নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

জ্ঞান যেখানে সীমাবদ্ধ, বুদ্ধি সেখানে আড়ষ্ট, মুক্তি সেখানে অসম্ভব।

এম টি উল্লাহ

আমি এম টি উল্যাহ। আইনি উপন্যাস ‘‘অসমাপ্ত জবানবন্দী’’ ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক বই ‘‘মায়ের মুখে মুক্তিযুদ্ধ’’ এর লেখক। পেশায়-আইনজীবী।www.facebook.com/mohammad.toriqueullah , Email- [email protected]

এম টি উল্লাহ › বিস্তারিত পোস্টঃ

আদালতে চোরের যুক্তিঃ একটুখানি আনন্দ

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ বিকাল ৫:৪১

একবার এক আদালতে চোরাই মাল সমেত এক চোরকে পেশ করল পুলিশ।
অভিযোগ সম্পর্কে বিচারকের জিজ্ঞাসায় পুলিশ বলল : হুজুর, এই লোকটি একটি কাপড়ের পুঁটুলিতে কিছু মোবাইল-ট্যাব, স্বর্ণালংকার, কাপড়-চোপড় ও নগদ টাকা নিয়ে একটি বাড়ির পেছনের দরজা দিয়ে মাঝরাতে চুপি চুপি বেরিয়ে পালাবার চেষ্টা করছিল। আমি হাতেনাতে ধরে ফেলেছি। সারারাত লকআপে রেখে আজ আদালতে পেশ করলাম।

বিচারক চোরকে জিজ্ঞাসা করলেন : তুমি চুরি করেছ?

চোর : না হুজুর, আমি 'কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের নির্দেশ পালন করেছি শুধু'।

বিচারক অবাক হয়ে : তার মানে?

চোর : কাল মাঝরাতে আমি শুনতে পেলাম একটা গান ভেসে আসছে -
'আজ জ্যোৎস্না রাতে সবাই গেছে বনে...'। তাই ভাবলাম আমিই বা বসে থাকি কেন? আমিও যাই- তাই বেড়িয়ে পড়লাম। রাস্তা একেবারে শুনশান- বুঝলাম সবাই নিশ্চয়ই বনে চলে গেছে- তখন তাড়াতাড়ি পা চালালাম। হঠাৎ একটা বাড়ির সামনে শুনতে পেলাম ভেতর থেকে সুরেলা কণ্ঠে কেউ বলছে- এসো এসো আমার ঘরে, এসো আমার ঘরে...'তাকিয়ে দেখলাম পাশেই একটা ফাঁকা বাড়ি- দরজা জানালা খোলা, কাউকে দেখা যাচ্ছে না- সোজা ঢুকে পড়লাম আর ঢুকেই শুনতে পেলাম- 'ঘরেতে ভ্রমর এলো গুনগুনিয়ে...'। এটা শুনে খুব খুশি হলাম আর তখনই কানে ভেসে এলো- 'এবার উজাড় করে লও হে আমার যা কিছু সম্বল...'। তো, কী আর করি, স্যার! আমি যেই হই, হাজার হোক রবীন্দ্রনাথের নির্দেশ তো আর অমান্য করা উচিত হবে না- পাশেই দেখলাম এই কাপড়টা ঝুলছে - এতে সব মালপত্র বেঁধেছি সঙ্গে সঙ্গে কানে ভেসে এলো- 'আজ দখিন দুয়ার খোলা...'। বুঝলাম পেছনের দরজা খোলা- সেখান দিয়েই বেরিয়ে পড়লাম- সঙ্গে সঙ্গে এই পুলিশ ভাই এসে আমায় ধরল- ওনাকে কত বোঝাবার চেষ্টা করলাম যে আমি চুরি করিনি, শুধু রবীন্দ্রনাথের নির্দেশ পালন করেছি! কিন্তু হুজুর, ব্যাটা বোধহয় রবীন্দ্রনাথের নামই শোনেনি- সোজা ধরে নিয়ে হাজতে ভরে দিল। তারপর আজ আপনার কাছে নিয়ে এসেছে। আপনিই বলুন হুজুর, আমার কী দোষ?

চোরের লম্বা ফিরিস্তি শুনে বিচারক বললেন : ঠিক আছে, তোমাকে ছয় মাসের সাজা দিলাম! এই বিষয়ে তোমাকে বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ কিছু বলেছেন?

চোর : 'এ পথে আমি যে গেছি বারেবার, ভুলিনিতো একদিনও...'।

বিচারক : জেলে যখন থাকবে- তখনও কি কবিগুরু তোমাকে কিছু বলবেন?

চোর : আলবৎ স্যার। তখনকার জন্য তিনি লিখে রেখে গেছেন, 'ভেঙে মোর ঘরের চাবি নিয়ে যাবি কে আমারে...'

বিচারক এবার পুলিশকে বললেন, একে জেলে নিয়ে যাও জলদি। (সংগৃহীত)

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +০/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০০

রাজীব নুর বলেছেন: আগে পড়েছি এটা।

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৫৬

এম টি উল্লাহ বলেছেন: ধন্যবাদ

২| ০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ সন্ধ্যা ৬:০৩

নেওয়াজ আলি বলেছেন: ভালো

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৫৬

এম টি উল্লাহ বলেছেন: ধন্যবাদ

৩| ০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:১৪

সাইন বোর্ড বলেছেন: আমি প্রথম পড়লাম, তাই ভালই লাগল ।

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৫৭

এম টি উল্লাহ বলেছেন: ধন্যবাদ পড়ার জন্য

৪| ০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৮:৫৪

নূর মোহাম্মদ নূরু বলেছেন:
খান সাবের মতো আমিও
আগে কয়েকবার পড়েছি
আজ আবার পড়লাম

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৫৭

এম টি উল্লাহ বলেছেন: ধন্যবাদ

৫| ০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:০৫

একাল-সেকাল বলেছেন: বিচারকের মার্কা নৌকা হলে, রবীন্দ্রনাথ কে হুকুমের আসামী করে গ্রেফতার করতে নিশ্চয়ই পুলিশ কে নির্দেশ দিতেন। :)

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ৯:৫৮

এম টি উল্লাহ বলেছেন: হ্যাঁ হ্যাঁ..

৬| ০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ১০:১১

একাল-সেকাল বলেছেন: একটুকানি আনন্দ কে একটু খানি আনন্দ করে দেন

০৮ ই ফেব্রুয়ারি, ২০২০ রাত ১১:০২

এম টি উল্লাহ বলেছেন: ধন্যবাদ

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.