নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আমার নাম- রাজীব নূর খান। ভালো লাগে পড়তে- লিখতে আর বুদ্ধিমান লোকদের সাথে আড্ডা দিতে। কোনো কুসংস্কারে আমার বিশ্বাস নেই। নিজের দেশটাকে অত্যাধিক ভালোবাসি। সৎ ও পরিশ্রমী মানুষদের শ্রদ্ধা করি।

রাজীব নুর

আমি একজন ভাল মানুষ বলেই নিজেকে দাবী করি। কারো দ্বিমত থাকলে সেটা তার সমস্যা।

রাজীব নুর › বিস্তারিত পোস্টঃ

আমি ও চড়ুই পাখি

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:০৭



চড়ুই পাখির প্রতি আমার দুর্বলতা আছে।
একদিন অফিসের বেলকনিতে দাঁড়িয়ে লুকিয়ে সিগারেট খাচ্ছিলাম। অফিসের বেলকনিতে অনেক চড়ুই আসতো। তখন অফিসের পিয়ন আক্কাস বলল, স্যার একটা খেলা দেখবেন? আমি বললাম, কি খেলা? আক্কাস নিজের পায়ের স্যান্ডেল খুলে চড়ুই গুলোর দিকে উড়িয়ে মারলো। মুহুর্তের মধ্যে একটা চড়ুই মরে গেল। আমি প্রচিন্ড অবাক! প্রচন্ড মর্মাহত! আমি কোনো দিন কাউকে মারি নি। সেদিন পিয়ন আক্কাস আলীকে একটা চড় দিয়েছিলাম। এই জন্য আমার একটুও অপরাধবোধ হয়নি। চড়ুই পাখি ফসলের কোনো ক্ষতি করে না। বরং পোকামাকড় খেয়ে কৃষকের উপকার করে।



একসময় ক্যামেরা কাঁধে নিয়ে সারাদিন ঘুরে বেড়াতাম।
ছবি তুলতে কখনও গ্রুপ বেঁধে যেতাম, কখনও একা একা যেতাম। ভালো কোনো সাবজেক্ট পেলেই সাথে সাথে ছবি তুলে নিতাম। আর এখন আগের মতো ছবিই তোলা হয় না! কিছুদিন আগে কোলকাতা গেলাম, সেখানেও ক্যামেরা নিয়ে যাই নি। তবে মোবাইল দিয়ে কিছু ছবি তুলেছি। যাই হোক, একদিন কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ে গিয়েছি। সেখানে গিয়ে দেখি অনেক চড়ুই পাখি! কম পক্ষে ৪/৫ শ' চড়ুই হবে। একসাথে এত চড়ুই আমি আগে কখনও দেখিনি। ঝটপট ক্যামেরা বের করে বেশ কিছু ছবি তুলে নিলাম। কৃষক জমিতে কীটনাশক ব্যবহার করে তাতে নিরিহ চড়ুই গুলো মারা পড়ে।



সামনে পরীক্ষা। পড়তে বসেছি।
বাইরে তখন তুমুল ঝড় তুফান হচ্ছে। আমি ঝড় তুফান উপেক্ষা করে একমনে পড়ে চলেছি। সারা বছর না পড়লে পরীক্ষার আগে পড়তে বসতে হয়'ই। ঠিক তখন একটা চড়ুই পাখি কোথা থেকে এসে আমার পড়ার টেবিলে পড়লো। ঝড় তুফানে চড়ুইটা বেশ আহত হয়েছে। পাখিটাকে দেখে বেশ মায়া লাগলো। সারারাত পাখিটার সেবা যত্ন করলাম। আমার সেবাতে কাজ হলো। আল্লাহর রহমতে পাখিটা এক রাতেই সুস্থ হয়ে উঠলো। সকালবেলা পাখিটা খোলা আকাশে ছেড়ে দেই। চড়ুই মানুষের কোনো ক্ষতি করে না। কিন্তু মানুষ প্রতিনিয়ত চড়ুই এর ক্ষতি করে যাচ্ছে।



আমি তখন অনেক ছোট।
আমাদের বাসায় চড়ুই পাখির বাসা বেঁধে ছিল। ভেন্টিলেটরের ভেতর খুব সুন্দর করে বাসা বানিয়েছিল। পুরো একটা পরিবার থাকতো। প্রতিদিন ভোরে সব গুলো চড়ুই একসাথে কিচির মিচির করতো। ঘুম ভাঙতো আমাদের ওদের কিচির মিচিরের শব্দে। আমি নিয়মিত চড়ুই গুলোর উপরে খেয়াল রাখতাম। ভেন্টিলেটর অনেক উঁচুতে ছিল। আমি নাগাল পেতাম না। মই বেয়ে উপরে উঠতাম। ওরা সকালে বাসা থেকে বের হলে, ওদের বাসায় চাল, ডাল এবং আটা রুটি টুকরো টুকরো করে রেখে আসতাম। আপনাদের সবার কাছে আমার অনুরোধ, প্রতিদিন ঘরের বারান্দায়, জানালায় ছোট পাত্রে সামান্য চাল, ভাত, পানি রাখুন চড়ুই এর জন্য।

একবার দলবেধে ফোটোওয়ার্কে গিয়েছিলাম।
ঢাকার কাছে এক গ্রামে। সেখানে ঝোপঝাড়ে ছবি তুলতে গিয়ে এক গাছে উঠি। গাছ থেকে লাফিয়ে নামার সময় অসাবধানবশত পড়ে যাই। আত্মরক্ষার জন্য গাছের ঢাল ধরতে গিয়ে একটা চড়ুই পাখির বাসা ভেঙ্গে ফেলি। চড়ুইয়ের বাসায় ছিল হালকা সবুজ চারটা ডিম। চড়ুই পাখির চারটা ডিম ভেঙ্গে মাটিতে পড়ে ভেঙ্গে গিয়েছিল। ডিম গুলো ভেঙ্গে যাওয়াতে আমার ভীষন মন খারাপ হয়। নিজেকে অপরাধী মনে হয়েছিল। চড়ুই পাখি সর্ব্বোচ চারটা ডিম দেয়। বাচ্চা ফুটানোর জন্য দুই সপ্তাহ ডিমে তা দিতে হয়। এ পৃথিবী শুধু মানুষের জন্য নয়, চড়ুইয়েরও, তা মানুষ বুঝে উঠবে কবে!

চড়ুই পাখি সম্পর্কে কিছু তথ্য

১। চড়ুই পাখি মানুষের আশে পাশে থাকতে পছন্দ করে।
২। পৃথিবীতে মোট ৪৮ প্রজাতির চড়ুই দেখতে পাওয়া যায়।
৩। একটা চড়ুই পাখির দেহের দৈর্ঘ্য প্রায় ১৫ সেন্টিমিটার এবং ওজন প্রায় ২০ থেকে ২৫ গ্রাম।
৪। প্রতিবছর ২০ মার্চ পৃথিবীব্যাপী পালিত হয় বিশ্ব চড়ুই পাখি দিবস।
৫। এক শ্রেণির নির্বোধ মানুষ মনে করে, চড়ুই পাখির মাংস খেলে যৌনক্ষমতার বৃদ্ধি ঘটে।
৬। সারা দিনে একটি চড়ুই পাখি মাত্র পাঁচ থেকে সাত গ্রাম খাবার খায়।

ছবি গুলো আমার তোলা।

মন্তব্য ৬৪ টি রেটিং +৭/-০

মন্তব্য (৬৪) মন্তব্য লিখুন

১| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:১২

হাবিব স্যার বলেছেন: দুইটা চড়ুই পাখি আমার অফিসের জানালায় এসে উড়াউড়ি করে। দেখতে ভালো লাগ। ধরতে গেলে চলে যায়।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:২০

রাজীব নুর বলেছেন: ধরতে যান কেন? ওদের বিরক্ত করবেন না।
জানালায় কিছু খাবার দিয়ে রাখবেন সব সময়।

২| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:১৩

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: বাহ চমৎকার পোষ্ট অনেক শুভেচ্ছা নিবেন---------

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:২০

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ লিটন ভাই।

৩| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪১

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: েআরে গতকাল আমি চড়ুই পাখি ভিডিও করেছি
আর ছবিও তুলেছি। আরেকদিনও চড়ুইয়ের পিছে লেগেছিলাম অফিসের বারান্দায় ওদের উড়াউড়ি
অনেক ভালো লাগে আমার

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৯

রাজীব নুর বলেছেন: ভিডিও এবং ছবি গুলো দেন। দেখি।

৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৪২

ইসিয়াক বলেছেন: এটা কি রিপোষ্ট?
আজকাল লেখা লেখিতে মনোযোগ কম ..।আড্ডা বেশী হয়ে যাচ্ছে.....ব্লগিং এ মনোযোগ দিন দোস্ত।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫১

রাজীব নুর বলেছেন: না রিপোষ্ট না।
একেবারে নতুন পোষ্ট।
রিপোষ্ট দিলে সেটা উল্লেখ করে দিতাম।
আড্ডাও দেই।
অবশ্যই মনোযোগ আছে।

৫| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৫১

সাইফ নাদির বলেছেন: চড়ুই পাখি আমারও খুব পছন্দের পাখি। ভালো লাগলো চড়ুই নিয়ে লেখাটা পড়ে। তথ্যগুলো পড়ে চড়ুই সম্পর্কে জানতে পারলাম। অসংখ্য ধন্যবাদ

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ সাইফ ভাই। ভালো থাকবেন।

৬| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০৮

নুরহোসেন নুর বলেছেন: চুড়ই হচ্ছে সাহসী পাখি,
এরা মানুষের কাছাকাছি থাকতে পছন্দ করে মানুষের সাথে তাদের যেন চুম্বকের টান;
তাইতো তারা মানুষের আবাস্হলে বাসা বাঁধে মনের মতন।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫২

রাজীব নুর বলেছেন: জ্বী। ঠিক বলেছেন।

৭| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:১৫

বাকপ্রবাস বলেছেন: আমরা তখন ভাড়া বাসায় থাকতাম। ভেন্টিলেটারে চড়ুই বাসা। খড় দিয়ে বাসা বানাতো আর কিচির মিচির। কখনো বিরক্ত লাগতনা, কিচির মিচিরে যেন সঙ্গ পেতাম এক থাকলে।
মাঝে মাঝে সিলিং ফ্যান এর সাথে লেগে মারা পড়তো। খুব খারাপ লাগত এভাবে একটা মৃত্যু। মায়া লাগত।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৩

রাজীব নুর বলেছেন: মায়া ব্যাপারটা সমসত মানুষের মধ্যে থাকা উচিত।

৮| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৯

আরাফআহনাফ বলেছেন: আমার বাসায় অনেক সময় ঢুকে পড়ে চড়ুইরা।
আমি সাথে সাথে বাসার ঐ রূমের ফ্যান বন্ধ করে দেই, জানালা খুলে দেই - অক্ষতভাবে যেন বের হয়ে যেতে পারে। অনেক সময় এরা বের হতে পারে না তখন সাবধানে ধরে ফেলে বের করে দিই। যখন ধরি তখন দেখি খুব ভয় পেয়েছে - তাদের বুকের কাঁপন শুনতে পাই যেন !! ! সে কী অস্হিরতা -

চড়ুইয়ের জন্য আপনার ভালোবাসা দেখে মুগ্ধ হলাম।

ভালো থাকুন।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: সবার এরকমই কথা উচিত।

৯| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৫৫

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: মোবাইলে সব । কাল পোস্ট দেবো নে ভাইয়া

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:১১

রাজীব নুর বলেছেন: ওকে।

১০| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:১৩

জুল ভার্ন বলেছেন: অসাধারণ! +

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ।

১১| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:১৭

চাঁদগাজী বলেছেন:



বাংলাদেশের কোন চড়ুই প্রজাতি গাছে খোলা বাসা (বাবুই'র মতো আবদ্ধ নয়) বাঁধে?

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৬

রাজীব নুর বলেছেন: চড়ুই পাখি গাছে বাসা বাধে না।

১২| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:২৬

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন: সুতরাং এটা একটা দারুন জিনিস।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৬

রাজীব নুর বলেছেন: হুম।
হুম হুম।
হুম হুম হুম।

১৩| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৪০

কনফুসিয়াস বলেছেন: আচ্ছা, পিয়ন আক্কাস কি আপনার উপর রাগ করেছিল?

পাখির ৪ টি ডিম ভেংগে আপনার খারাপ লাগায় কি করে এর প্রাশ্চিত্ব করলেন?

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: পিয়ন আক্কাস অবশ্যই রাগ করেছে। কিন্তু সে নিজেও বোধহয় লজ্জিত।

১৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৪

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
বাংলাদেশের মানুষ কোন প্রাণীর প্রতিই সদয় নয়।
চড়ুই পাখি তো দূরের কথা । তারা এমন কি মানুষের প্রতিও সদয় নয়।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:৫৮

রাজীব নুর বলেছেন: আপনিও তো বাংলাদেশের মানুষ।

১৫| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৪

চাঁদগাজী বলেছেন:


লেখক বলেছেন, " চড়ুই পাখি গাছে বাসা বাধে না। "

-আপনার পোষ্টে বলেছেন যে, ঢাকার অদুরে এক গ্রামে গাছে ছড়েছিলেন; গাছ থেকে পড়ার সময় হাতে লেগে চড়ুই পাখার বাসা ভেংগে গেছে, ডিম পড়ে ভেংগে গেছে!

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:০৯

রাজীব নুর বলেছেন: সেটা তো ঠিক।
কাক চড়ুই এর ডিম চুরী করে নিয়ে এসেছে।
সেই ডিম।

১৬| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৮

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমার ছাদে সারা বছর পাখিদের জন্য খাবার দেয়া থাকে-

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩৪

রাজীব নুর বলেছেন: ভেরি গুড।

১৭| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:৪৩

বনসাই বলেছেন: চড়ুই পাখি গাছেও বাসা বানায়।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: যে সমস্ত চড়ুই এর মাথা নষ্ট এবং মিলেমিশে থাকতে পারে না তারা গাছে বাসা বানায়।

১৮| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:২৯

খায়রুল আহসান বলেছেন: চড়ুইয়ের জন্য আপনার ভালোবাসা দেখে মুগ্ধ হলাম - আরাফআহনাফ এর মত আমারও ঐ একই কথা।
চড়ুই পাখি নিয়ে আমার একটি স্মৃতির কথা মনে করে আমি একটি ইংরেজী কবিতা লিখেছিলাম, তবে সেটা ছিল ইংরেজীতেঃ
The Sparrow And The Lesson

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩৬

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ শ্রদ্ধেয় মন্তব্য করার জন্য।

১৯| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩১

ঠ্যঠা মফিজ বলেছেন: আপনার জন্য জানা হলো চড়ুই পাখি সম্পর্কে এত সুন্দর তথ্য ।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৩৭

রাজীব নুর বলেছেন: শুকরিয়া। ভালো থাকুন।

২০| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:০১

প্রকৌশলী মোঃ সাদ্দাম হোসেন বলেছেন: ছোট বেলায় আমাদের বাড়ির ভেন্টিলেটরের এক চড়ুই পাখি ধরতে গেলে পাখিটা উড়াল দেয়, আর তখনি চলন্ত সিলিং ফ্যানের সাথে বারি খেয়ে আমার চোখের সামনেই মারা যায়। নিজেকে অপরাধী মনে হতে থাকে। এখনো মনে পরলে এই ব্যাপারটা আমাকে পীড়া দেয়, আজও নিজেকে ক্ষমা করতে পারিনি। আপনার লেখাটা পড়ে সেই ঘটনাটা আবারো মনে পড়ে গেলো।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:০৭

রাজীব নুর বলেছেন: চড়ুই পাখির এই মৃত্যুতে আপনার পুরোপুরি দোষ নেই।

২১| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:৩১

স্বপ্নময় স্বপ্নের পথচারী বলেছেন: চড়ুই পাখির মাংস অনেক টেস্টি | আমি প্রায়ই খাই | আপনাকেও একদিন খাওয়াবো

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১৩

রাজীব নুর বলেছেন: আমি খাবো না।
এক চিমটিও খাবো না। নো নেভার।
এবং আপনিও খাওয়া বন্ধ করেন।

২২| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৭:২৮

ডঃ এম এ আলী বলেছেন: চড়ুই পাখী নিয়ে বেশ তথ্যপুর্ণ পোষ্ট ।
চিরক-চিরক-চিরক শব্দে যে আমাদের বাসা-বাড়ি চারদিকে মুখরিত করে রাখে , একটি ভ্রান্ত ধারণার কারনে মরতে হচ্ছে সেই চড়ুই পাখিদের। চড়ুই পাখির মাংস খেলে মানুষের যৌনক্ষমতার বৃদ্ধি ঘটে– এ ভুল বিশ্বাসের ফলে এয়ারগানসহ নানা ধরনের বন্দুকের গুলির আঘাতে শহরে-গ্রামে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়তে হচ্ছে নিরীহ চড়ুইদের। পুরুষ চড়ুই পাখিটিকে যৌন সঙ্গমের সময় বারবার স্ত্রী চড়ুইয়ের ওপরে উঠতে দেখা যায় বলে কিছু মানুষের ধারণা এমন যে, পুরুষ চড়ুইটির যৌন ক্ষমতা অনেক। তাই তার মাংস খেলেও উপকার পাওয়া যাবে। আসলে এসব ধারণা পুরোপুরি ভুল। পুরুষ চড়ুইয়ের এমন ঘন ঘন আচরণের একমাত্র কারণ- সে যৌনকর্মে অদক্ষ। চড়ুই ছোট প্রাণী বলে তাদের শরীরের যৌনতার স্থানে ছোট ছিদ্র অবস্থিত। তাই পুরুষটিকে ওই ছিদ্রে লক্ষ্য স্থাপনের জন্য বহুবার বহু সময় ধরে চেষ্টা চালিয়ে যেতে হয়। প্রকৃতিগত ভাবেই তারা এমন। চড়ুই পাখী নিয়ে
আপনার পোষ্টের মুল্যবান তথ্যটির কল্যানে মানুষের ভ্রান্ত ধারনা ঘুচে যাক এই কামনাই রইল । বন্ধ হোক অকারণে চড়ুই নিধন ।

গাছের চড়ুই পাখীর সংখ্যা দেশে কমে যাচ্ছে। বিষয়টির প্রতি পাখী প্রেমিকদের দৃস্টি দেয়া প্রয়োজন ।

শুভেচ্ছা রইল

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১৫

রাজীব নুর বলেছেন: শুধু পাখি প্রেমীদের দৃষ্টি আকর্ষন করলে হবে না। দেশের সব মানুষের এ বিষয়ে সজাগ থাকা দরকার।

২৩| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৮:০১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:

বাংলাদেশের মানুষ কোন প্রাণীর প্রতিই সদয় নয়।
চড়ুই পাখি তো দূরের কথা । তারা এমন কি মানুষের প্রতিও সদয় নয়।


লেখক বলেছেন: আপনিও তো বাংলাদেশের মানুষ।


আমাকে সহই বলেছি। ১৮ কোটির মধ্যে আমিও এক জন । আপনিও আরেক জন।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:১৬

রাজীব নুর বলেছেন: কিন্তু আমি তো কারো জন্য হুমকি স্বরুপ না।

২৪| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ৯:৫৪

মোঃ মাইদুল সরকার বলেছেন: চড়ুই তত্ত্ব ভাললাগলো।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:০৭

রাজীব নুর বলেছেন: ধন্যবাদ মাইদুল ভাই।

২৫| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:১৫

জুন বলেছেন: আমাদের দেশের মানুষ যে কি নিষ্ঠুর। জীব জানোয়ার এর প্রতি দয়ামায়ার ব্যপারে পারিবারিক ভাবে শিক্ষার প্রয়োজন আছে বলে মনে করি। সেদিন তিনটি বাচ্চা ছেলে একটি বিড়াল ছানাকে গলায় দড়ি দিয়ে বারান্দার বাইরে ঝুলিয়ে রেখেছে। বিড়াল ছানাটির অসহায় ভীত আর্তানাদে তারা হাসিতে ফেটে পরছে। এরাই বড় হয়ে মানুষকে মেরে ফেলতে দ্বিধা করে না বলেই আমার মত রাজীব নুর।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০০

রাজীব নুর বলেছেন: জুন আপনি চমৎকার মন্তব্য করেছেন।
ছোট ছোট অপরাধ করতে-করতে একদিন বড় অপরাধ করে।

২৬| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:২৭

তারেক ফাহিম বলেছেন: চড়ুুই পাখিকে নিয়ে লেখা ভালো লাগলো-

চড়ুই পাখিদের সাথে আমার শৈশবের স্মৃতি আছে অনেক।

চড়ুই পাখিদের নিয়ে প্রবাধও ছিল আমাদের শৈশবের সাথে- চড়ুই পাখি বারোটা ডিম পেড়েছে তেরোটা একটা ডিম নষ্ট চড়ুই পাখির কষ্ট”।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০২

রাজীব নুর বলেছেন: এই প্রবাদ দিয়ে আমরা খেলতাম। বরফ পানি।

২৭| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১:২৯

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: বাহ! বেশ চমৎকার লাগলো চড়ুই সম্পর্কে মনোজ্ঞ লেখাটি। খুঁটিনাটি অনেকগুলো বিষয় উঠে এসেছে ভায়ের পোষ্টের মাধ্যমে। পোস্টে লাইক।
আরাফআহনাফ ভায়ের মন্তব্যটি ভালো লেগেছে।
শুভকামনা প্রিয় ছোট ভাইকে।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:০২

রাজীব নুর বলেছেন: দাদা নতুন একটি ধারাবাহিক শুরু করুন।

২৮| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ২:৩৫

বিজন রয় বলেছেন: "চড়ুই পাখির সারা জীবন"... এবি নামে একটি গল্প লিখেছিলাম আজ থেকে প্রায় ২৬ বছর আগে।

আপনার এই পোস্ট দেখে সে কথা মনে পড়ল!!

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০০

রাজীব নুর বলেছেন: ২৬ বছর আগের গল্প টা পড়তে চাই।

২৯| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৩:৫৪

রুমী ইয়াসমীন বলেছেন: সুন্দর পোস্ট করেছেন ভাইয়া চড়ুই সম্পর্কে কিছু তথ্য জানলাম আপনার লিখাতে।
আমি মনে করি আমরা সবাই পাখি খুব ভালোবাসি হাতেগোনা দু'একজন ব্যতিরেকে। পাখিদের প্রতি বিশেষ করে চড়ুই পাখিদের প্রতি আমাদের বিশেষ মায়ারর নজরে দেখা দরকার! কারণ এরা বাসা বাড়িতে বাসা বাঁধে বলে অনেকেই মহা বিরক্ত হয়ে বাসা ভেঙে বাহিরে ফেলে দিতো যা নিজ চোখে দেখে সত্যি অনেক খারাপ লাগতো। :(

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০২

রাজীব নুর বলেছেন: জীবে প্রেম করে যেই জন, সেই জন সেবিছে ঈশ্বর

৩০| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০২

বিজন রয় বলেছেন: বই বের হলে পড়তে পারবেন।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০২

রাজীব নুর বলেছেন: ওয়াও।
বই বের হচ্ছে নাকি এবার??

৩১| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:০৫

বিজন রয় বলেছেন: না। এবার না। দেরি হবে।
আমি যেনতেন লিখে বই বের করতে চাইনা।
তাই কোন ব্যস্ততা নেই।

পরীবাগের ওভারব্রীজ অনেক দিন পার হইনি।

আপনি?

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৪:৪৩

রাজীব নুর বলেছেন: সপ্তাহে একবার যাই পরীবাগ যাই।

৩২| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৫১

মোহাম্মদ সাজ্জাদ হোসেন বলেছেন:
লেখক বলেছেন: কিন্তু আমি তো কারো জন্য হুমকি স্বরুপ না।

অমন কথা জর্জ বুশ সাহেব বলেছিলেন।
ডোনাল্ড ট্রাম্প ও বলেন।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:২৫

রাজীব নুর বলেছেন: তাহলে এখন উপায়?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.