নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

ছিলাম বইয়ের পোকা, এখন ইন্টারনেটের ।

সাদা মনের মানুষ

বিশ্ব জোড়া পাঠশালা মোর সবার আমি ছাত্র --নানা ভাবে নতুন জিনিস শিখছি দিবা রাত্র 'মুর্খরা সব শোন, মানুষ এনেছে গ্রন্থ, গ্রন্থ আনেনি মানুষ কোন'

সাদা মনের মানুষ › বিস্তারিত পোস্টঃ

হনুমানের দেশে..............

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:৫১


কেশবপুর থানার মোড়ে একদল হনুমান খেলা করছিল। পাশের এক দোকানী একটি হনুমানের লেজ কেটে দেয়। হনুমানরা দল বেঁধে কাটা লেজটি নিয়ে চলে যায় থানার ভেতর। থানার ডিউটি অফিসারের সামনে গিয়ে হনুমান গুলো চিৎকার শুরু করে দেয়। থানার ডিউটি অফিসারের দিকে হাতজোড় করে নিবেদন করে-এর বিচার চাই। অভিযোগ তাদের এক সতীর্থের লেজ কেটে দিয়েছে মানুষরূপী এক দানব। পুলিশ এসে ওই দোকানীকে ধরার চেস্টা করে। পালিয়ে যায় সেই দোকানী। কিন্তু হনুমান আর থানা থেকে বের হয় না। পরে ওসি এসে হনুমানদের খাবার দেয়। এরপর হনুমান গুলো থানা থেকে চলে যায়। কয়েক বছর আগে সত্যি সত্যি এমন ঘটনা ঘটে কেশবপুরে

.........এরূপ ঘটনা শুনে কেশবপুরে যাত্রা, বাকীটা কেবলই ছবি।


(২/৩) কেশবপুরে গিয়ে হনুমানদের খুঁজছিলাম, লোকদের কাছে জিজ্ঞাসা করতে করতে হনুমানের একটি দলকে পেয়ে গেলাম বন বিভাগের কার্যালয়ের আশেপাশে বিভিন্ন গাছের মগডালে।



(৪) কেউবা উঁকিঝুকি মারছিল মানুষের বাড়িঘরে।


(৫) কেওবা নিজের বাচ্চাকে নিয়ে অলস দুপুর পার করছিল।


(৬/৭) সাথে করে নিয়ে যাওয়া বিস্কুট ছুড়ে মারতেই নানা যায়গা থেকে ওরা ছুটে আসতে লাগল।



(৮/৯) প্রথমে কিছুটা ভয় পেলেও পরবর্তিতে দেখলাম ওরা আমাদের হাত থেকে খাবার নিয়ে খাচ্ছে অনায়াসেই।



(১০/১১) এক সময় ওরা আমাদের কাছে একেবারেই সহজ হয়ে গেল।



(১২) ওদের দেখে এখন আর মোটেও আমাদের কাছে দুর্ধর্ষ প্রাণী মনে হলো না।


(১৩) আমরা থাকতে থাকতেই চলে এল প্রতিদিন হনুমানদের খাবার সরবরাহকারি আতিয়ার রহমান। সরকারি বরাদ্দের কলা রুটি আর কাঁচা বাদাম ওদেরকে খেতে দিলেন তিনি।


(১৪/১৫) কলা রুটি মনে হলো ওদের খুবই প্রিয় খাবার।



(১৬/১৭) একবারে অনেক কলা পেয়ে ওরা ছলাকলা করছে।



(১৮) কাঁচা বাদামের কদরটা ওদের কাছে বেশ ভালো, তাই আতিয়ারের বাদাম দিয়ে আমরাও কিছুটা আপ্যায়ন করলাম ওদের।


(১৯) ওদের সাথে কিছুক্ষণ কাটানোর পর দেখলাম ছোট ছানাটাও আর আমাদের ভয় না পেয়ে হাত থেকে খাবার নিচ্ছে, অথচ প্রথম দিকে সে ভয়ে সিটকে থাকতো।


(২০) নিজ হাতে হনুমানদের খাবার খাওয়ানোর একটা প্রমান তো থাকা চাই B-)

মন্তব্য ৭০ টি রেটিং +১১/-০

মন্তব্য (৭০) মন্তব্য লিখুন

১| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:০০

চাঁদগাজী বলেছেন:


ভালো লাগলো, সরকার এদের খাবারের ব্যবস্হা করেছে

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:০৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হুমম, আমাদের নরসিংদীর মনোহরদী থানার রামপুর গ্রামের বানরগুলোর জন্যও সরকার অনুরূপ ব্যবস্থা করলে ভালো হতো......ধন্যবাদ চাঁদ ভাই।

২| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:০৪

বিজন রয় বলেছেন: আমি কি হনুরে!!

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: খিক খিক খিক ;)

৩| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১১

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: এতদিন কোথায় ছিলেন?

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ব্লগে তো আমি নিয়মিতই থাকি, শুধু পোষ্ট দেওয়া আর মন্তব্য করার সময় হয়ে উঠে না, আপনি কেমন আছেন?

৪| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৪

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: কেশবপুরের ঘটনাটা একদিকে যেমন মর্মান্তিক, অন্য দিকে তেমনি আশ্চর্যজনক।

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৬

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: এই কথা কতটুকু সত্য কে জানে? আপনি জানেন কি? :-B

৫| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৪

লাবণ্য ২ বলেছেন: চমৎকার!

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন লাবণ্য

৬| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩১

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: এই কথা কতটুকু সত্য কে জানে? আপনি জানেন কি?


আরে সাদা ভাই কী কয়? আপনার কাছেই তো জানলাম। এরকম হতেই পারে। কেননা, বাঁদর প্রজাতির প্রানীরা খুব বুদ্ধিমান এবং মানুষের মতোই স্পর্শকাতর হয়।

০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৩

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: বান্দর প্রজাতি হয় বুদ্ধিমান আর ইন্দুর প্রজাতি হয় খুবই গেয়ানী =p~

৭| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৬

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: বান্দর প্রজাতি হয় বুদ্ধিমান আর ইন্দুর প্রজাতি হয় খুবই গেয়ানী


জি, জি, আপনি অত্যন্ত জ্ঞানের কথা বলেছেন।

০৯ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৬:২২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনি যে খুব বুদ্ধিমান তা আমি আগে থেকেই জানতাম :D

৮| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৮

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: প্রথম ছবিতে যে হনুমানটি বসে আছে, সে কী হনুমানদের রাজা?

০৯ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৬:২৩

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ছবি দেখে ওনাকে মহিলা হনুমান মনে হচ্ছে, মহিলাদের রাজা হওয়ার নিয়ম আছে কিনা সেটা তো আপনিই ভালো জানেন :)

৯| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩৮

শাহিন-৯৯ বলেছেন: জায়গাটা কি যশোরের কেশবপুর?

০৯ ই জুন, ২০১৮ ভোর ৬:২৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: জ্বী ভাইজান, যশোরের কেশবপুর।

১০| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৪৬

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: যশোরে থাকি অথচ কখনও যাওয়া হয়নি :(
বাড়ির কাছের লোক ট্রেন ফেল করে আমার সে অবস্থা।সময় করে একদিন যেতে হবে।

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:২৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ট্রেন ফেল করাটা স্বভাবিক, এমন ঘটনা আমারও আছে........শুভেচ্ছা জানবেন ভাইজান।

১১| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৪৭

সিগন্যাস বলেছেন: প্লাস দিসি

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:৩০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: প্লাসের জন্য কি খাইবেন কন :D

১২| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ১০:২৬

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: আচ্ছা, হনুমানরা সবাই দাড়ি রাখে কেন? ক্লিন সেভ করলে ওদেরকে কত সুন্দর দেখাতো!

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:৩১

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনি কিন্তু ইচ্ছে করলে কেশবপুরে ওদের জন্য একটা স্যালুন খুলতে পারেন। অন্য কেউ খোলার আগেই যদি করেন লাভবান হওয়ার আশংকা বেশী =p~

১৩| ০৮ ই জুন, ২০১৮ রাত ১০:৫৭

মো: নিজাম উদ্দিন মন্ডল বলেছেন: জায় হনুমান!!;)

কামাল ভাই?
ওখানে আনুমানিক কতগুলো হনুমানজ্বী আছে?
কলাগুলো তো ভালই! এখন কলার হালি নাকি ৩০-৪৫ টাকা??

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৫২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: কলার হালি এখন সত্যিই নাগালের বাইরে, আমরা নরসিংদীর মানুষ হওয়া সত্বেও এখন কলা খেতে পারি না। গতকালকে ইফতারের পরে এক দোকানীকে সাগর কলার দাম জিজ্ঞেস করলাম। বলল ষাট টাকা, আমি ভাবলাম সস্তায় পাওয়া গেছে। মানে সচরাচর আমরা কুড়ি হিসাবেই কলা কিনে ঠাকি। যখন জানলাম হালির দাম বলেছে তখন আর সেখানে দাঁড়ালাম না।

ওখানে আমরা হয়তো ২০ থেকে পঁচিশটা হনুমান দেখেছিলাম। হনুমানদের একটা দল ছিল ওরা। এমন আরো বেশ কিছু দল রয়েছে ওদের, ধন্যবাদ মন্ডল ভাই।

১৪| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ১২:১৫

ওমেরা বলেছেন: কেশব পুরের ঘটনা বেশ আশ্চার্যই লাগল। পোষ্ট ভাল লাগল ।

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:০০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেন আপু।

১৫| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ১:৩৩

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: ভালো লাগল...

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:০২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ ভাই, ভালো থাকুন, সব সময়।

১৬| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ২:৪৬

হাসান কালবৈশাখী বলেছেন:
জয় হনুমান!

ছবিতে হনুমানের মাতৃস্নেহ ইনসানের মতই ...

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:০৭

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হুমম, পূর্ব পুরুষ বলে কথা ;)

১৭| ০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: সরকার মানুষদের খাবার দিতে পারে না আর হনুমানদের কিভাবে দিবে?
ঢাকার গেন্ডারিয়ার সাধনার পাশে অসংখ্য বানর থাকতো। তাদের কেউ খাবার দেয় না। মাঝে মাঝে সাধনা থেকে তাদের খাবার দেয়া হতো খুব সামান্য। আশে পাশের বাসা থেকে খাবার চুরী করতো। অসংখ্য বানর পিটিয়ে মেরে ফেলা হয়েছে। বানরের সংখ্যা অনেক কমে গেছে।

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:০৯

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আমাদের নরসিংদীর রামপুরার বানরগুলোর ও এখন সেই একই অবস্থা, খাবারের জন্য ওরা মানুষের ফসলের ক্ষতি করে, আর অতিষ্ঠ মানুষ সুযোগ পেলে ওদের হত্যা করে।

১৮| ০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৫৩

সামছুল মালয়েশিয়া প্রবাসী বলেছেন: কেশেবপুর থানার হনুমানের ঘটনা ইত্যাদিতে দেখেছিলাম।।

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:১২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আমার দেখা হয়নি, ধন্যবাদ সামছুল ভাই

১৯| ০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৫৬

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: ২০ নম্বর ছবি। নিজ হাতে হনুমানদের খাওয়ানোর ছবিটা ফটোশপ নয় তো? আপনি ফটো মাস্টার মানুষ। ইচ্ছা করলে কী না পারেন! আপনার মাথা কাইটা আমার ধড়ে লাগাইয়া দিতে পারেন। কেউ বুইঝা ফালাইলে সমস্যা নাই। কইবেন 'টু ইন ওয়ান'। ফটো মাস্টার কাম বটতলার লেখক। হাঃ হাঃ হাঃ।

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:০২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপ্নে হাটে হাড়ি থুক্কু ব্লগে হাড়ি ভাইঙ্গা দিলে তো আমাদের মাষ্টরিে দিন শেষ হওয়া যাইব ভাই। সব শেষে না আপ্নার সাথে আমারও বট তলায় দিয়ে দাঁড়াতে হয় B:-/

২০| ০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:১৩

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: ১৪/১৫ নম্বর ছবি। কলা রুটি তো আমারও প্রিয় খাবার। আপনি যে কলাগুলো এনেছিলেন, তার অর্ধেক আমি একাই খেয়েছি। এখন এই ছবিগুলো দেখে নিজেকে হনুমান হনুমান মনে হচ্ছে। হায় আল্লাহ রে! ডারউইন সাহেব কইছে, বান্দর থাইকা মানুষ হইছে। আর আমি মানুষ থাইকা বান্দর হইলাম! কী কপাল আমার!

০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:২০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: হেনা ভাই, আমের সিজন আইছে, আপনি আম নিয়া আসবেন নাকি আমরা কলা নিয়া গিয়া আমার আপনারে ডারউইনের কাছে পাডায়া দিমু কন।

২১| ০৯ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১১:২৬

আবুহেনা মোঃ আশরাফুল ইসলাম বলেছেন: হেনা ভাই, আমের সিজন আইছে, আপনি আম নিয়া আসবেন নাকি আমরা কলা নিয়া গিয়া আমার আপনারে ডারউইনের কাছে পাডায়া দিমু কন।


একটা ভালো কথা বলেছেন কামাল ভাই। শরীর ভালো থাকলে ঈদের পরে আইতাছি। রোজার মধ্যে সম্ভব না ভাই।

০৯ ই জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আমি কিন্তু অপেক্ষাইতাছি..................

২২| ০৯ ই জুন, ২০১৮ দুপুর ১২:৩০

টারজান০০০০৭ বলেছেন: এই হনুমানদের দেখিলে মনে হইতেছে না ইহারা লঙ্কা পুড়াইয়া দিয়াছিল! সরকার ইহাদের খাবার বরাদ্দ দিয়েছে দেখিয়া ভালো লাগিল !

০৯ ই জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪২

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনি তো টারজান, ওনাদের সম্পর্কে আপনার ধারণা অবশ্য সব থেকে ভালো থাকার কথা, শুভেচ্ছা জানবেন ভাই।

২৩| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:৫০

সুমন কর বলেছেন: শেয়ার করার জন্য ধন্যবাদ। সুসংবাদ, তারা নিয়মিত খাবার পাচ্ছে.....

১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:১৭

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: কতটা পাচ্ছে সেটা অবশ্য একটা ব্যাপার, কোথাও পড়েছিলাম বরাদ্দ সবটা হনুমানের পেটে যায় না, অন্য পেটেও যায় কিছুটা, ধন্যবাদ দাদা

২৪| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ১০:৩৩

মোঃ খুরশীদ আলম বলেছেন: ভাল লাগল আপনার জীব প্রেম দেখে।

১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:১৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: এই বিপন্ন জীবগুলোর পাশে অবশ্যই আমাদের দাঁড়ানো উচিৎ, শুভেচ্ছা জানবেন আলম ভাই।

২৫| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ১০:৫৮

শামচুল হক বলেছেন: অবশেষে তাইলে বান্দরের থুক্কু হনুমানের পুষ্ট একখান দিলেন

১০ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৪০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনার পুরেষদের B-)

২৬| ০৯ ই জুন, ২০১৮ রাত ১১:৪৫

জাহিদ অনিক বলেছেন:

লংকার হনুমান তাহলে এই কেশবপুরে আস্তানা গেড়েছে ! বেশ বেশ !

ভালো লাগলো খুব। শুরুর কাহিনিটা আগে জানা ছিল না।
হনুমানের সাথে আপনার মোলাকাতের শেষ ছবিটাও খুব ভালো লাগলো।

১১ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৪০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ অনিক ভাই, ওদের দেখতে কিন্তু বেশ ভালো লাগে।

২৭| ১০ ই জুন, ২০১৮ সকাল ৭:১৩

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: অনেক ভালো লাগল পোষ্টটি। হনুমানময় পোষ্টে লাইক! :)

১৫ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:১৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনার মন্তব্যেও লাইক দিলাম আপু :D

২৮| ১০ ই জুন, ২০১৮ বিকাল ৪:১৭

পদ্ম পুকুর বলেছেন: ছবিগুলো খুব সুন্দর হয়েছে। হনুমানিয় লাইক দিলাম।

আমার বড়বোনের বাসা কেসবপুর বাজারে। ছোটবেলাই গেলে প্রচুর হনুমান দেখতাম। তখন ওদের সংখ্যা বেশি ছিল, তাই দাপটও ছিল মারাত্মক। বাসা বাড়ি থেকে খাবার টাবার নিয়ে যেত অনায়াসে। এখন মানুষরূপী হনুমানদের অত্যাচারে ওদের সংখ্যা কমে গেছে।

১৭ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৫০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ পুকুর, ঈদ শুভেচ্ছা জানবেন।

২৯| ১৩ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:৩১

পুলক ঢালী বলেছেন: কামাল ভাই অনেকদিন পর পোষ্ট দিলেন মনে হয়। খুব সুন্দর হয়েছে তবে হনুমানজীর সঙ্গে আমনের একটা সেলফি থাকলে আরো মজাদার হতো মনে হয়। :D

১৮ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৪৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আমি আসলে সব সময়ই ক্যামেরার পেছনে থাকি বলে সেলফির কথাটা মনেই ছিল না, ভবিষ্যতে হয়তো আবার হবে, ধন্যবাদ ভাইজান।

৩০| ১৫ ই জুন, ২০১৮ রাত ৮:৫৬

জোকস বলেছেন: ঈদ মোবারক।

১৯ শে জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৩৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ঈদ মোবারক।

৩১| ১৫ ই জুন, ২০১৮ রাত ৯:০০

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: ঈদের শুভেচ্ছা....

২০ শে জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৬:০৮

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: আপনার জন্যও রইল ঈদ শুভেচ্ছা

৩২| ১৬ ই জুন, ২০১৮ সকাল ১০:৪৭

সামু পাগলা০০৭ বলেছেন: প্রতিমন্তব্যে ধন্যবাদ ভাই।

ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়ে গেলাম।

২৫ শে জুন, ২০১৮ সকাল ৭:৫৩

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ আপু, আপনার জন্যও শুভেচ্ছা নিরন্তর

৩৩| ১৭ ই জুন, ২০১৮ রাত ১০:০৩

শায়মা বলেছেন: অনেক অনেক ভালোলাগা ভাইয়া!!! :)

২৮ শে জুন, ২০১৮ সকাল ৮:৩৫

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: শুভেচ্ছা জানবেনশায়না আপু

৩৪| ২০ শে জুন, ২০১৮ সন্ধ্যা ৭:৪৭

লক্ষণ ভান্ডারী বলেছেন: ভালো লিখেছেন। ছবিগুলিও চমত্কার।
আন্তরিক প্রীতি আর শুভেচ্ছা জানাই।

ভালো থাকুন, সুস্থ থাকুন।
প্রাণভরে লিখুন, লিখতে থাকুন।

সাথে থাকুন।
পাশে রাখুন।
শুভকামনা রইল নিরন্তর।
জয়গুরু! জয়গুরু!
জয়গুরু!

২৮ শে জুন, ২০১৮ রাত ৯:১৪

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ দাদা, আপনিও ভালো থাকুন, সব সময়।

৩৫| ২০ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:১৯

সামিয়া বলেছেন: best wildlife photography

২০ শে জুলাই, ২০১৮ রাত ৮:২০

সাদা মনের মানুষ বলেছেন: ধন্যবাদ আপু শুভ কামনা জানবেন

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.