নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

লেখালেখি একটা নেশার মত। বিভিন্ন ঘাট পেরিয়ে কর্পোরেট জগতে থিতু হওয়ার পরও তাই লিখে যাই যা মনে আসে তাই। পদ্মার ওপাড়ের মানুষ হওয়ায় জন্মগতভাবেই স্মৃতিকাতর। এ আমার দুর্বলতা নয়, অহংকার

পদ্ম পুকুর

একজন শভেনিস্ট ও স্মৃতিকাতর মানুষ

পদ্ম পুকুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

সাদা পায়রারা চলে যায়

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল ১১:০৬


লেখার সাথে যুক্ত হবো, এরকম কোন স্বপ্ন-চিন্তা ছিলোনা কোনওদিন। না আমার-না আমার বাবা-মায়ের। তবে আকারে ইঙ্গিতে আব্বার সুপ্ত একটা ইচ্ছের কথা জানা গিয়েছিলো- তাঁর ছেলে বক্তব্য দেবে আর মাঠভরা মানুষ, অডিয়েন্সজোড়া শ্রোতা তা মুগ্ধ হয়ে শুনবে। বিভিন্ন সামাজিক কাজে নেতৃত্ব দেবে।

সেটাতো হয়ই-নি, আমি বরং স্বস্তি পাই পর্দার পেছনে থেকে যে কাজগুলো করা যায় নিভৃতে, সেগুলোতে। সে ধারাতেই কিভাবে কিভাবে যেনো লেখাটাই ভালো লাগতে থাকে। যদ্দুর মনে পড়ে, সৈয়দ আবুল মকসুদের সহজিয়া কড়চা আমাকে গদ্য লেখায় প্রবলভাবে আকৃষ্ট করেছে। চলমান সামাজিক কঠিন বিষয় নিয়ে গদ্য লেখায়ও যে উইট তৈরী করা যায় নিরবে; সহজিয়া কড়চা পড়ে আমার সবসময় এটাই মনে পড়তো।

হুমায়ূন আহমেদ একটা বই উৎসর্গ করেছিলেন প্রখ্যাত আইনজীবি গাজী শামসুর রহমানকে। কোন বইটা আমার মনে পড়ছে না, কিন্তু বইয়ের উৎসর্গপত্রটা মনে আছে হুমায়ূনীয় বৈশিষ্ট্যের কারণে। হুমায়ূন লিখেছিলেন- গাজী শামসুর রহমান, যিনি নিজে চোখ বুজে থাকেন কিন্তু সবাইকে বাধ্য করেন চোখ খোলা রাখতে। বিষয়টা হলো- আইনজীবি হিসেবে গাজী শামসুর রহমান অত্যন্ত প্রভাবশালী ও কার্যকর ছিলেন। আদালতে তাঁর তীক্ষ্ণধার যুক্তির সামনে প্রতিপক্ষের আইনজীবি অসহায় হয়ে যেতেন। গাজী শামসুর রহমান যখন হেয়ারিংয়ে এসব যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করতেন, তখন অভ্যাসবশত চোখ কিছুটা বন্ধ করে থাকতেন। কিন্তু তাঁর কথার ওজন এবং গুরুত্বের কারণে বাকি সবাই উদগ্রীব হয়ে তাঁর কথা শুনতে বাধ্য হতেন। চোখ বন্ধ করার চিন্তাও করতে পারতেন না।

সহজিয়া কড়চার সৈয়দ আবুল মকসুদকে পড়ে এবং তাঁর ব্যক্তিগত জীবনাচরণের সাথে পরিচিত হয়ে আমার আইনজীবি গাজী শামসুর রহমান সম্পর্কে হুমায়ূন এর ওই উৎসর্গপত্রটাই মনে পড়লো। ইনিও সর্বাঙ্গে সাদা কাপড় জড়িয়ে মৌনঋষির ভূমিকায় অতি সাধারণ জীবনযাপন করেছেন, অথচ সমাজের জটিলতম বিষয়গুলোকে এমন সহজ, ধীরস্থির ও রসাত্মকভাবে লিখে গেছেন যে পাঠক তা পড়ে কোনওভাবেই মৌন থাকার সুযোগ পায়নি। বাংলাদেশের সমুদ্রসীমা জয়ের পর অতি উচ্ছাসের সময়ে তিনি একটা কলামে লিখেছিলেন- ‘মৎসপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ’- যেটাকে অসাধারণ বললেও কম বলা হয়।

কদিন আগেই ব্লগার ভুয়া মফিজ স্যাটায়ার নিয়ে একটা পোস্টে উইটের সাথে কনটেক্সট বোঝার গুরুত্ব নিয়ে লিখেছিলেন। আমার মনে হয়- এই যায়গাটায় সৈয়দ আবুল মকসুদ অপ্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন। যেকোনো লেখায় সমসাময়িকতার সাথে তিনি ইতিহাস, সমাজ, রাজনীতি ও সংস্কৃতিকে নিজস্ব ঢংয়ে এমনভাবে মেশাতেন, যে কনটেক্সট-টা ধরতে পারার সাথে সাথে ভুয়া মফিজ এর লেখা অনুযায়ী পাঠকের কাছে তা ‘অনন্য’ হয়ে ধরা পড়তো।

সহজিয়া কড়চা পড়লেই আমার সক্রেটিসের কথা মনে পড়তো; চোখে একটা ছবি ভাসতো- একজন মুনী ধ্যানমগ্ন হয়ে গল্প বলে যাচ্ছেন আর তাঁর সামনে বসা ভক্তবৃন্দ তন্ময় হয়ে সে গল্প শুনছে।

আজ হঠাৎই সে ছবিটা ভেঙে গেল। সকালে প্রথম আলোতে দেখি, সৈয়দ আবুল মকসুদ গত হয়েছেন। ব্যক্তিগতভাবে এই মানুষটার সাথে আমার কোনও সংশ্লেষ নেই। এক দুবার সামনে দেখেছি হয়তো। কিন্তু তাঁর লেখার মাধ্যমে আমি অনুপ্রাণিত ছিলাম, সবসময় চাইতাম তাঁর মত লিখতে। আমার অনেক লেখাতেই তাঁর ছাঁয়া আছে।

করোনা আমাদের কাছ থেকে অনেককেই কেঁড়ে নিয়ে গেলো। প্রকৃতির নিয়মে সবাইকেই যেতে হবে। আবার প্রকৃতিও নিজ নিয়মেই শুন্যস্থান পূরণ করে ফেলবে। তবুও কিছু কিছু স্থান শুন্যই থেকে যাবে ইতিহাস হয়ে।

অফিসে-বাসায় যুগপৎ ব্যস্ততা আমাকে ব্লগ থেকে দূরে রেখেছে। কিন্তু সৈয়দ আবুল মকসুদ এর মৃত্যু আমাকে আবেগাক্রান্ত করে ফেলেছে। হয়তো বিভিন্ন মতের ক্ষেত্রে আমি তাঁর সাথে একমত নই, তবুও চিন্তাশীল এই মানুষটি আমার অতি পছন্দের একজন লেখক ছিলেন।

ঋষি সৈয়দ আবুল মকসুদ, শান্তিতে থাকুন।


ফটোগ্রাফার অনির্বাণ অনির তোলা ছবিটা নেয়া হয়েছে উইকি থেকে।

মন্তব্য ৩৪ টি রেটিং +৯/-০

মন্তব্য (৩৪) মন্তব্য লিখুন

১| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল ১১:১৯

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: তাকে নিয়ে বেশ নাটক ও দেখেছি যাক আল্লাহ তাকে জান্নাত বাসি করুণ আমিন

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল ১১:৪৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: কি রকম?

২| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:০৪

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: গত সালে জানি তাকে খুজে পাওয়া যাচ্ছি না কয়কে দিন পাওয়া গেলো

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১৯

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আপনি বোধহয় ফরহাদ মজহার এর সাথে গুলিয়ে ফেলেছেন। এনিওয়ে, ধন্যবাদ মন্তব্যের জন্য।

৩| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১২

রাজীব নুর বলেছেন: বাংলাদেশের সাহিত্যের লোকজন তসলিমা নাসরিনের নাম মুখে আনেন না। অথচ তিনি মন থেকে চেয়েছেন দেশের মেয়ে দেশে ফিরে আসুক। মন ভরে লিখুক।

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:২৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: একজন শিল্পী অপর সাহিত্যিকের জন্য মমত্ব রাখবেন, এটাই স্বাভাবিক। ব্যক্তিগতভাবে আমি তসলিমা নাসরিনকে বা তাঁর লেখার কনটেন্টকে অপছন্দ করার দলে, কিন্তু আমি তার পরদেশী হয়ে থাকার পক্ষে নই । ধন্যবাদ রাজীব ভাই।

৪| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৪৮

নীল আকাশ বলেছেন: অনবদ্য সত্যকথনে উনি দারুন ছিলেন!

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৫৩

পদ্ম পুকুর বলেছেন: তাঁর এই বিষয়টাই আমার ভালো লাগে স্যার।

৫| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:২৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: খুব সুন্দর লেখা। ইশ আমি যদি এমন গুছিয়ে লিখতে পারতাম।

উনাকে আল্লাহ তাআলা বেহেশত নসীব করুন

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:০৯

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আপা, মনটা খুবই ব্যথিত।

৬| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ২:৪৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: সাদা পায়রার এখন আকাশে বিচরণ । শ্রদ্ধা ভালোবাসা আজীবন

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:১০

পদ্ম পুকুর বলেছেন: সেটাই, সুন্দর বলেছেন। পায়রাদের এখন আর পৃথিবীতে ঠিক মানাচ্ছে না।

৭| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:১৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: আল্লাহ তাআলা আপনার মনটাকে শান্ত করে দিন

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:৫৫

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আমিন।

৮| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:৪৮

মোতাব্বির কাগু বলেছেন: আচ্ছা উনি মুস্লিম হয়েও মনসা পুজা করতেন এই ব্যপারটা কেন??

২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ বিকাল ৩:৫৫

পদ্ম পুকুর বলেছেন: এখানে তাঁর ধর্মীয় দর্শন নিয়ে আলোচনা হয়নি। শুধু লেখার কথা বলছি। এর বাইরে আমি খুব যে বেশি জানি তাঁকে তাও নয়। একদম শেষ প্যারায় আমি বলেছি যে 'হয়তো বিভিন্ন মতের ক্ষেত্রে আমি তাঁর সাথে একমত নই', সে হিসেবে তাঁর মনসা পুজার বিষয়ে আমি মন্তব্যর দায়িত্ব আমার নয়। উপর্যুপরি, আমি কথাটা আপনার কাছেই প্রথম শুনলাম।

বাই দ্য ওয়ে, দীর্ঘকাল পরে আপনাকে দেখলাম, বেশ বিস্মিত!

৯| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ৯:১২

ওমেরা বলেছেন: মানুষ মরণশীল, সবাইকেই চলে হয়। কারো কারো চলে যাওয়া আমাদের মনে কষ্ট হয় বেশী।
আমি উনাকে খুব জানিনা কিন্ত আপনার লিখা পড়ে আপনার মনের কষ্টটা বুঝতে পারলাম।
অল্লাহ উনার ভুল ত্রুটি গুলো ক্ষমা করুন।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল ১১:১৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: বাঙালির সহজাত বৈশিষ্ট্য ধারণ করে আমিও আবেগপ্রবণ। এই আবেগের কাছে হার মেনে সব প্রফেশনালই শেষ পর্যন্ত বাঙালির ব্যক্তিগত পরিসরে ভালোলাগা-না লাগায় এসে ঠেকে। সৈয়দ আবুল মকসুদ এর লেখা কলাম বা প্রবন্ধগুলোতে এক ধরনের শীতলতা-স্নিগ্ধতা আছে। হতে পারে ওই পারসেপশন তৈরী হয় লেখার পাশাপাশি তাঁর চলন-বলন বেশভূষার পরিচয়ে।

এ সব মিলিয়েই তিনিও একদা আমার ব্যক্তিগত পরিসরে এসে গিয়েছেন। এজন্যই খারাপ লাগছে।

১০| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৪৯

করুণাধারা বলেছেন: সৈয়দ আবুল মকসুদের লেখা খুব আগ্রহ নিয়ে পড়তাম, তাই তার মৃত্যু সংবাদ শুনে দুঃখ পেয়েছি। উনি টিকা নিয়েছিলেন, মৃত্যুর আগে যে শ্বাসকষ্ট হয়েছিল তা কেন বুঝতে পারছি না।

আল্লাহ পরজীবনে উনাকে শান্তিতে রাখুন।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১২

পদ্ম পুকুর বলেছেন: আল্লাহ পরজীবনে উনাকে শান্তিতে রাখুন।

১১| ২৪ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১০:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: সৈয়দ আবুল মকসুদ একজন সহজ সরল ভালো মানুষ ছিলেন। লোভ হীন। নিরপেক্ষ মানুষ।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১৩

পদ্ম পুকুর বলেছেন: উনার প্রকাশ সে ধারণাই দেয়।

১২| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১২:০৫

ঢুকিচেপা বলেছেন: চমৎকার উপস্থাপনা।
ঋষি সৈয়দ আবুল মকসুদ, শান্তিতে থাকুন।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১৩

পদ্ম পুকুর বলেছেন: ধন্যবাদ স্যার।

১৩| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১:০৮

মা.হাসান বলেছেন: বড় সাদাসিদা মানুষ ছিলেন, জ্ঞানের পরিধি বিশাল ছিলো। খুব আগ্রহ নিয়ে ওনার লেখা পড়তাম। ওনার আত্মার শান্তি কামনা করি। ওনাকে নিয়ে লেখার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:১৫

পদ্ম পুকুর বলেছেন: নেওয়াজ আলি বলেছেন: সাদা পায়রার এখন আকাশে বিচরণ । শ্রদ্ধা ভালোবাসা আজীবন । সাদাসিদে মানুষদের এখন আর যায়গা নেই এ জগতে।

১৪| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল ১০:৩০

জুন বলেছেন: অনেক ভালোলোক চলে গেল গত দুটি বছরে । নিজের অনেক আত্মীয়কেও হারিয়েছি । জানিনা ভবিষ্যতে কি আছে সবার ।

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:২৬

পদ্ম পুকুর বলেছেন: মানুষ বড়ই বিচিত্র প্রাণী আপা। এই যে এতগুলো নামকরা মানুষ মারা গেলো স্বল্পতম সময়ে। আমরা হয়তো হোঁচট খেয়েছি, থমকে কি গিয়েছি? এভাবেই পৃথিবী চলবে, ভবিষ্যৎ এগুবে। এইতো।

১৫| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ সকাল ১০:৫৫

সোহানী বলেছেন: আমিও উনার লেখার ভক্ত ছিলাম। দেশে থাকতে নিয়মিত পড়তাম। কিন্তু আমার ব্যাথাটা অন্যখানে। সেটা হলো উনাদের রিপ্লেসমেন্ট এখনো তৈরী হয়নি। বা কবে হবে জানি না। যে অস্থির সময় পার করছি সেখানথেকে একজন সৈয়দ আবুল মকসুদ তৈরী হতে কত সময় লাগবে জানি না।

আইনজীবি গাজি শামসুর রামান এর আইন আদালত অনুষ্ঠানের "দবির" তখন ছিল সবার মুখে মুখে। কি অসাধারন একটা অনুষ্ঠান তিনি চালাতেন।

আপনার লেখার হাত বরাবরেই চমৎকার। সহজ ও সাবলিল।

অনেকদিন আপনাকে দেখি না!

২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১২:২৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: হঠাৎ হঠাৎ অফিস-বাসায় ব্যস্ততার তুফানমেইল চলে আসে। সাম্প্রতিক অতিতের বিভিন্ন অভিজ্ঞতার কারণে অফিসের বাইরেও কিছু ইনডিভিজুয়াল এনটিটি দাঁড়া করানোর চেষ্টা করছি, সেদিকেও মনোযোগ দিতে হচ্ছে। এসব কারণেই ব্যস্ত।

ভালো থাকবেন।

১৬| ২৫ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ দুপুর ১:৩০

ফয়সাল রকি বলেছেন: করোনাকালীন সময়ে আমরা অনেককে হারালাম।

১৭| ২৬ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ৩:০৪

কবিতা ক্থ্য বলেছেন: সৈয়দ আবুল মকসুদ সম্পর্কর অনেক কিছু জানতাম না।
আপনার পোষ্টের জন্য ধন্যবাদ।

১৮| ২৮ শে ফেব্রুয়ারি, ২০২১ রাত ১:৪১

মলাসইলমুইনা বলেছেন: বাংলাদেশের আকাশ থেকে একটা তারা কমল --একটু আধার বাড়লো ।

১৯| ২৩ শে মার্চ, ২০২১ দুপুর ২:৩৯

মনিরা সুলতানা বলেছেন: শদ্ধা ও ভালোবাসা!

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.