নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

হাসান সাখাওয়াত.....

তন্দ্রাকুমারী

তন্দ্রাকুমারী আমার নাম নয়। ইহা একটি কাল্পনিক চরিত্র। যদিও তন্দ্রাকুমারীর সন্ধানে আমি আছি!

তন্দ্রাকুমারী › বিস্তারিত পোস্টঃ

ব্যক্তিগত ডায়রির পাতা থেকে

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:১২


ভূমিকাঃ
ইচ্ছা ছিল ব্লগে গদ্য লিখবো না। কিন্তু আজ লিখছি। ইচ্ছার ধর্মই বদলে যাওয়া। কিভাবে শুরু করবো? গদ্য কিভাবে লেখে আবার! নিজেকে বারবার প্রশ্ন করছি। মন তুই উড়ে যা। উড়িয়ে দিলাম মনটাকে।

নিবেদনঃ
শুরুতেই মহান আল্লাহর নাম স্মরণ করছি। যিনি আমাকে জীবন দান করেছেন। আকাশে যখন নতুন কিছু ঘটে তখন সেটার উপর যার নিয়ন্ত্রণ থাকে, তিনিই আল্লাহ-এটাই আমার বিশ্বাস। যিনি পাশাপাশি দুটি ভিন্ন জলস্রোত আলাদাভাবে প্রবাহিত করেন কিন্তু একটি আরেকটিকে স্পর্শ করে না।

শুরুর কথাঃ
আমি আজ কথা বলবো ভাংগা প্রেম নিয়ে। আমার জীবন অনেকবার ভাংগা প্রেমের ভিতর দিয়ে গেছে। আমি যখন খুব ছোট, ক্লাশ ফাইভে পড়ি, তখন একটি মেয়েকে আমার ভাল লাগে। সংগত কারণে তার নামটা বলবো না। তার নামের আদ্যক্ষর হল ল। ল কে আমি ভালবেসে ফেলেছিলাম। যে ভালবাসা আমাকে আজও আটকে রেখেছে। ল এর বাম গালে একটা তিল ছিল।হাসলে সেখানে টোল পড়তো।আমি অবাক বিস্ময়ে তাকিয়ে থাকতাম। একটা মানুষ এতো সুন্দর হয় কিভাবে? যাই হোক, ল এর পারিবারিক পরিচয় যখন পেলাম, তখন বুঝলাম, ও হল আসমান আর আমি হলাম মাটি। কোনভাবেই মিলন সম্ভব না।

১৭ বছর পরঃ
একটা চাকরি পেলাম।ভাবলাম, ওকে বলে ফেলি মনের কথা। সেখানে কিছু আবেগঘন মূহুর্তের সৃষ্টি হলো। তবে মেনে নিতে শিখলাম, ও আসলে অসহায় ছিল। আমাকে জীবনের চেয়ে বেশি ভালবাসলেও ও আমাকে গ্রহণ করতে পারবে না।

তার কিছুদিন পরঃ
আমির খানের মান( Mann) মুভিটা দেখলাম, আর ফ্যান হয়ে গেলাম, হিন্দি রোমান্টিক ধাচের মুভিগুলোর। আমার খুব মায়া কাজ করলো। কী যে টান ছিল নায়ক-নায়িকাদের মধ্যে! যতবার দেখেছি ততবার কেঁদেছি।

নতুন প্রেমঃ
আমি র এর প্রতি দুর্বল হলাম। আমি বারবার নিজেকে বোঝালাম। মন বুঝলো না। সে বেকায়দায় পড়ে গেল। আমার দিকে সে যেভাবে তাকিয়েছে, তাতে বুঝলাম, প্রেম আমাকে আবার টানবে। আবার আমি লক্ষ্মী ছেলের মত, সবকিছুকে প্রেম না ভেবে সরে আসলাম।ভাবলাম আমি ভালবাসি একজনকে আর প্রেম অনুভব করছি আরেকজনের প্রতি! এ আমি কেমন আমি?

আবার নতুন আমিঃ
স দেখতে অনেকটা ল এর মতোই ছিল। আমি ওর কাছে ঋণী। কারণ সেই আমাকে ভাংগা প্রেমের বলয়ে ঢুকে যেতে সাহায্য করেছে।আমাকে একটু একটু করে প্রেমিক হতে সহায়তা করেছে।স, আমি তোমাকে সবচেয়ে বেশি মনে রাখবো।

ত এর সাথে পরিচয়ঃ
ত এর কথা বলতে গেলে বছরখানেক লাগবে। ত এর প্রেমে আমি আজও কবিতা লিখি।কবিতা পড়ি।কবিতায় বাঁচি।

উপসংহারঃ
আজ ভেবে দেখি, এগুলো ছিল ভাংগা প্রেম। কোনটাই শরীরের বাইরের কিছু না!

মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৩১

চাঁদগাজী বলেছেন:


ম্যাঁওপ্যাঁও ধরণের ব্যাপার স্যাপার

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৩৬

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: একটু বুঝিয়ে বলেন।

২| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৩২

চাঁদগাজী বলেছেন:


কোন শ্রেণীতে সর্বশেষবার গরুর উপর রচনা লিখেছিলেন?

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৩৬

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: মনে নাই।

৩| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৩৬

শরীফ বিন ঈসমাইল বলেছেন: এরকম গল্পের জন্য লেখক কে নোবেল দেওয়া হোক

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৮:৪৬

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: আমি আসলে কবিতা ছাড়া কিছুই বুঝি না আজকাল। কোন চান্স আছে গদ্য লিখে কারো মন জয় করার? টেনশনে ফেলে দিলেনতো!

৪| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৯:০৭

বলেছেন: নবেলের অন্যতম দাবিদার।।।।

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৯:১২

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: ভালা বলছেন। আপনার মুখে মিষ্টি, সন্দেশ পড়ুক।

৫| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৯:১৪

রাজীব নুর বলেছেন: াবেগকে কন্টোলে রাখলে ঝামেলা কম হয়।

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ১০:১০

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: উত্তম প্রস্তাব।।।

৬| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৯:২৮

জাহিদ অনিক বলেছেন:
ক্লাস ফাইভে আপনি প্রেম, ভালোবাসা বুঝে গিয়েছিলেন! এমাজিং !

১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ৯:৩৩

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: ভালবাসা তখনো ঠিকমতো বুঝি নাই, এখনও বুঝি না। বাট, ভালবাসা যদি বুঝেও ফেলি সম্পূর্ণ, তবুও ওই একজন এর কথাই আগে মনে আসবে।

৭| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ১১:০১

পথিক প্রত্যয় বলেছেন: শরীরের বাইরে কোন কিছুর প্রেমে পড়েন নি

২০ শে মে, ২০১৯ ভোর ৫:০৮

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: এখনো পড়ি নাই বোধয়। শেষ পর্যন্ত শারীরিক চেতনা এসে হাজির হয় মগজের মেঝেতে!

৮| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ১১:৪৭

মেঘ প্রিয় বালক বলেছেন: তোমরা কেউ কি দিতে পারো প্রেমিকার ভালোবাসা দেবে কি কেউ জীবনে উষ্ণতার সত্য আশা। আর্টসেল ব্যান্ডের এ গানটা আমার প্রিয় গান,কারন গানটার কথাগুলো আমার সাথে যায়। এজন্যই আপনাদের এসব প্রেমের গদ্য পদ্য পড়ে বলতে ইচ্ছে করে আমাকে একটু প্রেম বিষ দাও,আমি খেয়ে মরি।

২০ শে মে, ২০১৯ ভোর ৫:১১

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: এসব ব্যাপার বুঝা খুবই জটিল। কবে যে বুঝতে পারবো, আল্লাহ জানেন!

৯| ১৯ শে মে, ২০১৯ রাত ১১:৪৮

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: সুন্দর লিখেছেন তবে আরও ভালো লিখা চাই।
শুভকামনা রইলো।

২০ শে মে, ২০১৯ ভোর ৫:১৩

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: আরো সুন্দরভাবে যেন লিখতে পারি, দোয়া রাখবেন।

১০| ২০ শে মে, ২০১৯ সকাল ৯:৩১

বিদ্রোহী ভৃগু বলেছেন: উপসংহারই সত্য!

আপনি যেদিন প্রকৃত প্রেমের সন্ধান পেয়ে যাবেন, নজরুল গুরু যেমন বলেছেন-
নারী প্রেমের মধ্য দিয়ে মানব মনে প্রেমের যে বীজ রোপিত হয়, খৌদা প্রেমে তা পূর্নতা পায়!
যদি সেই স্তরে পৌঁঁছতে পারেন দেহের থেকে দেহাতীতে উত্তরনের সাফলতায়, তবেই ধরা দেবে সত্য প্রেম।

সহজ সরল লেখনিতে ভাললাগা থাকলেও লেখকের নান্দনিকতার মিশেল তাকে উপভোগ্য করে বৈকি!
আপনার গদ্য আরো সমৃদ্ধ হোক।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১:১০

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: আপনাকে অসংখ্য ধন্যবাদ। ব্যাপারটা আমাদের স্কুল, কলেজের শিক্ষাক্রমে থাকলে, বাঙ্গালি জাতি উপকৃত হতো।

১১| ২০ শে মে, ২০১৯ সকাল ১০:২৬

দেশ প্রেমিক বাঙালী বলেছেন: ব্লগে স্বাগতম।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১:১১

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: হৃদয়ের অন্তস্থল থেকে ধন্যবাদ।

১২| ২০ শে মে, ২০১৯ সকাল ১১:৪৩

অক্পটে বলেছেন: উপসংহারের যে খাঁটি সত্যটা বলেছেন মানুষ এর বাইরে যেতে পারেনা, কারণ আমরা মানুষ।
লিখে যান কারো খোঁচায় নিবৃত হবেন না।

২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১:১২

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: যাক, একজনতো আমার পক্ষে আছে, জেনে খুশি হলাম।

১৩| ২০ শে মে, ২০১৯ দুপুর ১:৪৮

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: ত আপনার ভাঙনহীন ভালবাসা হয়ে টিকে থাক আজীবন।

২০ শে মে, ২০১৯ বিকাল ৩:৫২

তন্দ্রাকুমারী বলেছেন: আমিন।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.