নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

মানুষের চেয়ে বড় কিছু নেই।

মুজিব রহমান

মুক্তচিন্তা ও বিজ্ঞানমনষ্ক মানুষ; আস্থা বিবর্তনে; এমএসসি পদার্থ বিদ্যা; ভাললাগে সাহিত্য; অপছন্দ ঘুষ-দুর্নীতি; ভালোলাগে না ধর্ম ও রাজনৈতিক আলাপন।

মুজিব রহমান › বিস্তারিত পোস্টঃ

আমরাতো সিংগাপুর হচ্ছি! একজন প্রবাসী যা বললেন-

২৯ শে জুন, ২০২০ সকাল ১০:৫৬


কেউ কেউ দাবি করছেন বাংলাদেশ শিঘ্রই সিংগাপুর হতে যাচ্ছে৷ সিংগাপুরের সাথে একটি বিষয়ে মিল পাওয়া যাচ্ছে- সিংগাপুরের রাষ্ট্রপতি হালিমা আর বাংলাদেশের রাষ্ট্রপতি আঃ হামিদ, দুজনের নামই 'হা' দিয়ে আর দুজনেই মুসলিম৷

করোনা মোকাবেলায় সিংগাপুর শহর, ঢাকার থেকে অনেক এগিয়ে৷ মৃত্যু মাত্র ২৬ জন, আক্রান্ত ৪৩ হাজার৷ নতুন মৃত্যু নেই, আক্রান্তও এখন কম৷ আক্রান্তদের অধিকাংশই প্রবাসী শ্রমিক৷ করোনা মোকাবেলায় তারা কঠোর লকডাউন করেছে৷ শ্রমিকদের ডরমেটরিতে খাবার পৌঁছে দিয়েছে৷ প্রত্যেক নাগরিককে নগদ প্রণোদনা দিয়েছে৷ প্রত্যেক নাগরিকের মোবাইলে এপ ডাউনলোড করিয়েছে৷ প্রত্যেক স্থানে লাগিয়েছে QR Code, তারা যেখানে যায় সেখানেই ওই কোড স্ক্যানিং করে৷ ফলে সারাদিন কে কোথায় যাচ্ছে তা রেকর্ড হচ্ছে৷ কেউ আক্রান্ত হলেই সে কার কার সংস্পর্শে গিয়েছে তা মুহূর্তেই বের করে ফেলতে পারছে৷ এখন তারা সকল নাগরিকের বিনা পয়সায় করোনা টেস্ট করা শুরু করেছে৷ যাতে চীরতরে করোনাকে কবর দেয়া যায়৷

সিংগাপুরের নাগরিকদের মাথাপিছু গড় আয় প্রায় এক লক্ষ ডলার আর বাংলাদেশের ১৯০৯ ডলার৷ মানে আমাদের চেয়ে ৫০ গুণ বেশি৷ সিংগাপুরে ধর্মীয় হানাহানি নেই৷ নাগরিকদের মধ্যে ৭৫% চীনা, মালয় ১৩% আর ভারতীয় ৯%৷ ধর্মীয় বৈচিত্র রয়েছে- বৌদ্ধ ৩৩%, নাস্তিক ১৯%, খৃস্টান ১৯%, মুসলিম ১৪%, লৌকিক ধর্ম ১০% তবে দাঙ্গা ও হানাহানি নেই৷ ওখানে অন্তত তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় রয়েছে যারা বিশ্ব সেরা, রয়েছে বিশ্বসেরা হাসপাতাল৷ আমাদের?

আমার স্নেহভাজন কামাল শিকদার জানিয়েছেন-

আসসালামুয়ালাইকুম মুজিব ভাই, আমি সিঙ্গাপুর থেকে বলছি।

আসলেই সিঙ্গাপুর সরকার আমাদের জন্য যা করেছে পৃথিবীর ইতিহাসে বিরল ঘটনা সত্যি এর ঋণ শোধ করা যাবে না। আপনার বলার পাশাপাশি আমি কিছু যোগ করছি তা হল

সর্বপ্রথম সিঙ্গাপুর যে একজন বাঙ্গালী আক্রান্ত হয়েছিল তার পিছনে প্রায় বাংলা টাকার দেড় কোটি টাকা খরচ করেছিল প্লাস তার আবদার ছিল তাই আর ওয়াইফের সঙ্গে দেখা করার সেই আবদার সিঙ্গাপুর সরকার পূরণ করেছিল ভিআইপি ফ্লাইট এর মাধ্যমে এনে অতঃপর সিঙ্গাপুরে ভিনদেশিদের বাচ্চাকাচ্চা ডেলিভারি করানো হয় না তার ওয়াইফ ওই সময়টায় ডেলিভারি টাইম পড়াতে তাদের বাচ্চা সিঙ্গাপুর জন্মগ্রহণ করে পরবর্তীতে তাদেরকে নাগরিকতা দেওয়া হয়

প্রতিটি বিল্ডিংয়ের নিচে নিচে সিঙ্গাপুরে মেডিকেল স্টুডেন্টদের দিয়ে মেডিকেল টিম বসিয়ে দিয়েছে যাতে করে আমাদেরকে চিকিৎসা সেবা নিতে দূরে কোথাও যেতে না হয়

আমরা রান্নাবান্না করে খেলে সর্বোচ্চ ২০০ টাকা লাগে কিন্তু গভমেন্ট থেকে তিন বেলা খাবার প্লাস ফ্রুটস খাবারের টাইম এর এক ঘন্টা আগে আমাদের রুমে পৌছে দেয়া হচ্ছে

আমাদেরকে ফ্রি সিম দিয়েছে আনলিমিটেড ডাটা সাথে আছে ১০ ডলার করে ব্যালেন্স এর সাথে ওয়াইফাই তো আছেই

রোজার মাসে আমাদের জন্য সেহরি ইফতারের ব্যবস্থা করেছে খেজুর অন্যান্য ফল-ফলাদি

আমাদের বেশিরভাগ শ্রমিকের থাকার ব্যবস্থা ছিল ডরমেটরি বর্তমানে এগুলো সংখ্যা বাড়িয়ে নতুন করে নতুন পরিকল্পনায় থাকার জায়গা বানাচ্ছে যেখানে ভবিষ্যতে এরকম পরিস্থিতি হলে যেন আক্রান্ত সংখ্যাটা এরকম ভাবে না হয়

প্রতি মাসে আমাদের বেসিক স্যালারি সকাল আট টা থেকে বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত কাজ করলেই যে বেতন পেতাম সেটা এখন রুমে বসে বসে পাচ্ছি

দুই এক দিন পর পরই আমাদের প্রত্যেকের রুমে রুমে প্রতিজনের জন্য সার্জিক্যাল মাক্স পৌঁছে দিচ্ছে যেন ঘর থেকে বেরোলেই বেলকুনিতে দাঁড়ালে এটা ইউজ করে দাঁড়াই

সিঙ্গাপুর প্রত্যেককে করোনা ভাইরাস সম্বন্ধে অনলাইনে যার যার পারমিট নাম্বার শো করে কোন ভাইরাসের এক্সাম দেওয়া লাগছে এই সমন্ধে বিস্তারিত আমরা জানতে পেরেছি এছাড়াও

প্রত্যেক অধিবাসীকে একবার করে রক্ত পরীক্ষা এমনকি দুইবার করে করোনা পরীক্ষা করা হচ্ছে

যারা আক্রান্ত হয়েছে তাদেরকে ভিআইপি হোটেলে রেখে চিকিৎসা দিচ্ছে এমনকি সুস্থ হওয়ার পর সরাসরি তাদেরকে থাকার স্থানে নিয়ে আসছে না তাদেরকে ভিআইপি শিপ জাহাজে আপাতত কিছুদিন রাখা হচ্ছে

পুরো বিশ্ব যখন এই মুহূর্তে থমকে দাঁড়িয়েছে সেই মুহূর্তে সিঙ্গাপুর পার্লামেন্টে করুনার পাশাপাশি তারা তাদের অধিবাসীদের তাড়াতাড়ি সুস্থ করার কাজ হাতে নিয়েছে যাতে করে তাদের কে সুস্থ করে তাদের অর্থনীতির চাকা তাড়াতাড়ি সচল করতে পারে

কিছুদিন আগে করানো ভোরে যে আক্রান্ত হয়ে বাংলাদেশ পার্লামেন্টের একজন সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী নাসিম সিঙ্গাপুর আসার জন্য অনেক কাকুতি মিনতি করেছে কিন্তু সিঙ্গাপুর সরকার এর পক্ষ থেকে তেমন কোনো সাড়া পাওয়া যায়নি সিঙ্গাপুর সরকার তার দেশের অধিবাসীদের নিয়ে এখন ব্যস্ত এখনো শুনলাম বাংলাদেশের পার্লামেন্টে সাহারা খাতুন আসার জন্য চেষ্টা করছে খুব করে

আমাদের বেসিক স্যালারি জন্য কোথাও যেতে হয় না প্রতি মাসের ১ তারিখে আমাদের ব্যাংক কার্ড এ টাকাটা পৌঁছে যাচ্ছে এমনকি যাদের ব্যাংক কার্ড নেই রুমে এসে তাদের টাকাটা দিয়ে যাচ্ছে।

মন্তব্য ১০ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১০) মন্তব্য লিখুন

১| ২৯ শে জুন, ২০২০ সকাল ১১:১৬

রোকনুজ্জামান খান বলেছেন: আর আমাদের দেশের বেসরকারী প্রতিষ্ঠান গুলো বসিয়ে রেখে বেতন তো দিচ্ছেই না বরং কাজ করিয়ে ৫০% বেতন কিভাবে দেওয়া যায় সেই চিন্তায় বিভোর। ভালো লাগা রইলো।

২| ২৯ শে জুন, ২০২০ সকাল ১১:৩৫

বিজন রয় বলেছেন: বাংলাদেশে সিংগাপুর হবে এটা দিবা স্বপ্ন।

৩| ২৯ শে জুন, ২০২০ সকাল ১১:৩৭

মোহামমদ কামরুজজামান বলেছেন: হ্যা,আমরা (গুটি কয়েক সুবিধাভোগী) অবশ্যই সিংগাপুর হয়ে গেছি বা যাচছি। তা ঐ সুবিধাভোগীদের ভাষায়।আম জনতার কি অবস্থা তা তারাই ভাল জানে।

তবে কেউ এই প্রচারনার বিপরীতে কিছু বলতে পারে না,কারন তাহলে হামলা - মামলা থেকে পৈএিক জানটা খোয়ানোর ও
সম্ভাবনা আছে ।

এই জন্য, কোন মন্তব্য না করাই সবচেয়ে ভাল বিকল্প ।

৪| ২৯ শে জুন, ২০২০ সকাল ১১:৪৪

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: চমৎকার তথ্য,
.............................................................
এটা জানার জন্য বেশ কিছু দিন যাবত আমার
সিংগাপুর বন্ধুদের ফোনে খুজঁছিলাম ।
আরও তথ্য থাকলে আপডেট করুন ।

.............................................................
আমার ধারনা সিঙ্গাপুর সরকার করোনা যেভাবে মোকাবেলা
করছে , সেখানে করোনার দ্বিতীয় দফা আঘাতের ভয়াবহতা ঘটবেনা ।

৫| ২৯ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:০০

রাজীব নুর বলেছেন: সরকার আজও এই দেশের জনগনকে গাধা মনে করে। তাই কত কিছু বলে লোভ দেখায়, শ্বান্ত্বনা দেয়। অথচ জনগন তাদের কুৎসিত গালি দেয়।

৬| ২৯ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১২:১৬

বিচার মানি তালগাছ আমার বলেছেন: মালয়েশিয়া, দক্ষিণ কোরিয়া, সিঙ্গাপুর এক সময় আমাদের সমান অর্থনীতির ছিল। কিন্তু আজকে তারা কোথায়? অনেক সম্ভাবনা থাকা সত্ত্বেও দুই পরিবার আমাদের দেশকে সিঙ্গাপুর হতে দিল না...

০১ লা জুলাই, ২০২০ সকাল ১১:৪৯

মুজিব রহমান বলেছেন: ধন্যবাদ। সঠিক নেতৃত্বই দেশকে এগিয়ে দেয়।

দেশ এই দুই পরিবারের হাত ধরেও অনেকটা এগিয়েছে। ১৯৯০ এর পূর্ববর্তী সরকারগুলোও আমাদের এগিয়ে নিতে পারেনি। বৈষম্যটাও গুরুত্বপূর্ণ। সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ না থাকলে বৈষম্যটা বাড়তেই থাকবে।

দেখুন আপনি ছদ্মনামে লিখেন। আমি চেষ্টা করি আক্রমণ না করেই লিখতে। তারপরও বহুবারই আমার বিরুদ্ধে থানায় মামলা করার চেস্টা হয়েছে। স্থানীয় মসজিদগুলোতে আমার লেখা বিলি করে আমাকে ঝামেলায় ফেলেছে। ইত্যাদি কারণেই রাজনৈতিক ও ধর্মীয় বিষয়ের পোস্টগুলোতে মন্তব্য করা কঠিন হয়ে যায়।

৭| ২৯ শে জুন, ২০২০ দুপুর ১:৫০

নেওয়াজ আলি বলেছেন: উন্নয়নের বানে পিছ করা রাস্তায় নৌকা পাল তুলে

৮| ২৯ শে জুন, ২০২০ বিকাল ৫:৪৯

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: সেরকম কোনও লক্ষণ বাঙালি জাতির মধ্যে এখনও দেখা যাচ্ছে না।

৯| ২৯ শে জুন, ২০২০ রাত ৯:১৪

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আগরতলার সাথে চকির তলার তুলনা করছি আমরা।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.