নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার কোন দ্বিতীয় সত্তা নেই। আমি যা আমি তাই । বাস্তবে যা ব্লগেও তাই ।মুখোশকে আমি মনে প্রানে ঘৃণা করি ।

ইসিয়াক

‘প্রচুর পয়সা কখনো চাইনি, বিত্তের পিছে ছুটতে যাইনি। তাই আমি অবহেলিত।

ইসিয়াক › বিস্তারিত পোস্টঃ

হৈমন্তি রঙ

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫২


হেমন্তের হৈমন্তি রঙ ,
বিস্তৃত চরাচরে ।
নিস্তব্ধ প্রকৃতি জাগে ,
পূর্ণ সরবে।

খোলা প্রান্তর শব্দহীন
স্তব্ধতা উদার ।
চর্তুপাশে সোনালী ধানে,
দিগন্ত প্রসার ।

নতুন ধানের শিষের দোলায় ,
দুলে ওঠে মন।
হিমের ছোয়ায় শীতের পরশ ,
মন যে উচাটন।

প্রভাতবেলার রবি কিরণের ,
উষ্ণ কোমল তাপে ।
উত্তুরে শীতল বাতাসে,
ফুলকলিরা কাঁপে ।

পদ্মপাতার জল টলমল ,
পদ্ম দেখে হাসে ।
জল আয়নাতে রূপটি তাহার ,
ঝলমলিয়ে হাসে ।

নদীর কূলে জল থইথই,
কেয়াবনের ধারে ।
রাখাল সেথায় বাজায় বাঁশি
আগমনির সুরে।

ঢাক কুর কুর ঢেঁকির পাড়ে ,
বউ ঝি দের আহলাদে ।
একমনতে ঢেঁকি যেন ,
নানান সুর সাধে ।

ঘরের চালে কুমড়ো গাছের ,
হলদে কমলা ফুল ।
বেড়াল ছানা তার মাঝেতে ,
মিষ্টি তুলতুল।

একধারেতে উঠান মাঝে ,
দাদীর হাতের পিঠে ।
গরম গরম স্বাদে অমৃত ,
খেতে বেজায় মিঠে।

হেমন্তের হৈমন্তি রঙে
প্রকৃতির নানা সাজে।
এমন করে হৃদয়ে মাঝে,
হাজার সুর বাজে।

মন্তব্য ৪২ টি রেটিং +১৩/-০

মন্তব্য (৪২) মন্তব্য লিখুন

১| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: সুন্দর।+

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০০

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ সেলিম ভাই

২| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: হৈমন্তী বা হেমন্তকালে নূতন ধান কাটার পর অগ্রহায়ণ মাসে হিন্দুদের মধ্যে দুধ গুড় নারিকেল ইত্যাদির সাথে নূতন আতপ চাল খাবার উৎসব বিশেষ।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৩

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ । শুভকামনা রইলো।

৩| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০১

মিথী_মারজান বলেছেন: বাহ্!
শব্দের তুলিতে খুব সুন্দর এঁকেছেন হেমন্তকে।
মনেহচ্ছিল বুঝি প্রাইমারি ক্লাসগুলোর কোন পাঠ্যবইয়ের ছড়া পড়ছি।
এত সাবলীল আর সুন্দর হয়েছে কবিতাটি। :)

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৪

ইসিয়াক বলেছেন: আপু আপনার অনুপ্রেরণায় আরো আনুপ্রাণিত হলাম ।
শুভকামনা রইলো ।
শুভসন্ধ্যা

৪| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:২৮

জুনায়েদ বি রাহমান বলেছেন: বেশ চমৎকার, ছন্দকথায় সাজিয়েছেন কবিতা

+

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৩

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ জুনায়েদ ভাই ।
শুভকামনা রইলো।
শুভসন্ধ্যা

৫| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৫৩

জুলিয়ান সিদ্দিকী বলেছেন: সুন্দর। তবে মিথী_মারজানএর কথাটা ঘুরিয়ে যদি বলি, তাহলে বলতে হয় পদ্যটির প্রকাশভঙ্গী প্রাচীন।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৫৪

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ ।
শুভসন্ধ্যা ।

৬| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:২০

ঠাকুরমাহমুদ বলেছেন: ছড়া কবিতা ভালো হয়েছে ইসিয়াক ভাই। গুড জব।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:২৬

ইসিয়াক বলেছেন: প্রিয় মাহমুদ ভাই ব্লগে আপনি আমাকে প্রথম সাহস দিয়েছেন লেখালেখির ব্যপারে ।লেখায় ভুল শুধরাতে সাহায্য করেছেন ।
আপনার অনুপ্রেরণায় আমি উৎসাহিত হয়েছি বরাবর । আমার প্রায় প্রতিটি লেখায় আপনার লাইক আমাকে জানান দেয় আপনি আমাকে কতটা কেয়ার করেন । আমি সত্যি আপনার আর্শীবাদ পেয়ে গর্বিত ।
শুভকামনা রইলো ।
শুভসন্ধ্যা

৭| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:২৫

আরোগ্য বলেছেন: ইসিয়াক ভাই ষড়ঋতুর সৌন্দর্য আজকাল কবিতায় আবদ্ধ থাকে। বাস্তবে ষড়ঋতু তার বৈশিষ্ট্য হারাচ্ছে। কবিতা সুন্দর হয়েছে।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৮:২৮

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক সুন্দর মন্তব্যের জন্য আপনাকে হৈমন্তি শুভেচ্ছা

৮| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৪২

রাজীব নুর বলেছেন: লেখক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ । শুভকামনা রইলো।

জ্বী ধন্যবাদ।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ৯:৫২

ইসিয়াক বলেছেন: আইছেন যহন পিঠা খাইয়া যান । না কইলে বেজার হমু । এইডা হইলো বরিশাইল্যা রসালো পাকন পিঠা


স্বাদ কেমুন কইয়েন কিন্তু ?

৯| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:১৮

জগতারন বলেছেন:
কবিতা ভালো লাগল।
ব্লগার রাজীব নুর-কে পিঠা খাইতে দিয়াছেন;
এই পিঠাকে আমাদের ফরিদপুরে বলেঃ পাক্কস পিঠা
ইহা ময়দা, ডিম, নারিকেলের দুধ দিয়া বানায়; ঘি দিয়ে ভাঁজা হয়।
পরে গরম থকতে থাকতে চিনির শিরায় ডুবানো হয়।
ঠান্ডা হইলে পরের দিন সাক্কালে খাওয়া হয়।
অনেকটা রিসিগোল্লার মত।
বরিশাল্লারা ইহার মধ্যে দুধ দিয়া বসে। এর জন্য তাহাদের পিঠায় সাধও ভিন্ন হয়।
আমার খুউ প্রিয়া। আমার নানু, মা ও বোনেরা আমি বাড়িতে গেলে এই পিঠা বানাইতো।
কারন; তাহারা জানে ইহা আমার প্রিয়।

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১০:২৮

ইসিয়াক বলেছেন: কেমন আছেন স্বপন ভাই ?
আপনার অনুভূতি জেনে ভালো লাগলো।
শুভকামনা রইলো।

১০| ২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:১৪

শুভ্রনীল শুভ্রা বলেছেন: আপনার ছড়া পড়ে আবার সেই প্রাইমারি স্কুলে ভর্তি হতে ইচ্ছে হচ্ছে। সুর মিলিয়ে মিলিয়ে পড়তাম। নতুন বই পাবার পর প্রথম কাজ ই ছিল কত দ্রুততম সময়ে সবগুলো ছড়া মুখস্থ করে ফেলতে পারি !

২৮ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:২৪

ইসিয়াক বলেছেন: হা হা হা মন্তব্যে প্রীত হলাম । আসলে ছোটবেলায় নতুন বই পেলে বইয়ের গন্ধ শুকতাম অনেক সময় ধরে। তারপর কাজ ছিলো একে একে সুর করে কবিতা মুখস্থ করা । সেগুলো মনে হয় এখনো মনের মাঝে কাজ করছে মনের অজান্তে । যা হোক ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো। ধন্যবাদ ।

১১| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:০৮

আখেনাটেন বলেছেন: সুন্দর ছন্দময় কাব্য।

যদিও নতুন ধানের শিষের দোলায় আমাদের মন দুলে উঠে, কিন্তু বর্তমানে কৃষকদের মন শঙ্কায় দুলে উঠে, ধান বিক্রিতে উৎপাদন খরচ উঠবে তো। :(

ভাল্লাগছে লেখা। :D

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:২০

ইসিয়াক বলেছেন: কৃষকেরা অনেক কষ্টে আছে । বিশেষ করে ধান চাষীরা ।৩৩শতকে বিঘা জমির লীজ বাবদ আট হাজার টাকা । জমি চাষ ,জমির আগাছা ,ধান লাগানো নিড়ানি দেওয়া ,সার কীটনাশক। প্রাকৃতিক বৈরিতা । ধান কাটা ফসল রয়ে আনা । ঝাড়া বাছাই সংরক্ষণ এক বিরাট মাপের খরচ । সেই সাথে নিজের পরিশ্রম তো আছেই ।.....
সুন্দর মন্তব্যের জন্য অনেক ধন্যবাদ ।
শুভরাত্রি।

১২| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:৩৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: প্রিয় ইসিয়াক ভাই,

চতুর্পাশে সোনালী ধানের,
দিগন্ত প্রসার....
চমৎকার শাশ্বত গ্রাম বাংলার চিত্র এঁকেছেন।

শুভেচ্ছা জানবেন।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:৪৭

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ দাদা ।
সুপ্রভাত

১৩| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:১৩

বলেছেন: হিমের শীতল পরশে সোনা হোক।।

কবিতায় মুগ্ধতা।।।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ ভোর ৫:৫১

ইসিয়াক বলেছেন: হেমন্তের হিমে ভেজা শিশির স্নাত ঘাস
পূব আকাশে রক্ত রবি করিছে উল্লাস ।।
বাইরে এমনই দৃশ্য দেখতে পাচ্ছি আর প্রিয় ভ্রাতা আপনার মন্তব্যের প্রতি উত্তর লিখছি।
ভালো লাগা ।দোয়া রইলো।
সুপ্রভাত

১৪| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ৯:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: পাকন পিঠা খেতে ইচ্ছা করছে না।
যদি পারেন পাটিসাপটা বা বিবিখানা খাওয়ান।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১০:০২

ইসিয়াক বলেছেন: সুগার বেড়ে গেলে কিন্তু আমি দায়ী না হো হো হো ...
চুপিচুপি বলি এই পিঠার নাম কিন্তু আমি আগে শুনিনি ।

১৫| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:২৩

খায়রুল আহসান বলেছেন: হেমন্ত বাঙালীর জীবনে খুশীর ঋতু, সুখের ঋতু। কেননা এই ঋতুতেই কৃষকের ঘরে ঘরে নবান্ন ওঠে। তবে, হেমন্তের আগমন-প্রস্থান টেরই পাওয়া যায় না। এই আসে, এই যায়। তার মধ্যেও হেমন্তের রূপসৌন্দর্য প্রত্যক্ষ করে সুন্দর কবিতা লিখেছেন।
কবিতায় প্লাস + +

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:০৩

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক অনেক ধন্যবাদ শ্রদ্ধেয়।
শুভকামনা রইলো

১৬| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:২৬

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: সুন্দর কবিতা

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:০৪

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ আপু ।
ভালো থাকুন ।

১৭| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ সকাল ১১:৪১

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন:
হেমন্তের এই স্নিগ্ধ কবিতা পাঠ দারুন লাগলো।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:০৫

ইসিয়াক বলেছেন: অশেষ ধন্যবাদ মাইদুল ভাই

১৮| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১২:৪২

কিরমানী লিটন বলেছেন: চমৎকার ছান্দসিক- খুব ভালোলাগা.....

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ দুপুর ১:০৬

ইসিয়াক বলেছেন: লিটন ভাই ,
আশা করি ভালো আছেন ।
শুভেচ্ছা জানবেন

১৯| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৫

নীল আকাশ বলেছেন: হেমন্তকে শব্দের তুলিতে খুব সুন্দর বেঁধে ফেলেছেন। দারুণ।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:১৬

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ নীল আকাশ ভায়া।
শুভকামনা রইলো।

২০| ২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৯

রাজীব নুর বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ। সেই রকম হইছে।

২৯ শে অক্টোবর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৩৯

ইসিয়াক বলেছেন: ধন্যবাদ

২১| ৩০ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১১:৫৮

শিখা রহমান বলেছেন: বাহ!! ছন্দে ছন্দে হৈমন্তী রঙ ছড়িয়ে দিলেন মনে।

শুভকামনা কবি।

৩১ শে অক্টোবর, ২০১৯ রাত ১২:১১

ইসিয়াক বলেছেন: অনেক ধন্যবাদ আপু ।
শুভরাত্রি ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.