নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সবার অবগতির জন্য জানাচ্ছি যে আমি কোন ব্লগার নই মন চায় তাই লিখি তথ্য-উপাত্ত সবার সাথে শেয়ার করি ।ধন্যবাদ

তানজীর আহমেদ সিয়াম

তানজীর আহমেদ সিয়াম

তানজীর আহমেদ সিয়াম › বিস্তারিত পোস্টঃ

কুড়ানো ( পর্ব ২৫ ) কেকাপ্পার ফান

০৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:০৩

কেকাপ্পার রান্নার অনুষ্ঠানের সবচেয়ে ভয়াবহ দিক হচ্ছে, উনি গেস্টকে একটা কথাও বলার সুযোগ দেন না।যেমনঃ
কেকা ম্যাডামঃ বিশাখা,তুমি তো আজ আমাদেরকে চিংড়িমাছের পায়েস রান্না করে দেখাবে, তাই না?
বিশাখাঃইয়ে মানে....জি....জি....
কেকাঃতুমি তো বলেছিলে তোমার বাসার সবাই এই রেসিপিটা খুব পছন্দ করে।
বিশাখাঃ হ্যাঁ,আমার আব্বু তো প্রতিদিন.....
কেকাঃতাহলে রান্নাটা শুরু করে দাও।তুমি তো বলেছিলে প্রথমে দুধ ঘন করে জাল দিতে হবে।
বিশাখাঃ জি।তারপর চিংড়ি পেস্ট করে....
কেকাঃতুমি তো বলেছিলে চিংড়ি পেস্ট ঘন দুধে দিয়ে চিনি দিয়ে নাড়তে হবে।
বিশাখাঃহ্যাঁ।তারপর নামিয়ে...
কেকাঃতুমি তো বলেছিলে তারপর এটা নামিয়ে ঠান্ডা করে পেস্তা বাদাম ছড়িয়ে দেব পায়েসের ওপর।তুমি তো এভাবেই ডেকোরেশন করো তাই না!!
বিশাখা ঃহ্যাঁ, ডেকোরেশনে আমি আরো একটা কাজ করি.....
কেকাঃতুমি তো বলেছিলে তুমি সুন্দর গান গাও।আজ দর্শককে একটা গান শোনাও।
বিশাখা তরল হাসি দিয়েঃ আমারো পরানো যাহা....
কেকাপ্পা মাঝপথে গান থামিয়ে দিয়েঃ আমাদের পায়েসটা এবার হয়ে গেছে।দর্শক, দেখুন কি চমৎকার পায়েস হয়েছে!! খেতেও নিশ্চয়ই খুব দারুণ হবে।
বিশাখাঃ হ্যাঁ হ্যাঁ,এই পায়েসটা.....
কেকাপ্পাঃআমরা অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে চলে এসেছি।বিশাখা তোমাকে ধন্যবাদ এত চমৎকার একটি রেসিপি করার জন্য।
বিরস বদনে বিশাখাঃআপনাকেও ধন্যবাদ।

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৪১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: তাহ‌লে উ‌নি সব কর‌লেই পা‌রেন। গেস্ট আনার দরকার ক?

০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৯

তানজীর আহমেদ সিয়াম বলেছেন: হা হা

২| ০৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৪২

ক্স বলেছেন: চিংড়ির পায়েশের সাথে নুডুলসের কি সম্পর্ক?

০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৮

তানজীর আহমেদ সিয়াম বলেছেন: নুডোলস ?? কই পাইলেন

৩| ০৫ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:১৫

কানিজ রিনা বলেছেন: প্রাচীন যুগে মানুষ মাছ সুখাইয়া ঢেঁকিতে
গুড়া করে যাও রাধিয়া খাইত। এখন নাম
দেওয়া হয়েছে পায়েস। তয় চিংড়ি মালাই
কাড়ী অনেক রকম রান্না হয় নারকেল দুধ
দিয়ে চিনি মিশিয়ে শুসাদু মালাইকাড়ী যার
তুলনা নাই।

০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৭

তানজীর আহমেদ সিয়াম বলেছেন: চিংড়ইর মালািকাড়ই :)
আহা জিবে জোল চোলে এলো

৪| ০৫ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১:৪৯

করুণাধারা বলেছেন: মনোহর ইফতারের হুবহু বর্ণনা, মজা লাগলো।

০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৯

তানজীর আহমেদ সিয়াম বলেছেন: ধন্যবাদ :)

৫| ০৫ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৫:০৬

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।

০৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৫৯

তানজীর আহমেদ সিয়াম বলেছেন: জ্বী :)

৬| ১২ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৩:৪১

অচেনা হৃদি বলেছেন: তো ভাইয়া কেকাপ্পা কি করবে বলুন ? রান্নার অনুষ্ঠানে গেস্ট এর কোন কাজ আছে ? আমার মনে হয় রেসিপি জাতীয় অনুষ্ঠানে রন্ধনশিল্পীর একাই উপস্থাপন করা উচিৎ ।

৭| ২৮ শে জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:১৫

কাওসার চৌধুরী বলেছেন: বাহ!! কেকাপ্পাকে নিয়ে আপনার লেখাটি পড়ে হাসলাম অনেক্ষণ। আসলে দোষটা শুধু উনার না; এটা আমাদের বাঙালি চরিত্রের একটা কালো দিক। আমরা কাউকে কথা বলতে দেই না; নিজেই প্রশ্ন করি, আবার নিজেই এর উত্তর দেই।

লেখায় ভাল লাগা। তাই লাইক দিলাম। শুভ কামনা রইলো প্রিয় সিয়াম ভাইয়ের জন্য।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.