নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

দীপ ছিলো, শিখা ছিলো, শুধু তুমি ছিলেনা বলে...

শায়মা

দিয়ে গেনু বসন্তেরও এই গানখানি বরষ ফুরায়ে যাবে ভুলে যাবে, ভুলে যাবে,ভুলে যাবে জানি...তবু তো ফাল্গুন রাতে, এ গানের বেদনাতে,আঁখি তব ছলো ছলো , সেই বহু মানি...

শায়মা › বিস্তারিত পোস্টঃ

প্রিয় থেকে অপ্রিয় হয়ে যাওয়া মানুষেরা/ব্লগারেরা......

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:১৯



এই জীবনে চলার পথে কত শত মানুষের মুখ হৃদয়পটে আঁকা হয়ে যায়। কত শত মুখ হৃদয়ের মনিকোঠায় গেঁথে থাকে, কত শত মুখ হারিয়ে যায়। ঠিক তেমনই ব্লগে চলার পথেও কত শত নিকের সাথে পরিচয় হয়, গড়ে সখ্যতা এবং কারো কারো সাথে চরম শত্রুতা বা বিরক্তিতা। কারো কারো নিক দেখলেই মুখ হাসি হাসি হয়ে ওঠে, মন আনন্দে আনচান করে আবার কারো কারো নিক দেখলেই গা জ্বলে যায়, মনে হয় টুঁটি চেপে ধরি। এসবই ব্লগীয় শত্রুতা, ব্লগীয় সখ্যতা কিংবা বিরক্তিতা। সত্যিকারের সামনের মানুষ হলে সব কিছুই হয়ত অন্যরকম হত। হয়ত কথাও হত না কারো কারো সাথে। ফিরেও তাকাতাম না। কেউ কেউ ধারে কাছেও আসতো না হয়ত। ব্লগের এই নিকগুলো আমাদের হৃদয়ের মনিকোঠায় স্থান পায় সখ্যতায় কিংবা অমিত্রতায়। সে যাই হোক না কেনো হঠাৎ বা ক্রমে তারা অনেকেই হারিয়েও যায়। এমন কত শত নিক হারিয়ে গেছে। ফেলে গেছে ভালোলাগা বা ভালোবাসার ছায়া। তাদের নিয়ে অনেক লিখেছি। আজ লিখতে চাই যারা ছায়া ফেলে গেছে ইতিবাচক স্মৃতির জায়গায় অবশেষে নেতিবাচক স্মৃতিগুলি।

সেটা ছিলো ২০১২ এর কথা। ব্লগে যদি আমার কাছে চির স্মরনীয় কোনো প্রিয় থেকে অপ্রিয় হয়ে যাওয়া মানুষ থাকে সে ছিলো তাদের মাঝে অন্যতম! কারণ তিনি যেমনই খুব দ্রুত প্রিয় থেকে প্রিয়তর হয়ে উঠেছিলেন আমিসহ অনেকেরই। ঠিক তেমনই খুব দ্রুতই অপ্রিয় হয়ে গেছিলেন তিনার স্বভাবজাত অভব্য আচরণের কারণে আমিসহ অন্যান্য সকলের কাছেই। আজীবনের প্রিয়, আমার দেখা বুদ্ধিমান প্রাণীদের মাঝে সর্বশ্রেষ্ঠ বুদ্ধিমান ব্যক্তি জিনিভাইয়া একটা কথা বলেছিলো, লজিক্যাল মানুষের সাথে তর্ক চলে, বিতর্ক চলে, ঝগড়া চলে, বিবাদ চলে কিন্তু যাদের ব্রেইন ডিফেক্ট আছে তাদের সাথে কিছুই চলে না। তাহারা সকল কিছুর উর্ধে। হা হা হা । আমি কার কথা বলছি তা হয়ত এখনকার ব্লগের কোনো ব্লগারেরাই আঁচ করতে পারবে না। একমাত্র অপু ভাইয়ু হয়ত আঁচ করছে আর মডু ভাইয়ু যদি এই পোস্ট পড়ে। :)

এরপর আরেকজনকে মনে পড়ে। সেটাও ২০১২ এর কথা। সে যে আমার সাথে ছায়ার লড়াই বোধ করে সে অনেক পরে বুঝেছিলাম আমি। সামনে এক আর পিছে আরেক রুপে যখন তাকে আবিষ্কার করি তখন এমন মেজাজ খারাপ হয়েছিলো যে একখানা লম্বা চওড়া ছড়ায় তাহার চৌদ্দ গুষ্ঠি উদ্ধার করেছিলাম আমি। কি করবো এটা তো ব্লগ আর নিকের সাথে নিকের যুদ্ধ তাই লেখার সাথে লেখার লড়াই। সত্যিকারে সামনে পেলে হয়ত কিছুই করতাম না। শুনেছিলাম সে নাকি এই সব লড়াই এ এডিক্টেড হয়ে গিয়ে মেডিকেলের কোন পরীক্ষায় ফেইল করেছিলো। জানিনা সত্য না মিথ্যা । কিন্তু খারাপ লেগেছিলো এটা ভেবে যে বেচারা লড়াইকারী কোনটার প্রায়োরিটি বেশি সেটা বুঝার মত বয়স হয়নি তাহার। :( ছায়ার সাথে লড়াই করতে গিয়ে বাস্তব জগতের সর্বনাশ ডেকে আনলো। মিররমনি মনে হয় বুঝে গেলো কোন ছড়াটার কথা বললাম।

তখন মনে হয় ২০১৩ বা ২০১৪। ব্লগে এক কবিভাইয়ার সাথে মহা সখ্যতা গড়ে উঠেছিলো আমার। তিনি আমার আদরের ভাইয়ুমনিতা ছিলেন। সে সময়ের আমার অনেক প্রিয় ভাইয়ু আপুনি ব্লগপোস্টে তাহার নামও আছে। ভালোই চলছিলো সব। হঠাৎ ব্লগে আবির্ভূতা হইলেন আরেক কবিনী আপুনি। দুইজনের মাঝে সকলের সামনেই গড়িয়া উঠলো মহা কবি শেলিটাইপ প্রেম আর সেই প্রেমের বলিদান হয়ে গেলাম আমি। কবিনী আপুনী ঐ কবি ভাইয়ার আইডি থেকে হঠাৎ একদিন যাচ্ছেতাই করে আমাকে বলতে শুরু করলো। আমি তো আকাশ থেকে পাতালে! হায় হায় আমার প্রিয় ভাইয়ুমনিতার কি হলো!!! পরে মেসেঞ্জারে নক করে বুঝলাম। ভাইয়ামনিতাও সেই প্রেমের বলিদান ছিলো। মানে ভাইয়ার ব্লগ নিক পাস এবং মেসেঞ্জার পাস সবই আপুনির হাতে ছিলো। আর আমাদেল ভাইয়ু আপুনি সখ্যতাকে আপুনি অন্য কিছু ভেবে এক্কেবারে ঝাঁটা হাতে তেড়ে এসেছিলো। বাপরে!!! বড় বাঁচা বেঁচে গেছি। তারপর তাহারা দুইজনাই কোথায় যে উধাও হইয়া গেলো!!! মাঝে মাঝেই মনে পড়ে! মডু ভাইয়া বুঝতে পারবে কাহারা ছিলো তাহারা। সেই বছরই বর্তমান মডুভাইয়া নতুন মডু হয়ে আসেন। :)

২০১৫ এর ঘটনা সেটা। আমরা বেশ কয়েকজন সখ্য হয়ে উঠি। আর এই ব্লগের এক আদি সমস্যা, যখনই কেউ কেউ সখ্য হয়ে ওঠে তখনি কিছু হিংসুটে ছিচকাঁদুনীরা লেগে যায় পিছে। ঐ আমারে কেনো তোরা খেলায় নিস না, সারাদিন অং বং আড্ডা মারে, যতসব বেহায়া, বেতমিজ ব্লগের কলঙ্কগুলা। এইগুলি ব্লগে করে নাকি? ব্লগ হইলোক এক এমনই মহান স্থান যেখানে সবাই গুরু গম্ভীর চালে বক্তব্য জানাইবেক! তানা নিজেরা নিজেরা হা হা হি হি। আমারে তো পাত্তাও দেয় না। এ্যাএ্যা এ্যা....... নাকি কান্না কাঁদে। মানে নিজেরা ঐ দলছুট মনে করে ব্যাস শুরু করে দেয় টানা টানি । এই আমার দিকে তাকা। তাকাস না কেনো হ্যাঁ? সারাদিন নিজেরা কয়জনা মিলে কি করিস আবোল তাবোল? এই সব ঘ্যান ঘ্যান প্যান প্যান করে তাদের মাথাটাই খারাপ হয়ে যায়। ঠিক তেমনই একজন ছিলো সে। অনেক কষ্টে নিজেকে দলভুক্ত করার চেষ্টা করেও তার পাগলামী কমে না। না না রকম অভিনয়ে অতিষ্ঠ করে তোলে আমাদের জীবন। শেষে ভাঙ্গন ধরিয়ে নিজের পায়ে নিজেই কুড়াল মেরে হারিয়ে যায় অজানায়। :( তবে অজানায় হারানোর আগে আরও বার কতক নানা রুপে নানা রঙ্গে নানা ঢ্ঙ্গে রামধনু রঙ্গে উদয় হয়েছিলো সে আমাদের ব্লগাকাশে। হামা বু্দ্ধিমান ভাইয়ু এই ব্লগ পড়লে মুচকি হাসিবেন এবং বিরক্ত হইবেন। মনে মনে বলিবেন নাহ শায়মা আন্টি আর মানুষ ওপস ব্লগার হইলো না। এখনও মাথায় নার্সারী প্লে গ্রুপ!! :)


এরপর আসি এক শিল্পী আপুনির গল্পে। সেটা মনে হয় ২০১৭ এর কথা। আবারও বলছি তর্ক বিতর্ক ঝগড়াঝাটি তাহাদের সাথেই চলে যাহাদের ব্রেইন ঠিক থাকে। উহা না থাকিলে সকলই বৃথা। হায় আমার অতি আদরের সেই শিল্পী আপুনি একদিন সকালে দুঃস্বপন দেখিটা জাগিয়া উঠিয়া বিশাল লম্বা চওড়া পোস্ট লিখিলেন। উনার চিত্রকর্ম নাকি চুরি হইয়াছে। মানে আমি নাকি দুনিয়ার এত শত ইন্টারনেট ভরা চিত্রকর্ম ছাড়িয়া উনার চিত্রকর্ম দেখিয়া চিত্র আঁকিতেছি। আমি হাসবো না কাঁদবো ভেবে ভেবে শেষ পর্যন্ত বিরাশি সিক্কা ওজনের থাপড় বাগাইয়া আনিবার আগেই আপুনিটা হাওয়ায় হারাইয়া গেলো। হায় কোথায় আজ সে! :(

এটা এই সেদিনের কথা। কোভিডের মাঝে আমার প্রিয় ভাইয়া অপু তানভীরের এক ফান পোস্টে আমি কমেন্ট করিতেছিলাম। যথারীতি ফানই করিতেছিলাম। সেই ফান সহ্য হইলোক না আমার এক সময়ের প্রিয় ভাইয়া আমার অনেক লেখার ভক্ত এবং প্রশংসাকারী এই ব্লগের সবচাইতে বিতর্কিত ভাইয়ামনিটার। ব্যাস সাথে সাথে তিনি আঁদা জল তেল নুন মসল্লা নিয়া বসিলেন মুড়ি মাখাইতে। সেই মুড়ি আজও মাখিয়েই যাচ্ছেন, মাখিয়েই যাচ্ছেন। হা হা হা এক্সপেরিয়েন্স সকল কাজকে উন্নত করে ক্ষুরধার করে। কিন্তু ভাইয়ামনি আজ মুড়ি মাখাইতে মাখাইতে ক্লান্ত। আঁদা রসুনের ঝাঁজ কমিয়া যাইতেছে। ভাইয়ামনিকে আমার সাজেশন অথবা অনুরোধ কিংবা উপরোধ আঁদা রসুন বদল করিয়া এইবার কাসুন্দি লইয়া বসুন। এত দিনের অভিজ্ঞতার ঝুলিতে এই অনুন্নতির কালিমা মোটেও গ্রহনযোগ্য নহে। :P


যাইহোক এই ব্লগ আমাদের কারোরই পারসোনাল প্রোপার্টি নহে তবুও এই ব্লগে লেখা রহিয়া যায় কত স্মৃতি বিস্মৃতির ইতিহাস। মাঝে মাঝে স্মৃতির দূয়ার হাতড়ে মনে পড়ে যায় সেই প্রিয় মুখগুলি। তাদের সাথে কাটানো সকল মধুর আনন্দময় ইতিহাস। তবুও যারা অপ্রিয় হয়ে গেলো। প্রিয় থেকে অপ্রিয়দেরকে নিয়ে কখনও লিখিনি। তাই আজ লিখে গেলাম ব্লগের পাতায় তাহাদের স্মৃতিগুলি।

যাইহোক ইনএকটিভ কাজে টাইম নষ্ট করিলেই আমার কেমন কেমন লাগে। জানিনা এই অপ্রিয় ভাইয়া আপুনিদের স্মৃতিগুলি লেখা আমার অকাজ বেকাজ কিনা তাই একখানা কাজের কাজ করি এইবার। আমার নতুন শিক্ষাগুরু যে আমার মত মহান শিক্ষিকাকে জ্ঞান দান করিয়া শিক্ষিত করিলেন সেই কাজের অর্ঘ্য প্রদান করি তাহার বেদীমুলে। কৃতজ্ঞতা আজীবন!!! ....... :)


O My Shaiyan bhaia

Take my love and good wishes for you.
[Verse]
O my Shaiyan bhaia take my love
Good wishes sent from above
Grateful for all that you do
You know the reason it’s true

[Verse 2]
You taught me lessons I hold dear
With you my path is always clear
O my Shaiyan bhaia hear
In my heart you’re always near

[Chorus]
Take my love take my wishes
You’ve filled my life with riches
O my Shaiyan bhaia
I’m grateful always for ya

[Verse 3]
In times of joy and times of pain
You’re the sunshine in the rain
Taught me to rise again
O my Shaiyan you’re my gain

[Chorus]
Take my love take my wishes
You’ve filled my life with riches
O my Shaiyan bhaia
I’m grateful always for ya

[Bridge]
Through every twist and bend
You’re my brother my best friend
O my Shaiyan till the end
This love will never bend



এইবার বাংলা গান- এটা আমার লেখা-:)


পরের জন্মে আরেকটাবার আসিস ফিরে,
বসিস এসে ময়ুরাক্ষী নদীর তীরে,
দেখিস ছুঁয়ে ফেলে আসা সময়গুলো/রংধনু রং,
রংধনু রং মিলিয়ে যাওয়া পথের ধুলো।

তখনও কোন পানকৌড়ির ডুবসাঁতারে,
পদ্মগুলো হাসছে নীরব কলোরোলে,
একটা কোকিল গাইছে কোথাও অনেক দূরে,
বাঁজছে বাঁশী অন্য কোনো চেনা সূরে।


তারা বানাইলো এটা- :(
পরের জন্মে ফিরে আসিস তুই
ময়ুরাক্ষী নদীর তীরে বসিস তুই

[Verse 2]
ফেলে আসা সময়গুলো দেখিস ছুঁয়ে
রংধনু রং
রংধনুর পথে

[Chorus]
পানকৌড়ির ডুবসাঁতার নীরবে
পদ্মগুলো তখনও হাসছে হেসে

[Verse 3]
একটা কোকিল গাইছে দূরে
বাঁজছে বাঁশী চেনা সূরে

[Chorus]
মিলিয়ে যাওয়া পথের ধুলো তুই
পরের জন্মে ফের এসে তুই

[Bridge]
তখনো কোকিল গান শুনিয়ে
নদীর তীরে সুখের স্মৃতি পেয়


শেষে গান গাইলো এই রকম একবার বাঁশি দিয়ে গাওয়াইলাম বেটাদেরকে....
আরেকবার গিটার ড্রামে :)

এটা নয়ন বড়ুয়া ভাইয়ার দেওয়া লিঙ্ক থেকে শেখা :)

মন্তব্য ১০৩ টি রেটিং +১৮/-০

মন্তব্য (১০৩) মন্তব্য লিখুন

১| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৪৭

নীল-দর্পণ বলেছেন: হায় আল্লাহ এত্ত এত্ত কাহিনী! আমিতো ভাবতাম তোমার সাথে কারো কিছু হতেই পারে না। আরো ভেবেছিলাম নামগুলো বুঝি লিখে দিলে কিন্তু পড়তে গিয়ে দেখি তুমি তোমারই মত সাজিয়ে গুছিয়ে একদম ফিটফাট করে উপস্থাপন করেছো। :)

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫০

শায়মা বলেছেন: হা হা তুমিও তো সেই আদ্দিকাল থেকে আছো...... চিনে নাও চিনে নাও!!!!!!!!! ধাঁধা আই লাইক!!!!!!!! দানোনা??? হা হা হা


আর আমার মত মহান শিক্ষিকাকে যেই শিক্ষাগুরু এআই দিয়ে সঙ্গীত রচনা শিখাইলো তাহার বেদীমূলে আমার তৈরী সঙ্গীতখানার রচনা কেমন হইলোক শুনো দেখো বলো!!!! :)

২| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫১

নজসু বলেছেন:


বুকিং দিয়ে রাখলাম বোন।
সময় করে আসবো।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫৪

শায়মা বলেছেন: হা হা আমার প্রিয় ভাইয়ামনিটা!!!

শিঘ্রী সময় করো। আর সময় না হলে আমার বানানো গানা খানা শোনো প্লিজ!!!!! :)

আমার সৃষ্টিসুখের উল্লাসে চোখ হাসে মোর মুখ হাসে মোর টগবগিয়ে খুন হাসে :)

৩| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫৩

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন:
হা হা হা। মজা পেলাম।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫৫

শায়মা বলেছেন: খুঁজে পেলে কাউকে???

না খুঁজে পাও গানাখানা শুনো কিন্তুক!!! :)

৪| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫৩

নয়ন বড়ুয়া বলেছেন: প্রাণীর চামড়া আর সাইয়্যান ভাইয়ার চুল, মিলে গেলো

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫৬

শায়মা বলেছেন: হা হা হা না না না শ্যাইয়ান ভাইয়ার চুল অমন নাকি!!!
এই চুল যারা প্রিয় থেকে অপ্রিয় হয়েছে তাদের! হি হি

৫| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ১:৫৮

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: লেখক বলেছেন: খুঁজে পেলে কাউকে???

না না। কাউকেই খুঁজে পাইনি। :)

গান শুনে জানাবো।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:০১

শায়মা বলেছেন: হা হা হা গুড গুড না খুঁজে পাইলেই ভালা!!!


গান শুনে ফেলো!!! এই গানা বানা আমার এখন থেকে অবশ্য চলতেই থাকবে। চলতেই থাকবে......

এরপরের গানা খানা নয়ন বড়ুয়া শিক্ষকের আন্ডারে রিলিজ হইবেক!!! :)

৬| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:০৮

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:






খুব ভালো হয়েছে!!!

গান বাংলায় প্রম্পট দিয়ে লিখা যায়। চেষ্টা করে দেখো।

আর, নিজের কণ্ঠও আপলোড করা যায়। তারপরে রিমিক্স করা যায়। পেইড ভার্সনে।

আমি পেইড ভার্সন ব্যবহার করি। :)

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১১

শায়মা বলেছেন: সব কব্বো ভাইয়ু!!!!!!!!!!!! :)
বাংলায় লিখবো এবং করবো শিঘ্রী!

নিজের কন্ঠ কেমনে করবো!!! :(
পেইড ভার্সন ছাড়া করা যায় না??

ওকে গান গেয়ে তোমাকে দিয়ে দেবো ভাইয়ু!!!!!!!!!!!!


তুমি বানায় দিও!!! :) আপাতত অন্যরে দিয়েই গাওয়াই!!! :)

৭| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:০৯

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:



আনপেইড ভার্সনে কিছু করবে না, প্লিজ।

সব কপিরাইট ওদের থাকবে।

কিন্তু, পেইডে কপিরাইট তোমার।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১২

শায়মা বলেছেন: কপিরাইট দিয়ে কি কব্বো!!!!!!!!

দুর দুর আমার লাগবে কপি রাইট!!

ওরা বানাই দিচ্ছে তাই দিয়ে দিলাম যাহ!!! নিয়ে বসে থাক!!! :P

৮| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:০৯

মোস্তফা সোহেল বলেছেন: ব্লগে কত জনের সাথে সখ্যতা গড়ে উঠেছে তার ঠিক নেই।কিন্তু বাস্তবে আমি কোনদিন কোন ব্লগারকে দেখিনি!
অনেকের সাথে দেখা করার ইচ্ছে হয় কিন্তু জানিনা সেই আশা পুরন হবে কিনা।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১৭

শায়মা বলেছেন: সেই আশা পুরন হবে কিনা জানিনা তবে সেই পাগলী শিল্পী আপুনি যখন তার মহান চিত্রকর্ম লইয়া পোস্ট লিখিয়াছিলেন তুমি উহাতে সন্দেহ পোষন করিয়াছিলে তাইতো তাইতো শায়মা আফাজান ঐ গায়ে মানে না আপনি শিল্পীর মতনই ছবি আঁকিয়াছেন তো সেই থেকে তোমার নাম স্মরন করিয়া রাখিয়াছি ভাইয়ু!!! X((


তবে সবকিছুরই শেষ হয়। আল্লাহ তায়ালা সীমা লংঘনকারীকে পসন্দ করেন না। :)

তাই তো আমি সীমার মাঝে অসীম থাকি
বাঁজাই আপন সূর!!! :)

ভাইয়ু আমি এই ব্লগে সেই ১৯৫৭ সাল থেকেই ছবি আঁকছি অংবং কোনো কুতুবিনী আসিয়া আউলফাউল বলিলেই কাঁচকলা দিয়া ভাত মাখাইয়া খাইয়া যাইবেক! :)

যাইহোক একটা কথা বলোতো সখ্যতাই শুধু গড়িয়াছে জানো তবে মনে মনে আমার এত্তু এত্তু অপ্রিয় হইয়া গিয়াছো জানিতে না!! হি হি :)

যাহাই হোক ভালো থাকিও অনেক অনেক !!! :)

৯| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১৪

পদাতিক চৌধুরি বলেছেন: পুত্রকে সময় দিতে আপাতত মোবাইলে লেখালেখি শিকেয়। কিন্তু মাঝেমধ্যে ওর আড়ালে লগ ইন না করে ঢুঁ মারি। প্রশ্ন মনে,এসব তো ভিন্ন পক্ষের কথা শুনলাম। এখন আপু আপনার হৃদয়ে যদি কোনো ব্লগারের লেখনিতে মোচড় দিয়ে উঠেছে কিনা সে সম্পর্কে কিছু জানতে চাই :)

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:২১

শায়মা বলেছেন: ওহ সে তো কতশতবার লিখলাম!!!
আমার প্রিয় প্রিয় এত্ত প্রিয়দের কথা। ওকে লিস্ট এনে দেবো নে।

তবে কোনো এক ব্লগারের আমার উপর অভিমান/ক্ষিপ্ত বিক্ষিপ্ত হওয়া লইয়া আমার আজও প্রান কান্দে মন কান্দে। :(
তাহার লাগিয়া আমার আজীবন চক্ষু কান্দে.....

কারণ সে আমাকে ভুল বুঝিয়া চলিয়া গিয়াছিলো!! সেই ভুল আমাকে ভাঙ্গাইবার সুযোগ দেন নাই!!! :(

১০| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১৬

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:




লেখক বলেছেন:

নিজের কন্ঠ কেমনে করবো!!! :(
পেইড ভার্সন ছাড়া করা যায় না??
==========================

না!!! পেইড ছাড়া করা যায় না।

সাবস্ক্রিপশনে ক্লিক করলেই দেখবে।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:২৩

শায়মা বলেছেন: হায় হায় কি জ্বালা।


আচ্ছা পেইডেই ট্রাই করবো নে তাইলে!!

থ্যাংক ইউ সো মাচ!!!!!!!!!!!!!!!!

না পারলে জ্যুম মিটিং করে শিখায় দিও ওকে???


অবশ্য আমি পারবো না তাই কি হয়!!! নিশ্চয় পারবো তাইনা??? :)

১১| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১৬

স্বপ্নবাজ সৌরভ বলেছেন: মোস্তফা সোহেল বলেছেন: অনেকের সাথে দেখা করার ইচ্ছে হয় কিন্তু জানিনা সেই আশা পুরন হবে কিনা

আসুন একদিন দেখা করি।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:২৪

শায়মা বলেছেন: দেখা করো দেখা করো ।

দেখা করে আমাদেরকে পোস্ট দিয়ে জানাও! :)

১২| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১৮

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:



নিজের কণ্ঠ না দিলে ভালো লাগবে না।

ঐখানকার সব কণ্ঠ আইয়ুব বাচ্চু, তাহসান, জেফির আর আরেকজন সিঙ্গারের (নাম বলবো না)।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:২৬

শায়মা বলেছেন: কেনো সেই সিঙ্গারের নাম বললে কি হবে???
সে কি তোমার প্রাক্তন প্রেমিকা নাকি!!! :-/

যাইহোক নিজের কন্ঠেই টেরাই করবো নে ভাইয়ু!!! :)

১৩| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:২৮

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:




লেখক বলেছেন: হায় হায় কি জ্বালা।


আচ্ছা পেইডেই ট্রাই করবো নে তাইলে!!

থ্যাংক ইউ সো মাচ!!!!!!!!!!!!!!!!

না পারলে জ্যুম মিটিং করে শিখায় দিও ওকে???


অবশ্য আমি পারবো না তাই কি হয়!!! নিশ্চয় পারবো তাইনা??? :)
==============================================


অবশ্যই তুমি পারবে!!! যদি ক্রেডিট ক্রেডিট কার্ড থাকে।

গানা হেভভি হয়েছে!!! ধন্যবাদ।

কিন্তু, পেইড ভার্সন ছাড়া ভালো উচ্চারণ আসবে না। ওটা দিবে না!!! :)

যেমন, আমার নামের দফারফা করে দিয়েছে!!!



২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:২৯

শায়মা বলেছেন: হা হা হা দফারফা করুক তবুও আমি খুশ!!!

ফার্স্ট টাইমে কি এত ভালো গাইতে পারবে বলো ঐ বৈদেশি মহিলা!!! :P

১৪| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:৩০

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:



ওকে, বলছি!!!

আমার খুবই প্রিয় গায়িকা - এলিটা।

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:৩৭

শায়মা বলেছেন: তো তার নাম বললে কি হবে!!!

বুঝেছি বুঝেছি বুঝেছি!!!!!!!!! :)

১৫| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:৪০

আলমগীর সরকার লিটন বলেছেন: আপা আমি ত মুগ্ধহইলাম ! বাংলাদেশ থেকে গান করতেন
এতোদিনে সুনাম যশ ছড়ে যেতে কবি আপা!
ভাল থাকবেন----------

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:৪৩

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া গানা শুনেছো!!!!


এরপর বাংলা গানা বানিয়ে আনছি বিকালের মধ্যে। আবার শুনে যেও।

১৬| ২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:৪১

কাজী ফাতেমা ছবি বলেছেন: আঁকাআঁকি নিয়ে কত গন্ডগোল হল আহারে সেই সময়গুলো। কী যেন নাম ছিল আপুল বিথি না কী যেন

আর কাউকে চিনতে পারছি না।

আমি ব্লগে সময় দিতে পারছি না এখন?

২৭ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:৪৬

শায়মা বলেছেন: হা হা ঐটুকু চিনতে পেরেছো তাই সই!!!
ব্রেইন ডিফেক্টদের নাম মনে করে লাভ কি?? হা হা

১৭| ২৭ শে জুন, ২০২৪ বিকাল ৩:৫৬

শ।মসীর বলেছেন: আহা ব্লগ !!! এক সময় এটা ছাড়া অচল ছিলাম, আর এখন এটার জন্য টাইম ই নাই :)

২৭ শে জুন, ২০২৪ বিকাল ৪:০৩

শায়মা বলেছেন: সেটাই আর এই নিয়ে আজও নানারকম পাগলামী চলছেই, চলছেই । :)

১৮| ২৭ শে জুন, ২০২৪ বিকাল ৪:১৯

হাসান মাহবুব বলেছেন: এই লিস্টে আমারও নাম থাকতে পারত। কিন্তু আমি বন্ধু পাতায়া লইছি আবার আপনার সাথে।

২৭ শে জুন, ২০২৪ বিকাল ৪:২৩

শায়মা বলেছেন: বন্ধুর চাইতেও কৃতজ্ঞতা বেশি ছিলো যখন তুমি আমার বিরুদ্ধে করা ঐ আশ্চর্য্য আচানক পাগলী পোস্টের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছিলে তখন বুঝেছিলাম তুমি আমার বসন্তদিনের প্রেমকাব্যে যতই হেট করে ডিসলাইক দাও না কেনো এত খারাপ মানুষ না আসলে। :)

তখন তুমি, আরইউ ভাইয়া, জিনি ভাইয়া, এমনকি শিপু ভাইয়া যে কিনা ব্লগেই আসতোনা সেও চলে এসেছিলো। সেই জন্যই বসন্তদিনে ডিসলাইক দিয়ে অপ্রিয় হয়ে যাওয়া থেকে আবার প্রিয়তে চলে আসলে। হা হা হা

১৯| ২৭ শে জুন, ২০২৪ বিকাল ৫:৫২

করুণাধারা বলেছেন: গান ভালো হয়েছে। কিন্তু তোমার গাওয়া রবীন্দ্র সংগীত যেমন তোমার গাওয়া বলে বেশ বুঝতে পারি, এই গান সেভাবে বুঝতে পারলাম না!! :|

২০১৭র সেই চোখ আঁকা নিয়ে তুমুল কান্ডের কথা মনে আছে। একজনকে দিয়ে ইউটিউবে তোমার বিরুদ্ধে বলিয়ে সেটাও ব্লগে দেয়া হয়েছিল বলে মনে হয়।

আরেকজন তোমার প্রিয় থেকে অপ্রিয় হয়ে গেছিল, শেষ পর্যন্ত ব্যান হতে হলো!! মাঝে মাঝেই পুরনো পোস্টে বৃহৎপক্ষীর মন্তব্য দেখে সেই ঘটনা মনে পড়ে যায়...

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:২১

শায়মা বলেছেন: যাকে দিয়ে বলিয়েছিলো সে পরে অনেক মাফ চেয়েছিলো না বুঝে বলেছিলো বলে।

আর বৃহৎপক্ষী আবার কে আপুনি!!!!!!
হায়রে সবাই দেখি ধাঁধায় ফেলে দিচ্ছে.......

২০| ২৭ শে জুন, ২০২৪ সন্ধ্যা ৬:১৯

সত্যপথিক শাইয়্যান বলেছেন:




@শ।মসীর,

তোমাকে দেখে ভালো লাগছে। সাস্টের পুরনো সাথীকে নিকগুলোর প্রথমে দেখে খুব ভালো লাগতো। পরে ঈর্ষা হতো যে কি করে প্রথম নামটা তোমার থাকে!!!

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:২২

শায়মা বলেছেন: হায় হায় শামসীর ভাইয়ু তোমার ফ্রেন্ড নাকি!!!!!!!!!!

আমি তো ভেবেছিলাম ভাইয়া অনেক বড় আর তুমি অনেক তোতো!!!

২১| ২৭ শে জুন, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৩২

মিরোরডডল বলেছেন:





তুমি যাদের নিয়ে লিখেছো, সে সময়ের কাউকে চিনি না আপু।
বাঁশির সাথে বাংলা গানটা ভালো লেগেছে।

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:২৩

শায়মা বলেছেন: থ্যাংক ইউ থ্যাংক ইউ!!

বাংলা গানের লিরিকস কিন্তু আমারই লেখা।
চ্যাটজিপিটি দিয়ে বানাইনি কিন্তু!!!

২২| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:১৩

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: এক হাতে তালি বাজে না। X((

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:২৫

শায়মা বলেছেন: হ্যাঁ তোমার মত ভীতুর ডিমদের হাতে কোনো তালিই বাঁজে না। বিপদ দেখলেই উল্টা দৌড়!!!

আমি কি তোমার মত ভীতু নাকি!!!!!!!!!!!! আর ছায়ার সাথে নিকের সাথে লড়াই এ কি যায় আসে!!! সে তো দিনরাত লড়ে চলা যায়।

তবুও তোমার ভুই...... নাহ আর পারি না ভীতুদেরকে নিয়ে.......

২৩| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:২৮

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: বেশী কথা বললে আবার হিন্দি গান শুনিয়ে দেবো কিন্তু।

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৩৫

শায়মা বলেছেন: জানি জানি তুমি ভয় পেলে হিন্দী মিন্দী সিন্ধিও শোনো.......

২৪| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৩০

কামাল১৮ বলেছেন: পড়লাম এবং জানলাম।

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৩৬

শায়মা বলেছেন: ভাইয়া
কোথায় ছিলে এতদিন!!

আগের পোস্টগুলো শিঘ্রী দেখো।

ব্লগার ভাইয়া আপুনিদের কত ছবি আঁকলাম!!!!!!!!!! :)

২৫| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৩৭

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আপনার এই পোস্টের সাথে আমার ভয় পাওয়ার কী সম্পর্ক? X((

শায়মা আপুকে খ্যাপাতে পেড়েছি মনে হয়। :)

২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৩৯

শায়মা বলেছেন: হি হি এই পোস্ট সেই পোস্ট নিয়েই বলেছি ভাইয়ু!!!


আমাকে খেপাবে!!! হা হা নহে নহে ভাইয়ু সে নহে এত সোজা!!!

২৬| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৪১

গিয়াস উদ্দিন লিটন বলেছেন: আমিও পোস্টে তেমন কাউকে সনাক্ত করতে পারিনি।
সামুতে আমি কারো বিরাগভাজন হয়েছি কিনা বলতে পারিনা। আমার বিরাগভাজন কাউকেও মনে করতে পারছিনা।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৩২

শায়মা বলেছেন: আহা তুমি মনে করতে না পারলেও আমি পারছি কার কার বিরাগভাজন হয়েছো ভাইয়া। @গিয়াস ভাইয়া

ফোন থেকে জবাব দিলে কমেন্টের মত করে আসছিলো। আমি কক্সেসবাজারে গিয়েছিলাম ভাইয়া।

২৭| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ৯:৪২

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: একটা মেয়ে নাকি আপনার স্কুলে গিয়ে অভিযোগ করেছিল?

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৩৪

শায়মা বলেছেন: আরে না আমার স্কুলে আসলে তো ঝুটকি ধরে আছাড় মারতাম!!

দূরে বসে ফোন দিয়েছিলো আর কি। হা হা

২৮| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১০:২৬

কামাল১৮ বলেছেন: পরিবারের সবাইকে নিয়ে ঘুরতে গিয়েছিলাম নিউইয়র্ক।তাই ব্লগে ছিলাম না।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৩৪

শায়মা বলেছেন: ভেরি গুড ভাইয়া!!!!!!!!!

আমিও কক্সেসবাজার গিয়েছিলাম। বৃষ্টির মধ্যে বসেছিলাম। একটু পর পর শুধু বৃষ্টি আসে!!! :(

২৯| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১০:৫৬

অপু তানভীর বলেছেন: যার কথা প্রথমে কইলা অনেক অনেক দিন তার কোন খোজ নাই। আগে তো তাও ফেসবুকে পরিচিতদের মন্তব্যে তার দেখা পাওয়া যেত বেশ কয়েক বছর একেবারে কোন খোজ নাই। কই আছে সে এখন?

আত দ্বিতীয়জন এখন আনোয়ার খানের একজন ডাক্তার।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৩৬

শায়মা বলেছেন: আছে জাহান্নামে। হা হা

আর দ্বিতীয়জনের হাতে না জানি কত জন মরছে। পাগল যদি ডক্টর হয় তো সেই পাগলের কাছে কি হয় কে জানে???

৩০| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:০৪

মনিরা সুলতানা বলেছেন: গান শোনার চেষ্টায় আছি।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৪৫

শায়মা বলেছেন: শোনো শোনো গান শোনো ।

এআই দিয়ে বানিয়েছি! :)

৩১| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:০৫

অপু তানভীর বলেছেন: কথা কিন্তু সত্যিই তাই। তর্ক করা চকে সুস্থ স্বাভাবিক বুদ্ধির কারো সাথে। ব্রেনলেস রামপাঠাদের সাথে কোন তর্ক নাই। আগে ধৈর্য বেশি ছিল। এখন এসব নাই। এরকম সব রাম্পাঠাকে নিজের ব্লগ থেকে ঝেটিয়ে বিদায় করি।
করোনার ঐ সময়ে ব্লগে অনেক সময় দেওয়া যেত। এখন আর হয় না। দিন দিন যেন সময় আরও কনে যাচ্ছে।
আর শুনো মুড়ি এখন ত্যাঁনায়ে গেছে। পাব্লিক ফ্রি দিলেও খাচ্ছে না। অবশ্য না, অন্তত একজন তো খাচ্ছেই। কে বল দেখি?

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৪৭

শায়মা বলেছেন: হা হা ঝালমুড়িওয়ালা। বর্ষাকালে মুড়ি ভিজে গেছে। :P

৩২| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:০৯

অপু তানভীর বলেছেন: উর্বী আফায় কেন সেদিন এমন করেছিল ক্যাডায় জানে? যদি সে নিজ থেকে ছবি আঁকত, নিজের ছবি তাহলে একটা কথা ছিল। সে নেট থেকে ইনস্পায়ার্ড হয়ে একেছে, অন্য কেউ যে একই ছবি থেকে আঁকতে পারে সেটা সেটা কি তার মাথায় ছিল না? এতো বোকা কিন্তু সে ছিল না। তবে সেই সময়ে তার এই পোস্ট অনেকেই নিজের ফেসবুক প্রোফাইলে শেয়ার দিছিল কিন্তু।

আমি সম্ভবত দ্বিতীয়জনকে চিনতে ভুল করেছি।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৪৮

শায়মা বলেছেন: জানি আবার যারা শেয়ার দিসিলো তারাই পরে এসে মাফ চেয়ে নিয়েছিলো। বলেছিলো ভুল হয়ে গেছে। হা হা হা ভুল হোক না হোক কিছু যায় আসে?????

তোমার তো সকল জনকেই চেনার কথা।

৩৩| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:২৩

বোকা মানুষ বলতে চায় বলেছেন: এইসব ব্যাপারগুলো আমার কাছে খুব হাস্যকর আর বালখিল্যতা মনে হয়..... B:-/

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫০

শায়মা বলেছেন: আসলেই। ব্লগে অনেকেই আশি বছর হলেও শিশুবালক রয়ে যায়। :)

৩৪| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:৩৭

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আপনি রেগে গিয়েছেন। এই গানটা শুনে মাথা ঠাণ্ডা করেন।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫১

শায়মা বলেছেন: আমি রেগে যাবো কেনো??? কি যেন হয়েছিলো!!! ভুলে গেছি ভাইয়া ......

সাগরজলে সিনান করি ভুলিয়া গেছি সকল কথা...... রাগ ...... দুস্ক........ অভিমান........

৩৫| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:৪২

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: আর মনিরা আপুর জন্য এই গানটা, আপনার শোনার দরকার নাই।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫১

শায়মা বলেছেন: এখনও কৈশোর শুনছি!!! :)

৩৬| ২৭ শে জুন, ২০২৪ রাত ১১:৪৮

মনিরা সুলতানা বলেছেন: ধন্যবাদ চুয়াত্তর!
কিন্তু আমি আক্ষরিক অর্থেই বর্জন করছি সবকিছু।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫২

শায়মা বলেছেন: কি কি কি ???????

৩৭| ২৮ শে জুন, ২০২৪ রাত ১২:৩২

দেয়ালিকা বিপাশা বলেছেন: পুরোনো স্মৃতি মনে করতে বা এই রকম লেখা পড়তে যদিও ভালো লাগে না তবুও তোমার লেখাটা একটুখানি পড়েছি। এসব জিনিসে আমার আবার কিছুটা মন খারাপ হয়।
আশা করি তুমি ভালো আছো আপু।

- দেয়ালিকা

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫৪

শায়মা বলেছেন: আমি ভালো আছি!!!!!!!!!!!!!! অনেক আনন্দে আছি!!!!!!!!!!!!!!!!!! বিপাশামনি!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

৩৮| ২৮ শে জুন, ২০২৪ রাত ১:১১

শায়মা বলেছেন: আহা তুমি মনে করতে না পারলেও আমি পারছি কার কার বিরাগভাজন হয়েছো ভাইয়া। @গিয়াস ভাইয়া

৩৯| ২৮ শে জুন, ২০২৪ রাত ১:১৬

শায়মা বলেছেন: ফোন দিয়েছিলো এবঙ নিজের পায়ে কুড়াল মেরেছিলো।@সাড়ে ভাইয়া।

৪০| ২৮ শে জুন, ২০২৪ রাত ১:৪৬

স্বপ্নের শঙ্খচিল বলেছেন: কভিডের পর মেমোরী হ্রাস পেয়েছে
তাই জটিল কথা পড়তে চাইনা ।

............................................................
গানের কথা খুব ভালো হয়েছে ।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৫৮

শায়মা বলেছেন: আহারে ভাইয়া!


গান শোনার জন্য অনেক অনেক থ্যাংকস! :)

৪১| ২৮ শে জুন, ২০২৪ রাত ২:৪১

সোহানী বলেছেন: হাহাহা বয়সের রোগ শায়মা :P

নিজের রাগ বলে ফেলতে পারাটা বিশাল কিছু।

তোমার সব ঘটনা মনে না থাকলে ও আকাঁআকিঁর ঘটনাটা মনে আছে। ;)

ব্লগ নিয়ে আমার মনে হয় তেমন কোন ঝামেলার ঘটনা নেই সাম্প্রতিক ইস্যুটা ছাড়া। সত্যি কথা আমি তেমন করে ব্লগে থাকতে পারি নাই কখনই। নিজের লিখা পোস্ট করে তার উত্তর দেবার পর কোন ক্যাচোলে জড়ানোর মতো সময় কখনই হাতে ছিল না। কেউ কেউ পায়ে পারা দিয়ে ঝগড়া করতে চেয়েছিল কিন্তু আমার নির্লিপ্ততায় বেশী উৎসাহ পায়নি। শুধুমাত্র এবারের বিষয়টা ছাড়া। এবার এ সাধু নামের লোকটার কান্ড কারখানা দেখে এতোটাই বিরক্ত হয়েছি যে বলার না। লোকটা চুপ থাকলে তাও মানতাম কিন্তু যেভাবে সে নাচানাচি শুরু করেছিল তাতে অবাক না হয়ে পারিনি। যাকগা.... ব্লগের কারো আর কিছুতে নাই আমি :-B

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:০০

শায়মা বলেছেন: কি বললে আপুনি!!! রাগ!!!!!!!!
হা হা হা হা ছায়ার সাথে লড়াই এ রাগ করে কোন পাগলে???

আঁকাআঁকির ঘটনায় পাগলের সাথে নিজেকেও একটু পাগল হতে হয়েছিলো আর কি...... :P

হা হা কারো কিছুতে নেই বললেই হবে???

থাকতে হবে থাকতে হবে!!!!!!!!!!! আমাদের সাথে....... :)

৪২| ২৮ শে জুন, ২০২৪ ভোর ৬:৪৯

এম ডি মুসা বলেছেন: ভুল তো মানুষের হয়।তার অবসান হয়, কিছু কিছু ভুল হলে মানুষ কোনদিন ফিরে আসেনা

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:০১

শায়মা বলেছেন: ঠিক তাই ভাইয়া। :)

কেনো যে আমরা ঝগড়া বিবাদে জড়াই আমরাই জানিনা......

জীবনের এ আরেক রূপ।

তুমি কেমন আছো ভাইয়ামনি??

৪৩| ২৮ শে জুন, ২০২৪ দুপুর ২:১৭

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: মেয়েটার আপনার স্কুলে কল দিয়ে অভিযোগ করা ঠিক হয়নি। আমি হলে আপনার বাবা এবং মায়ের কাছে অভিযোগ করতাম ছবি চুরির জন্য।

মেয়েটা মনে হয় ভালো ঝগড়া করতে পারতো না।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:০২

শায়মা বলেছেন: কি যে বলো ভাইয়া!!!!!!!!!!!!!!!!!!

আমার মারে চেনো তুমি!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!!

তার কাছে করলে আমার থেকে তো তবুও অল্পের উপর দিয়ে গেছে। আমার মায়ের ধারে কাছে গেলেই এক্কেরে কল্লা ছিড়ে ফেলতো!!!!!!!!! হা হা হা ভাগ্যিস চেনো নাই চেনো নাই আমার মাকে...... হা হা হা


ভাইয়া পাগলেরা যদি চিল্লায় তারে কি ঝগড়া বলে??

৪৪| ২৮ শে জুন, ২০২৪ সন্ধ্যা ৭:৪৪

প্রামানিক বলেছেন: অতীতের ক্যাচালের কথা মনে হলে এখনো হাসি পায়। নিক নামে কে যে কাকে ধোলাই করতো বোঝা মুশকিল ছিল।

০৪ ঠা জুলাই, ২০২৪ রাত ৮:০৩

শায়মা বলেছেন: হা হা ভাইয়া নিকের সাথে যুদ্ধ!!! হা হা হা

৪৫| ০৭ ই জুলাই, ২০২৪ সকাল ১১:২৪

সায়েম মুন বলেছেন: এই লিস্টে আমার নাম আছে বোধয়। সরাসরি নাম বলোনি এজন্য বেচে গেছি।

০৭ ই জুলাই, ২০২৪ সকাল ১১:৩৫

শায়মা বলেছেন: হা হা না নাই..... তুমি তো নির্বিবাদী মানুষ ছিলে। পিছে পিছে কি ছিলে তা ধরতে পারিনি হয়ত! হা হা

৪৬| ০৭ ই জুলাই, ২০২৪ দুপুর ১২:২৫

সায়েম মুন বলেছেন: সারাজীবন ঝগড়াঝাটি আমার ভাল লাগে না। কিন্তু দিনের পর দিন এখানে কেওয়াজ দেখেছি অনেক। কেওয়াজের ফলাফল না দেখা পর্যন্ত প্রচুর সময় ব্যয় হয়েছে। তবে ব্লগারদের মধ্যে হৃদ্যতাও দেখেছি অনেক, বন্ধুতা দেখেছি অনেক, সেই সাথে গ্রুপিং। সেটা পজিটিভ নেগেটিভ দুই অর্থেই ছিল। অনেকে এখানকার পরিচয়ে বাস্তবে সংসার পেতেছেন। খুব ভাল বিষয় একটা। ব্লগে এসে একই ধারার মনের মানুষ খুঁজে পেয়েছেন। আমি অনেক ভাল কিছু লেখক/কবি/ব্লগারকে এখানে দেখেছি যারা হারিয়ে গিয়েছেন, তারা সব সময় মনের মনিকোঠায় জায়গা করে নিয়েছেন। ব্লগ বলতে সেই মানুষগুলির কথা চোখের কোণে ভেসে উঠে। তবে মনে পড়ে সেই দিনগুলোর কথা যখন তোমার পোস্টে তোমার মাথা ছাড়া ছবি দেখতাম। কি একটা অবস্থা! মাথা ছাড়া একটা মানুষ ব্লগে নিয়মিত সুপারহিট সব পোস্ট দিয়ে যাচ্ছেন এবং সবার ভালবাসা কুড়াচ্ছেন।
যাই হোক পিছে পিছে কি ছিলে তা ধরতে পারিনি হয়ত!!--- এই বিষয়টা নিয়ে কথা বলবো না। নিজেকে কিছুটা ঢাকনা দিয়েই রাখি। কারণ আমিই হয়ত আমাকে চিনিনা এখনো, এখনো একজন মানুষ হওয়ার চেষ্ঠায় আছি। একটা কথা বলি মানুষ চেনা খুব সহজ বিষয় না। বাস্তবতা আর ভার্চুয়াল দুটি ভিন্ন বিষয়। দুটি আলাদা মুখ। জটিল কথা বলে ফেললাম কিনা জানিনা। ভাল থেকো, সুস্থ সুন্দর জীবন কাটাও। আমার জন্য দোয়া রাখিও। ব্লগে সময় দেয়া খুব মুশকিল এখন। তারপরও ইতিহাস লিখে ফেললাম।

০৭ ই জুলাই, ২০২৪ দুপুর ১:২৯

শায়মা বলেছেন: হা হা হা আমার মাথা কাটা হাত কাটা এমনকি পাও কাটা ছবি দিয়ে স্যুপারহিট হইবার কৌশল নিয়ে একখানা বই লিখিতে হইবেক।
আসলেই আমি লুইজ্জাবতী লতা। অনলাইনে বা ভারচুয়াল জগতে কখনই প্রকাশিত হতে চাইনি। আমি আমার নিজের গন্ডির মাঝে থাকতে ভালোবাসি। তবে কোভিডের সময় নানা রকম অনলাইন একটিভিটি এবং পরবর্তীতে টিভির কিছু অনুষ্ঠানে অনিচ্ছাকৃতভাবে ভারচুয়াল জগতে প্রকাশিত হয়ে পড়েছিলাম। তাই হাত পা মাথা সব জোড়া লাগিয়ে বেরিয়ে এলাম। :)

৪৭| ০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:০৫

একলব্য২১ বলেছেন: মনটা এখন একটু কেমন জানি। মোবাইলে দিয়ে সামুতে ঢুকলাম। তোমার ব্লগবাড়িতে আসলাম। নতুন লেখা। নিশ্চয়ই পড়বো। ও যে কথা বলার জন্য ব্লগে লগ ইন করা। তোমাকে দেখলাম অনলাইনে। নতুন লেখা। মন খুব ভাল হয়ে গেল শায়মা আপু। কি জাদু আছে তোমার personality তে। :)

০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:৪৫

শায়মা বলেছেন: একলব্য ভাইয়ু।

নতুন তো একটা না কয়েকটা দিয়েছি। তোমার ছবি আঁকলাম তারপর গাান লিখলাম তারপর এটা। দু এক দিনের মাঝেই নতুন পোস্ট এনে ফেলবো ইনশাল্লাহ!!! এখন কেমন আছো? তোমার বাড়ির সবাই ভালো? আজকাল তো এক্কেবারে কমিয়ে দিয়েছো ঢু মারা এই ব্লগে..... :)

৪৮| ০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:৫৪

একলব্য২১ বলেছেন: আমি ভাল আছি। বাড়ির সবাই ভাল আছে। ক্ষুদের হাফ ইয়্যারলি পরীক্ষা শুরু হয়েছে।

একটা প্রশ্ন। অনলাইনে মলিকে :D দেখলে তোমার মনে কি অনুভভূত (feelings) হয়। জানিতে ইচ্ছা করে। :)

০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১০:৫৯

শায়মা বলেছেন: মলি আর এলি মানে তুমি একলব্য এদেরকে নিজের সিন্ডিকেট মেম্বার মনে হয়। হা হা হা যদিও সিন্ডিকেটে তোমাদের দুজনের কাউকেই ভর্তি করানো হয়নি এবং তোমরা দুজনের কেউই চাইবেনা কোনো সিন্ডিকেটে আসতে। তবে আমার এমনই হয়। তোমাদেরকে দেখলে আপন লাগে। মনে হয় নিজের মানুষ। :) তোমাদের দুজনের কাউকেই আমি দেখিনি আর ব্লগ বন্ধ হয়ে গেলে কখনই দেখবো না তবুও সারাজীবন মনে থাকবে।

তুমি আর মিররমনি দুজনেই নিজেদেরকে ১০০% হাইড করে রেখেছো তবুও এই নিক দুইটার চেহারাই জীবন্ত হয়ে বেঁচে থাকবে আমার মনে।

৪৯| ০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:০৩

একলব্য২১ বলেছেন: হ্যাঁ। অসুখের পর আমি আর আগের মত সামুতে অনেক সময় ধরে থাকি না। কিন্তু একটা কথা কি শায়মা আপু সামু আমার একটা ভাল লাগার স্থান। এখানে আসলে আমার মন এমনেতেই ভাল হয়ে যায়। সামু আমার একটা খুব প্রিয় অবসর কাটানোর জায়গা। উপরন্তু, তোমাদের ভালবাসাময় আমি সিক্ত। কৃতজ্ঞতায় আবদ্ধ। :)

০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:০৮

শায়মা বলেছেন: তুমি কি শুনেছো বা জেনেছো যে সামু কোনো না কোনো সময় বন্ধ হয়ে যাবে?

অপু তানভীর ভাইয়ার পোস্ট পড়। কাভা ভাইয়ার ইন্টারভিউ পড়ো।

যদিও সব কিছুরই শেষ আছে। তবে সেই সব দিনে আমাদের চোখে ভাসবে কত শত চেনা অচেনা অদেখা নিকস।

যাদের সাথে ইহজীবনে আর কখনও দেখা হবে না। নিকগুলিকেও না।


তারপরেও বলবো সেই শেষদিনটা নিয়ে এখুনি ভয় পাবার কিছু নেই।

৫০| ০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:৩৬

একলব্য২১ বলেছেন: সামু বন্ধ হলে অসহায় হয়ে যাব শায়মা আপু।

আমার ওজন বেড়েছে। আবার ৮৭ কেজি হয়ে গেছি। নিউরোলজিস্ট অনেক মেডিসিন কমিয়ে দিয়েছে। বাম চোখের দৃষ্টিতে খুবই সামান্য সমস্যা আছে। ধীরে ধীরে ব্রেইন তা adaptation করে নিবে বলে নিউরোলজিস্ট বলছে। এনি ওয়ে ভাল আছি।

০৮ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:৩৯

শায়মা বলেছেন: ভালো হয়ে উটবে ইনশা আল্লাহ!
তবে সামুর সাথে সাথে অনেকই আমরা হারিয়ে যাবো।

৫১| ১০ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ৯:২০

ডঃ এম এ আলী বলেছেন:




ঠিকই বলেছ এই ব্লগ আমাদের কারোরই পারসোনাল প্রোপার্টি নহে তবুও এই ব্লগে লেখা রহিয়া যায় কত
স্মৃতি বিস্মৃতির ইতিহাস। মাঝে মাঝে স্মৃতির দূয়ার হাতড়ে মনে পড়ে যায় সেই প্রিয় মুখগুলি। তাদের সাথে
কাটানো সকল মধুর আনন্দময় ইতিহাস। তবুও যারা অপ্রিয় হয়ে গেলো। প্রিয় থেকে অপ্রিয়দেরকে নিয়ে
কখনও লিখিনি। তাই আজ লিখে গেলাম ব্লগের পাতায় তাহাদের স্মৃতিগুলি।


এটা একটা দারুন প্রয়াস , বিস্মৃতির অতলে থাকা প্রিয় অপ্রিয় সকলেই ভেসে উঠবে অচিরেই,
ঠিক যেন বিলের বুকে ফুটিয়ে তোলা তোমার সেই সুন্দর পদ্ম ফুলের মত -

স্বরচিত গানেও উঠে এসেছ সে কথাই বাঁশির সুরের মতই ।
পরের জন্মে ফিরে আসিস তুই
ময়ুরাক্ষী নদীর তীরে বসিস তুই
ফেলে আসা সময়গুলো দেখিস ছুঁয়ে
রংধনু রং
রংধনুর পথে
পানকৌড়ির ডুবসাঁতার নীরবে
পদ্মগুলো তখনও হাসছে হেসে
( সমবেত সুরে আমরাও গাইব এ সাথে )
একটি কোকিল ডাকছে দুরে
বাঁজছে বাশী চেনা সুরে ।

তবে বাঁশির সেই চেনা সুর কি সবাই শুনতে পায়?
ইদানিং অনেককেরই দেখা পাওয়া যায়না প্রিয় বা অপ্রিয়দের
উঠানের সদ্য প্রস্ফুটিত বাগানে গিয়ে সে গান শুনতে।

শুভেচ্ছা রইল

১০ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:১৫

শায়মা বলেছেন: হা হা থ্যাংক ইউ ভাইয়ামনি!!!


আসলেই এই জনমে যারা অপ্রিয় হয়ে যায় পরের জন্মে তারা হয়ে উঠুক আবার প্রিয় সকল ভুল ত্রুটি দ্বিধা দ্বন্দ কাটিয়ে।


ভাইয়া ইদানিং অনেক বেশি ব্যস্ততায় ডুবে গেছি। তাই মাঝে মাঝেই চুপ থাকি একটু সময় পেলেই সরব হয়ে উঠি।

অনেক ভালোবাসা ভাইয়ামনি

৫২| ১০ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:২১

গোপাল ভাঁড়ের ছোট ভাই বলেছেন: এঁ.....মাঁ........ এততো ঘটলা!!!!
তা আমি কি তোমাল প্লিয়? নাকি অপ্লিয়???

১০ ই জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:২৩

শায়মা বলেছেন: হা হা তুমি আমাল প্লিয়। কিন্তউ তাবদান অপ্লিয় হয়ে যেও না যেন তাইলে কপালে দুস্ক ছাড়া সুস্ক নাহি কহিলাম। :)

৫৩| ২১ শে জুলাই, ২০২৪ রাত ১১:২২

শার্দূল ২২ বলেছেন: পোস্টের ছবিটা ভালো লাগেনি

আমি আগেও বলছি , একটা মানুষ কোন ভাবেই সবার কাছে প্রিয় থাকতে পারেনা সব সময় কারণ সবাই যেখানে সমান নয় তুমি সবার চোখে সমান থাকতে হলে তোমাকে অভিনেত্রী হতে হবে। যারা সবার কাছে ভালো থাকতে চায় তাদের নিয়ে আমার সব সময় মাথা ব্যথা থাকে।

আর এখানে তো বিষয়টা আর বেশি ভয়াবহ।

কেমন আছো? দেশে নেট নেই, তোমার আঙ্গুল গুলোকে থামাচ্ছো কিভাবে?

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.