নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার কোন দ্বিতীয় সত্তা নেই। আমি যা আমি তাই । বাস্তবে যা ব্লগেও তাই ।মুখোশকে আমি মনে প্রানে ঘৃণা করি ।

ইসিয়াক

একজন অতি সাধারণ মানুষ ।

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

আমাদের সন্তানরা কেন এত অমানবিক হয়ে উঠলো ? একটি প্রশ্ন ।

০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:৪৩


মানুষ মানুষের জন্য
জীবন জীবনের জন্য
একটু সহানুভূতি কি
মানুষ পেতে পারে না…ও বন্ধু।।
---ভূপেন হাজারিকা

শিক্ষার বিচারে সবচেয়ে মেধাবীরা পড়ে দেশের প্রথম সারির বিশ্ববিদ্যালয়ে ও নাম করা কলেজে ।তবে এসব মেধাবীরা যদি হত্যা বা অন্যান্য নৃশংসতায় জড়িয়ে পড়ে তাহলে সামগ্রিক বিবেচনায় তা সমাজের জন্য এক অশনি সংকেত ও বটে ।সাধারণ মানুষের মনে কৌতুহল জাগা স্বাভাবিক যে দেশের সর্বোচ্চ মেধাবীদের আচার আচরণ এমন কেন ? কেন তারা এত অমানবিক এত নৃশংস ।
আসলে অবস্থা দৃষ্টে মনে হচ্ছে..।

সন্তানের ভালো ফলাফল করানোর দিকে এখনকার অভিবাবকদের যত মনোযোগ। এটা ভালো কথা । কিন্তু পড়াশোনায় ভালো হবার পাশাপাশি তাকে তো মানবিক গুনাবলী সম্পন্ন মানুষ হিসাবে গড়ে উঠতে হবে নাকি ? সন্তানকে মানবিক গুনাবলী সম্পন্ন মানুষ হিসাবে গড়ে তুলতে ই তাদের যত অনিহা । আমি বলবো এসব মেধাবীরা আদতে প্রকৃত মেধাবী নয় ।তারা তথাকথিত সনদপত্রের জোরে যত উপরে উঠুক না কেন তারা যেকোন সময় যে কোন নৃশংসতা কিম্বা নীতি নৈতিকতা বহিভূত যে কোন অপরাধ ঘটাতে পারে বা জড়িয়ে পড়তে পারে

এসব মেধাবীরা কেন নৃশংসতায় জড়িয়ে পড়ছে ? তার উত্তর মনে হয় খুব সহজ , কারণ এরা যান্ত্রিক মেধাবী। এদের মধ্যে কোন মানবিক মেধা প্রবেশ করেনি ।সহজ ভাবে বলা যায় এদের মানবিকতা লোক লৌকিকতা কিছুই শেখানো হয়নি ইচ্ছা অনিচ্ছায় আমরা এদের সর্বনাশ ডেকে এনেছি ।এখন বেশিরভাগ অভিভাবক ই ভালো ফলাফলের আশায় শুধু পাঠ্যবই কোচিং আর প্রাইভেটের প্রতিযোগীতায় মধ্যে তাদের শিশুদের আটকে ফেলছে।সন্তানকে মানবিক সামাজিক সংস্কৃতিক চর্চ্চার কোনরকম সময় বা সুযোগ স্‌বিধা দিচ্ছেনা ।মুক্তমাঠে খেলাধূলার সূযোগ পাচ্ছে না । সময় কাটাচ্ছে মোবাইল বা কম্পিউটারে।ফলস্রুতিতে এসব বা্চ্চারা মানবিক মূল্যবোধ কি তা শিখতে বা জানতে পারছেনা ।তারা শুধু কঠিন ও যান্ত্রিক হয়ে উঠছে ।

এবং ক্রমশ অমানবিক ও নৃশংস হয়ে উঠছে।এক্ষেত্রে আমাদের উচিত হবে আমরা আমাদের সন্তানদের সুষ্ঠভাবে বড় করার পাশাপাশি ভালো মন্দ মূল্যবোধ সম্পর্ক ধারনা দিয়ে গড়ে তোলা আর তাতে করে তারা সঠিক ভাবে সঠিক লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যেতে সফল হবে।
ছাত্র রাজনীতি বন্ধ হোক !
ছাত্র রাজনীতি বন্ধ হোক !!
ছাত্র রাজনীতি বন্ধ হোক !!!

মন্তব্য ৩৪ টি রেটিং +৬/-০

মন্তব্য (৩৪) মন্তব্য লিখুন

১| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:০৩

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: সহমত আপনার সঙ্গে। বিদ্যা অর্জনের পাশাপাশি মূল্যবোধ শেখানোটা অত্যন্ত জরুরি। কিন্তু জানিনা এই মূল্যবোধের অভাব বা বর্বরতার শিকারের কারণে আর কত মায়ের কোল এভাবে খালি হবে।
ছোট্ট পোস্ট। আবার পড়বেন, বেশ কিছু টাইপো আছে। সময় নিয়ে পোস্টটিকে ত্রুটিমুক্ত করবেন আশা করি।

শুভকামনা অফুরান।

০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১১

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ প্রিয় দাদা ।
টাইপো গুলো ঠিক করবো । পোষ্ট ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো ।
শুভকামনা রইলো ।
শুভরাত্রি ।

২| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১২

পাঠকের প্রতিক্রিয়া ! বলেছেন: মোবাইলে পোস্ট পড়ে আরাম পাচ্ছি না। একটু স্পেস দিয়ে লেখুন


ছাত্রলীগের চাষাবাদ করে সন্ত্র্রাসী কান্ডের সুযোগ করে দেয়ার জন্য স্বয়ং প্রধানমন্ত্রীকে কাঠগড়ায় তোলা দরকার

০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৬

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ ভাইয়া ।
শুভকামনা রইলো ।
শুভরাত্রি ।

৩| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৪৫

আহমেদ জী এস বলেছেন: ইসিয়াক,




অভিভাবকদের খুব একটা দোষ নেই। আমাদের সন্তানরা এতো অমানবিক হয়ে উঠেছে এই কারনে যে -
সমগ্র দেশটি জুড়েই যেখানে পারিবারিক-সামাজিক-বার্ণিক-ধার্মিক-ভাষিক-গৌত্রিক-জাতিক ও রাষ্ট্রিক স্তরে চলছে অবিরাম ছলচাতুরী আর প্রবঞ্চনার খেলা, চলছে আত্মম্ভরিতা আর দাপটের জোশ সেখানে মানবিক মূল্যবোধের কোনও জায়গা থাকার কথা নয়। তাই আমাদের সন্তানরা অমানবিক হয়ে উঠছে দিনে দিনে।

০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৪৯

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আহমেদ জী এস ভাই
শুভরাত্রি

৪| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৩২

আরোগ্য বলেছেন: ইসিয়াক ভাই,
অতি আক্ষেপের বিষয় যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ছাত্র রাজনীতি বন্ধ করার বিপক্ষে কারন তিনি সন্ত্রাস পালন করেন। ছাত্র রাজনীতি ছাড়া তার গদি টিকবে না কিন্তু হায়েনার লালন পালন করলেই কি সুযোগ পেলে হায়েনা মালিককেই ভক্ষন করবে।

০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৩৯

ইসিয়াক বলেছেন: প্রিয় আরোগ্য ভাই
মনে হচ্ছে এত কিছুর পরও ছাত্ররাজনীতি বন্ধ হবে না । আফসোস !!!!
তবুও আশাবাদী .......
শুভকামনা রইলো ।
শুভরাত্রি ।

৫| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:৫৭

করুণাধারা বলেছেন: নষ্ট শিক্ষা ব্যবস্থার কারণে ছাত্ররা কেবল জিপিএ ফাইভের দিকে ছুটছে। আনন্দহীন, উদ্বেগময় জীবনে মানবিকতার চর্চা করা সম্ভব নয়। তাই এরা হয়ে যাচ্ছে স্যাডিস্ট।

০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:০৫

ইসিয়াক বলেছেন: করুণাধারা বলেছেন: নষ্ট শিক্ষা ব্যবস্থার কারণে ছাত্ররা কেবল জিপিএ ফাইভের দিকে ছুটছে। আনন্দহীন, উদ্বেগময় জীবনে মানবিকতার চর্চা করা সম্ভব নয়। তাই এরা হয়ে যাচ্ছে স্যাডিস্ট।
সহমত ।
শুভকামনা রইলো।

৬| ০৯ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৫৫

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: পড়লাম।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:০৯

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ মাহমুদুর রহমান ভাই
সুপ্রভাত

৭| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১:৪৪

সুপারডুপার বলেছেন:

একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সামনে আনার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।

আপনি অনেকগুলো গুরুত্বপূর্ণ কারণ বলেছেন। এই অমানবিক হয়ে উঠার পিছনে আরও একটি অতি গুরুত্বপূর্ণ কারণ লাট ভাইয়ের কালো হাত। এই লাট ভাইয়েরা পর্দার পিছনে থেকে কলকাঠি নড়ায়।

আরো পরিষ্কার করে বললে , রাজনীতি করলে রাজনৈতিক দলের নেতাদের কালো হাত। এই লাট ভাইয়েরায় তাদের ব্লাক মাইন্ড পাওয়ার দিয়ে সন্তানদেরকে অমানবিকতার পথে পা বাড়াতে উৎসাহিত করে।

এই লাট ভাই একজন শিক্ষকরুপী শয়তান ও হতে পারে। তখন আমাদের সন্তানেরা , আমাদের অগোচরেই কখন যে অমানবিকতার পথে পা বাড়িয়েছে , আমরা হয়তো জানতেই পারবো না।

কিলার মেধাবীদের ফাঁসি হলে , ডালপালায় কাটা হবে কিন্তু মূল থেকেই যাবে। তাই ভবিষ্যতেও এই ধরণের অপরাধ আবার ঘটবে।

কিলার মেধাবীদের পুলিশের রিমান্ডে না নিয়ে, মনোবিজ্ঞানীদের রিমান্ডে নিয়ে সেই মূল কালো হাত খুঁজে বের করে , মূল উৎপাটন করলেই , এই সমস্যার সমাধান হতে পারে ।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:১১

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ সুন্দর মতামতের জন্য

৮| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৪:০৯

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: সহমত। গতকাল চাঁদগাজীর একটা কমেন্টে চোখ পড়েছিলো, কমেন্ট'টা অনেকটা এরকম ছিলো- ' এরা মেধাবী নয়, পড়ুয়া'। কথা সত্য, পড়ুয়া আর মেধাবী এক নয়। পার্থক্য আছে। যারা খুন করেছে, তারা যখন স্কুল কলজে ছিলো, তখন পারিবারিক চাপে বা নিজের ইচ্ছেয়.... প্রচুর পড়ালেখা করেছে। দুষ্টুমি, শয়তানির খুব একটা সুযোগ পায়নি। ভার্সিটিতে এসে সুযোগ পেয়েছে, অপকর্ম করে আনন্দ পেয়েছে- বাধাপ্রধানের জন্য হল অভিভাবক, প্রশাসন থেকেও ছিলো না। ফলে বিগড়ে গেছে। এর দায় বুয়েট প্রশাসনকে নিতে হবে।
তাদের দায়িত্বে অবহেলার কারণে একজন খুন হয়েছে, ২০+ খুনি হয়েছে।

আমার সুযোগ থাকলে দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগ এনে প্রশাসনের উপর আদালতে মামলা করতাম।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:০৮

ইসিয়াক বলেছেন: জুনায়েদ ভাই আপনার মন্তব্য পড়ে খুব ভালো লাগলো ।
শুভকামনা রইলো।

৯| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:২৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ছাত্র ও শিক্ষক রাজনীতি দুটোই বন্ধ করতে হবে।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:২৯

ইসিয়াক বলেছেন: মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ছাত্র ও শিক্ষক রাজনীতি দুটোই বন্ধ করতে হবে।

অবশ্যই
ছাত্র ও শিক্ষক রাজনীতি দুটোই বন্ধ করতে হবে।
এক্ষুনি।
সুপ্রভাত

১০| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:২৭

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
আজকের ছাত্রনেতারাই শিক্ষক হবে বা শিক্ষক বানাবে। ভিসি হবে বা ভিসি বানাবে। তাই বন্ধ করতে হবে বাজে রাজনীতি।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:৩১

ইসিয়াক বলেছেন: সকল প্রকার রাজনীতি মুক্তহোক আমাদের শিক্ষাঙ্গন।

১১| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৯:১৭

ঢাবিয়ান বলেছেন: আমাদের দেশে একটা ঘটনা ঘটলে ভিক্টিমের পরিবারদের ছবি ভাইরাল করে তাদের আরো বিব্রত করা হয়। আসলে ভাইরাল করা উচিৎ খুনীদের পরিবারের ছবি। খুনীদের পারিবারিক ব্র্যকাগাইন্ড সামনে আসা খুব জরুরী। খুনীদের পিতা মাতা, ভাই বোন সবার সাক্ষাৎকার নেয়া উচিৎ।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৯:৩০

ইসিয়াক বলেছেন: ঢাবিয়ান বলেছেন: আমাদের দেশে একটা ঘটনা ঘটলে ভিক্টিমের পরিবারদের ছবি ভাইরাল করে তাদের আরো বিব্রত করা হয়। আসলে ভাইরাল করা উচিৎ খুনীদের পরিবারের ছবি। খুনীদের পারিবারিক ব্র্যকাগাইন্ড সামনে আসা খুব জরুরী। খুনীদের পিতা মাতা, ভাই বোন সবার সাক্ষাৎকার নেয়া উচিৎ।
সুন্দর মন্তব্যের জন্য শুভকামনা রইলো ঢাবিয়ান ভাই
শুভসকাল

১২| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:২৮

নূর আলম হিরণ বলেছেন: শুধু ছাত্ররা না, আমাদের শিক্ষকরাও মানবিক না, বাবা মা ছাড়াও এসব শিক্ষকরাও দায় এড়াতে পারেনা।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৪০

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ নূর আলম হিরণ ভাই
শুভকামনা রইলো

১৩| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১২:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: বন্ধু ভালো বিষয় নিয়ে পোষ্ট দিয়েছেন।

গত দশ পনের বছর ধরে মানুষ অমানবিক ও নিষ্ঠুর হতে শুরু করেছে। সরকারের উচিত একটা গবেষনা করা।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৫

ইসিয়াক বলেছেন: প্রিয় বন্ধুর ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো ।
বন্ধু আর যাই হোক কবিতা লেখা কিন্তু খুব সহজ ।
নিশ্চয় ভালো আছেন ?

১৪| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৯

আখেনাটেন বলেছেন: মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
ছাত্র ও শিক্ষক রাজনীতি দুটোই বন্ধ করতে হবে।
= সহমত।

বন্ধ হোক এই অপরাজনীতি।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:২২

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ ও শুভকামনা রইলো প্রিয় আখেনাটেন ।

১৫| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:০২

শুভ্রনীল শুভ্রা বলেছেন: ভার্সিটির নোংরা রাজনীতিতে সবাই ইচ্ছে করে যোগ দেয়না। এমন পরিস্থিতি তৈরী করা হয়। ভার্সিটি জীবনের শুরুতে ৱ্যাগিংয়ের স্বীকার হয়ে অনেকেই আত্মসম্মানহীনতায় ভোগে। যখন সে দেখে হলে সিট্ পেতে বড়ভাই কে ধরতে হয়, ক্ষমতা ছাড়া ব্যক্তিত্ব সংকটে ভুগতে হয় সেসব পরিস্থিতি তাকে আর সাধারণ হয়ে থাকতে দিতে চায়না। বিশ্ববিদ্যালয়ে পা রেখেই একজন ছাত্র অনুধাবন করতে পারে, ভালো ক্যারিয়ার গড়তে তার দলীয় পরিচয়ের প্রয়োজন হবে। সর্বোপরি খুব সাধারণ পরিবার থেকে উঠে আসা একটা ছেলে রাজনীতির সুবাদে যখন অনেক বড় বড় নেতাদের সাথে মেশার সুযোগ পায় তখন নিজেকে গুরুত্বপূর্ণ ভাবা শুরু করে।ক্ষমতা, টাকা-পয়সা, বিলাসী জীবন (সাধারণ ছাত্রের তুলনায়) যাপনের সুযোগ তাকে মোহগ্রস্ত করে তোলে।পাওয়ার প্র্যাকটিস করতে যেয়ে সে হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে মানবিকবোধহীন অমানুষে পরিণত হয়।
এমন রাজনৈতিক কালোছায়া থাকলে দিনদিন কোমল প্রাণগুলো বিপথে যেতে থাকবে আর পশুর মত হয়ে যাবে নিজের অজান্তেই।তাই আমার মনে হয়, এই সমস্যার সমাধানে সিস্টেমের পরিবর্তন অনিবার্য যে সিস্টেম সুকৌশলে একজন মেধাবীকে বিবেকহীন অমানুষ করে তুলছে।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৪

ইসিয়াক বলেছেন: চমৎকার মতামতের জন্য আপনাকে অভিনন্দন।

১৬| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: কবিতা লেখা সবচেয়ে কঠিন।
আমি ভালো আছি।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:০৪

ইসিয়াক বলেছেন: রাজীব নুর বলেছেন: কবিতা লেখা সবচেয়ে কঠিন।
কবিতা লেখা অনেক সহজ । প্রবন্ধ , ফিচার , গল্প বা গঠনমূলক কিছু লেখা অনেক কঠিন। খুব কঠিন।

১৭| ১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:১৫

বলেছেন: বন্ধ হোক এই অপরাজনীতি।

১০ ই অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৩৯

ইসিয়াক বলেছেন: ল বলেছেন: বন্ধ হোক এই অপরাজনীতি।
অনেক ধন্যবাদ প্রিয় ভ্রাতা

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.