের পক্ষে দুর্ভাগ্যের...

আপনার কোনো একটা পোস্টে শিরোনামে হুমায়ূন আহমেদ ঠিক করতে বলায় আপনি আমার কমেন্ট পোস্টের মানহানির কথা বলেছিলেন। খুব ভালো কথা। আমার আগমন আপনার কাছে হতেই পারে এমন অনাকাঙ্ক্ষিত।তাই এক্ষেত্রে আমারও বলার যে কমেন্টের নামে অহেতুক ক্যাচাল করে ব্লগের পরিবেশকে বিষিয়ে তুলে নিজে যত নীচে পারুন নামুন। কিন্তু আমার পোস্টে আর আসবেন না বা কোনো লাইক দিয়ে পোস্টটিকে বারোটা বাজিয়ে দিবেন না। আমার গায়ের চামড়া খুবই মোটা। যদিও আপনি এসব কিছুর ধার ধারবেন বলে মনে হয় না। কিন্তু তবুও বলছি যদি আসেন তাহলে জানবো আপনারটা আমার চেয়ে ঢেড় মোটা।




২৬| ২৬ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:৩৩

মুক্তা নীল বলেছেন:

প্রিয় দাদা ,
এত সবুজ সবুজ সবজি দেখে মনটা অন্যরকম ভালো হয়ে
যায় । নিজের হাতের যেকোনো সৃষ্টির আনন্দই আলাদা ।
কথায় আছে কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে ..
আপনার পরিশ্রম সার্থক ।
অনেক ভালো থাকুন দাদা সবাইকে নিয়ে ।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:৫২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ছোট বোনের কমেন্ট পেয়ে খুশি হয়েছি। অসংখ্য ধন্যবাদ বোনকে।

"এত সবুজ সবুজ সবজি দেখে মনটা অন্যরকম ভালো হয়ে
যায় । নিজের হাতের যেকোনো সৃষ্টির আনন্দই আলাদা ।
কথায় আছে কষ্ট করলে কেষ্ট মেলে ..
আপনার পরিশ্রম সার্থক ।" - হেহে হে.... একেবারে যথার্থই বলেছেন। পরিশ্রম সার্থক আরকি। হ্যাঁ ফলনে আমি খুশি। আগামীতে আরও কিছু নুতন ফলনের আশায় আছি। আবারো ধন্যবাদ বোনকে।

বোনের পরিবারের উদ্দেশ্যেও রইলো শুভেচ্ছা ।

২৭| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৩:৫৯

সোহানী বলেছেন: আপনার বাগান দেখে হিংসিত :P । আমার বাগান এর অবস্থা এবার খুব ভালো না। তারপরও কিছু কিছু উৎপাদন চলছে।

তবে নিজের হাতে বাগান করার যে আনন্দ তা বলে বোঝানো যাবে না। একটু একটু করে ফসল ঘরে তোলা দারুন একটা ভালোলাগার কাজ। আর তাই আমারো অন্য কাজে সময় কম পড়ছে।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:১০

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপনার বাগান দেখে হিংসিত :P । " না আপু হিংসে করবেন না। শুধু মালি হিসেবে আপনার বাসায় গাছের পরিচর্যা করতে দিয়েন তাতেই আশাকরি অমন শাক-সবজি ফলিয়ে দেওয়ার চেষ্টা করবো।আর হ্যাঁ ব্লগিং করার সুযোগ না দিলে চলবে নিকো।হেহেহে...

"আমার বাগান এর অবস্থা এবার খুব ভালো না। তারপরও কিছু কিছু উৎপাদন চলছে।"- একটু ধৈর্য ধরুন আপু।সাথে ঠিক মতো সার বা ঔষধ দিলে সব কিছু ঠিক হয়ে যাবে।

"তবে নিজের হাতে বাগান করার যে আনন্দ তা বলে বোঝানো যাবে না। একটু একটু করে ফসল ঘরে তোলা দারুন একটা ভালোলাগার কাজ। আর তাই আমারো অন্য কাজে সময় কম পড়ছে।"-হ্যাঁ আপু ঠিকই বলেছেন। নিজের হাতের তৈরি এসবের মজাই আলাদা। ভীষণ ভালো লাগে সামনে এসব দেখতে।আর এসব করতে গিয়ে ব্লগিং করছি শুধু কমেন্টে। নিজের পোস্ট দেওয়ার সময় আর হচ্ছে না।


ভালো থাকবেন আপু সবসময়- এই দোয়া করি।


২৮| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৩১

করুণাধারা বলেছেন: মাঝে মাঝে প্রবাদ বদলানো ভালো। লেখালেখি বন্ধ করে যা করছেন তা দেখে চোখ জুড়িয়ে গেল! চমৎকার বাগান করেছেন। শুধু কি সবজিই, নাকি ফুল- ফলও আছে?

আশাকরি নিয়মিত ভাবে বাগানের আপডেট দেবেন। দুই নাম্বার ছবিতে কালো রঙের এটা কী বুঝতে পারলাম না।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৪২

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: আপু আপনার শরীর কেমন আছে? অনেকদিন না পেয়ে চিন্তায় ছিলাম।যাক অবশেষে দেখা পেয়ে নিশ্চিন্ত হলাম।

"মাঝে মাঝে প্রবাদ বদলানো ভালো। লেখালেখি বন্ধ করে যা করছেন তা দেখে চোখ জুড়িয়ে গেল! চমৎকার বাগান করেছেন।"- এমন আন্তরিক মন্তব্যে প্রীত হলাম। কৃতজ্ঞতা আপু আপনাকে।।

শুধু কি সবজিই, নাকি ফুল- ফলও আছে?- না আপু ফুল ফল করিনি।সব সবজিই করেছি। তবে শীতকালে কিছু টবের ব্যবস্থা রেখেছি।আপনি আপডেট দেওয়ার কথা বলেছেন যখন তখন অবশ্যই দিবো। দুই নম্বরের ছবিটা কুমড়োর। এখন গাছে চারটি কুমড়ো আছে।
পোস্টে লাইক করাতে প্রেরণা পেলাম কৃতজ্ঞতা জানবেন।
শুভেচ্ছা নিয়েন আপু।



২৯| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৫৯

সোনালি কাবিন বলেছেন: মন জুড়ানো পোস্ট।

একজনের নস্ট মানসিকতার প্রতিউত্তরে যা বলেছেন যেন আসলে হেসে হেসে খুন করেছেন

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:০৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: "মন জুড়ানো পোস্ট।"- অসংখ্য ধন্যবাদ ভাই আপনাকে। আশাকরি আগামীতেও এভাবে পাশে পাবো।

কমেন্টের পরবর্তী অংশ নিয়ে কিছু বলতে চাইছি না।


ভালো থাকবেন সবসময়।

৩০| ২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:০১

সোনালি কাবিন বলেছেন: সেই প্রতি উত্তরে বিয়াপক পিলাচ।

২৭ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১১:১১

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: ধন্যবাদ আপনাকে।

৩১| ৩১ শে জুলাই, ২০২১ রাত ৯:২৬

খায়রুল আহসান বলেছেন: পরিবারের সদস্যদেরকে সাথে নিয়ে ছাদ-বাগানে মনোনিবেশ করেছেন, এটি একটি চমৎকার কাজ করেছেন। প্রকল্পের সাফল্য ইতোমধ্যেই দেখতে পাচ্ছি, অভিনন্দন!

ঝিঙে এবং ঝিঙেফুল, লাউ এবং লাউফুল, গোলবেগুন, কুমড়ো, ইত্যাদির ছবি চোখ জুড়িয়ে দিলো!

কলমের ছিপি খুলুন, লেখায় আবার নিয়মিত ফিরে আসুন। তবে, সময় ভাগ করে ছাদবাগানেও কিছুটা সময় দিন।

পোস্টে একুশতম ভাললাগা। + +

৩১ শে জুলাই, ২০২১ রাত ১০:৪৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: 'পরিবারের সদস্যদেরকে সাথে নিয়ে ছাদ-বাগানে মনোনিবেশ করেছেন, এটি একটি চমৎকার কাজ করেছেন। প্রকল্পের সাফল্য ইতোমধ্যেই দেখতে পাচ্ছি, অভিনন্দন!"- ছাদবাগানের পোস্টে আপনার আগমনে আনন্দ পেলাম। অসংখ্য ধন্যবাদ স্যার আপনাকে। করোনার দ্বিতীয় ঢেউএ আমাদের অনেকটা সময় এখানেই কাটতো। বাগানের সবজি কতটা খেলাম তার চেয়ে বেশি উপকার হয়েছিল আমাদের মনের বিষণ্ণতা দূর করতে। এহেন কঠিন সময়ে যথেষ্ট সবজি পেয়েছি স্যার। কাজেই এই সাফল্যে আপনার অভিনন্দন আনন্দের সাথে গ্রহণ করলাম। অসংখ্য ধন্যবাদ আপনাকে।
ঝিঙে এবং ঝিঙেফুল, লাউ এবং লাউফুল, গোলবেগুন, কুমড়ো, ইত্যাদির ছবি চোখ জুড়িয়ে দিলো!"-বাস্তবে নিজের হাতের ফসল ফলানোর যে আনন্দ তা বলে বোঝাতে পারবো না। অসম্ভব ভালো লাগে চোখের সামনে এমন ফসল দেখতে।

"কলমের ছিপি খুলুন, লেখায় আবার নিয়মিত ফিরে আসুন। তবে, সময় ভাগ করে ছাদবাগানেও কিছুটা সময় দিন।"- ঠিকই বলেছেন আপনি। আমি ইতিমধ্যে ব্লগে যথেষ্ট সময় দিচ্ছি।আর এর ফলে বাগানের দেখভালের সময় গেছে কমে। আসলে দুদিকে ভারসাম্য বজায় রেখে চলতে একটু ভারসাম্যহীন হয়ে গেছি। চেষ্টায় আছি স্বাভাবিক হতে।

পোস্টে লাইক করাতে প্রেরণা পেলাম কৃতজ্ঞতা জানবেন।

বিনম্র শ্রদ্ধা ও শুভেচ্ছা স্যার আপনাকে।


৩২| ০৯ ই আগস্ট, ২০২১ বিকাল ৪:২৪

দেয়ালিকা বিপাশা বলেছেন: পদাতিক চৌধুরী,




বাপরে!! এদেখি বিশাল কান্ড !! আপনার প্রশংসা করতেই হয়।

আপনার ব্লগ ঘুরে দেখলাম আপনি ধারাবাহিকও লেখেন। যদিও পড়া হয়নি কিন্তু ইনশাল্লাহ পড়ে নেব শীঘ্রই। অসাধারণ প্রতিভা আপনার! আপনার মত একজন প্রতিভাবান ব্যক্তিত্ব আমার ব্লগ খুঁজে খুঁজে পড়ে মন্তব্য করাতে আমি আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞ। বেশ অনুপ্রেরণা পেলাম। আশা করি আগামীতেও সাথে থাকবেন।

আপনার জন্য অনেক শুভকামনা।

- দেয়ালিকা বিপাশা

০৯ ই আগস্ট, ২০২১ রাত ৯:৫৫

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: এইরে! আপনি এতো প্রশংসা করছেন অথচ এতোটা পাওয়ার যোগ্য কিন্তু আমি নই।ব্লগে অনেক গুণীজন আছেন। তাদের লেখালেখি পড়লে বুঝতে পারবেন সামু ব্লগ রত্নে পূর্ণ।

"আপনার ব্লগ ঘুরে দেখলাম আপনি ধারাবাহিকও লেখেন। যদিও পড়া হয়নি কিন্তু ইনশাল্লাহ পড়ে নেব শীঘ্রই। অসাধারণ প্রতিভা আপনার! "-কথা সত্যি যে সামান্য লেখালেখি করি।আমার একটি উপন্যাস আছে মরীচিকা নামে।একটু পিছিয়ে গেলে পেয়ে যাবেন। অনেকগুলো পর্বে উপস্থাপিত।সময় পাবেন কিনা জানিনা। তবে যদি সম্ভব হয় পড়ার অনুরোধ রইল। সঙ্গে চলমান এখটি সিরিজ চলছে 'ফ্রম সাতক্ষীরা টু বেলগাছিয়া' নামে। বেলগাছিয়ায় সিরিজেও আপনার আমন্ত্রণ রইলো। মাঝেমাঝে দু- একটি ছোট গল্প পোষ্ট করি।এই যেমন 'তমোময়ী' গল্পটি চলছে।এটাও অনেক বড়। কিন্তু সাতক্ষীরা বেলগাছিয়া সিরিজের জন্য আপাতত ছোট গল্প আকারে পরিবেশন করছি। 'সাতক্ষীরা টু বড়গাছিয়া' শেষ হলে তখন তমোময়ীর পূর্ণাঙ্গ পর্বগুলোকে নামানোর ইচ্ছা আছে। আর এসব লেখালেখি নেহাতই হাতুড়ে লেখারই সমতুল।আপনি এর মধ্যে অনর্থক প্রতিভা খুঁজতে গেলে ব্লগের প্রকৃত
প্রতিভাবানদের জনারণ্যে হারিয়ে যাবেন।দিন শেষে আমরা সকলেই সহব্লগার।আর এই কারনেই আপনাদের পোস্টে যাওয়া। উদ্দেশ্য নুতনদেরকেও ব্লগিং মিথোস্ক্রিয়ায় শামিল করানো। আপনার ব্লগিং যাত্রা আনন্দময় হয়ে উঠুক কামনা করি।

শুভেচ্ছার জন্য ধন্যবাদ। আপনার জন্যও রইলো নিরন্তর শুভকামনা।


আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.