নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সায়ন্তন রফিক

অপেক্ষায় আছি কেউ একজন আসবেই আলোয় ভরিয়ে দেবে সব।

সায়ন্তন রফিক › বিস্তারিত পোস্টঃ

সবার মনে শুভ বুদ্ধি, বিশুদ্ধ বাসনা জাগ্রত হোক

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১২:৫০

বাংলা সন কোনো কালেই সার্বজনীন ছিলো না আর হবে না কোনো কালেই। তবু বাংলা সনের প্রথম দিনটিকে সার্বজনীন করবার প্রচেষ্টা প্রশংসা পেতেই পারে(?)। কিন্তু তাও কি পারা যাচ্ছে। আমাদের এখানে আজ পহেলা বৈশাখ। ভারতের বাংলায় কাল ১৫ এপ্রিল পহেলা বৈশাখ। বাংলার বরেণ্য সাহিত্যিক, রাজনীতিক, সমাজসংস্কারকদের জন্মমৃত্যুর তারিখ নিয়েও থাকছে এই বিভ্রাট। আছে আরও নানা বিভ্রাট।

তাই আমার ছন্দোবদ্ধ অভিব্যক্তি –

বৈশাখের বেরং বসন
--------------------
বাংলাদেশে সাজে পহেলা বৈশাখ
ওপার বাংলায় বাজে চৈত্র সংক্রান্তির ঢাক।
মহাকাশে বিস্ময়ে বিশাখা ভাবে
বাংলা নববর্ষ কবে
প্রতিবেশী বাঙালির মাঝে কেন এ ফারাক?
রফিক স্বভাবটা তোর বাজে
বাজে কথা রাখ।
চল রমনা বটমূলে কিংবা অন্য কোনো খানে
এক দিনের বাঙালি হয়ে
বৈশাখের বাণিজ্য মেলায় যাই।
সুদৃশ্য পাঞ্জাবি আর রংবেরঙের শাড়ির ভাজে
বেরং বসন দেখি
এবং পরম সুখে পান্তায় ইলিশ ভাজা খাই।
( ১৪ এপ্রিল ২০১৮)


ছন্দহীন অভিব্যক্তি –
-------------------

পহেলা বৈশাখকে বাড়ি ও জমির খাজনা, আয়কর, ভ্যাট আদায়ের উৎসবে পরিণত করলে কেমন হয় ?


তবুও সবার জন্যে থাকলো শুভ কামনা। সবার মনে শুভ বুদ্ধি, বিশুদ্ধ বাসনা জাগ্রত হোক।




মন্তব্য ১৮ টি রেটিং +২/-০

মন্তব্য (১৮) মন্তব্য লিখুন

১| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১২:৫৫

রাজীব নুর বলেছেন: মেলায় যাইরে...মেলায় যাইরে...মেলায় যাইরে......

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:০০

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: সবাইকে সাথে নিয়ে . . . ।

২| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:০৫

হাবিব স্যার বলেছেন: নববর্ষের শুভেচ্ছা

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:০৮

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: শুভেচ্ছা আপনাকেও।

৩| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:১১

তাজেরুল ইসলাম স্বাধীন বলেছেন: এপার ওপার নামটাই শুধু ভিন্ন। ভাব, ভাষা, সংস্কৃতি তো রয়েছে অনুরূপ সেই আগেরই মতো।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:১৬

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: বাংলা সনের পার্থক্য তো স্পষ্ট। অন্যান্য ক্ষেত্রেও পার্থক্য আছে।

৪| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:১২

আহমেদ জী এস বলেছেন: সায়ন্তন রফিক,




সবার মনেই শুভবুদ্ধির, বিশুদ্ধ বাসনার চাষাবাদ হোক................

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:১৮

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: চাষের জায়গা ক্রমশ অনুর্বর হয়ে উঠছে। শুভেচ্ছা।

৫| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১:৩৮

মাহমুদুর রহমান বলেছেন: দারুণ লিখেছেন।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:২০

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: খুশি হলাম। ধন্যবাদ।

৬| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৮

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:

এক দেশ হলে মিল থাকতে পারত।
এক বাংলা যখন থাকেনি তখন এই মিল খুঁজে আর লাভ নেই।

১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ বিকাল ৫:২৫

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: মনে রাখতে হবে বাংলা নববর্ষের উৎপত্তি দুটি দেশ আলাদা হওয়ার আগে হয়েছে। তাছাড়া আমরা অনেকেই কথায় কথায় বলি হাজার বছরের বাঙালি সংস্কৃতি। এই বাঙালি বলতে শুধু বাংলাদেশের বাঙালিদের বোঝায় না। মন্তব্যের জন্যে ধন্যবাদ।

৭| ১৪ ই এপ্রিল, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:০৭

আকতার আর হোসাইন বলেছেন: ভারতের বাংলায় আগামীকাল পহেলা বৈশাখ । মনটাই খারাপ হয়ে গেল।

০৬ ই মে, ২০১৯ সকাল ১০:৫৭

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: তাই? শুধু সহমর্মিতা জানানো ছাড়া আর কিইবা বলতে পারি। ভালো থাকুন।

৮| ১৫ ই এপ্রিল, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৯

বাংলার মেলা বলেছেন: এটা আমাদের নয়, সম্রাট আকবরদের সংস্কৃতি।
'ফসলী সন' নামের এই সনের ধারণা দেন আকবরের নবরত্নের একজন 'টোডর মল' - বাংলা ভাষায় ফারসী শব্দের আগ্রাসনে সবচেয়ে বেশি ভূমিকা ছিল এই কালপ্রিটের।
সেই রীতিতে ফসল কাটার মৌসুম 'অগ্রহায়ণ' ছিল বছরের প্রথম মাস। পরবর্তীতে বিশাখা দেবীর আরাধনার সুবিধার্থে বৈশাখকে প্রথম মাস করা হয়।
এই দিনের প্রধান অনুষঙ্গ ছিল হালখাতা খোলা। কিন্তু এখন সব ধরণের ব্যবসা বাণিজ্য গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসরণ করায় হালখাতার ধারণাও যুগপোযোগী না।

বুঝাই যাচ্ছে যে পহেলা বৈশাখ এখন কিছু পোশাক আশাক এবং লোক দেখানো উৎসবের মধ্যে সীমিত হয়ে পড়েছে যার কোন ভিত্তি নেই। তাই পহেলা বৈশাখকে 'না' বলুন। ইনিয়ে বিনিয়ে নয়। সরাসরি।

০৬ ই মে, ২০১৯ সকাল ১১:০০

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: 'পয়লা বৈশাখ মানি না মানবো না' - এভাবে?

৯| ০৬ ই মে, ২০১৯ রাত ৮:৪৮

মনস্বিনী বলেছেন: ভাল বলেছেন।

১২ ই জুন, ২০১৯ সকাল ১০:৫১

সায়ন্তন রফিক বলেছেন: ধন্যবাদ।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.