নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

সেলিম আনোয়ার

[email protected] Facebook-selim anwar বেঁচে থাকা দারুন একটা ব্যাপার ।কিন্তু কয়জন বেঁচে থাকে। আমি বেঁচে থাকার চেষ্টা করি।সময় মূল্যবান ।জীবন তার চেয়েও অনেক বেশী মূল্যবান।আর সম্ভাবনাময়।সুন্দর।ঢাকাবিশ্বদ্যিালয়ের পাঠ চুকিয়ে নিরস চাকুরীজীবন।সামনে আরও নিরস ভবিষ্যৎ। নিরস জীবন সরসভাবে কাটানোর প্রচেষ্টায় আমি সেলিম আনোয়ার।

সেলিম আনোয়ার › বিস্তারিত পোস্টঃ

আর্টেসিয় কূপ

১২ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ রাত ৮:১৪







আর্টেসিয় কূপ।দারুণ মজার ব্যাপার।যখন কোন প্রবেশ্য লেয়ারের উপরে ও নিচে অপ্রবেশ্য লেয়ার বা স্তর দিয়ে সীল করা থাকে।আর স্তরটি একটি ইউ আকারের হয় তখন ইউর মাঝখানে ছিদ্র করলে অবিরাম পানি বের হতে থাকে।

ফ্রান্সের আর্টস নামক স্থানে এই রকম কূপ প্রথম হয় বিধায় একে আর্টেসিয় কূপ বলে।এই পানি আগের দিনে সর্বরোগের ঔষধ মনে করে ব্যবহার করা হত।বিদেশী গল্প উপন্যাসে এই ধরণের কূপের কথা উল্লেখ আছে।এই রকম একটি কূপ দেখলাম উত্তর জাঙ্গিরাই গ্রামে,জয়ফর নগর ইউনিয়ন ,জুরী উপজেলা ,মৌলভীবাজার জেলার।রোগমুক্তি হোক আর না হোক এটি কিন্তু প্রকৃত মিনারেল ওয়াটার বা খনিজ পানি।এটি ভৌগলিক অবস্থান ২৪.৬০৯৪৫ ডিগ্রী উত্তর অক্ষাংশ ও ৯২.১১৭৯৫ ডিগ্রী পূর্ব দ্রাঘিমাংশ।

এটা সপ্লাই পানি ভাবা ভুল হবে।

এটি অনেক গভীরে বসানো হয়েছে।বার মাস এখান থেকে অবিরাম পানি পড়তে থাকে। প্রথমে ভেবেছিলাম পানির অপচয় করছে এলাকার লোকজন।

পরে যখন জানতে পারলাম এটি আর্টেসিয় কূপ।মুগ্ধ হয়ে দেখতে থাকলাম।

মন্তব্য ৪ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (৪) মন্তব্য লিখুন

১| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ রাত ১:০৭

কান্ডারি অথর্ব বলেছেন:

দারুন জিনিষ ভাই

২| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ রাত ১:২৯

তারছেড়া লিমন বলেছেন: আর্টেসিয় বিষয় টা একটু খোলাসা করেন ভাই.......

৩| ১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ দুপুর ১২:১৬

সাদা রং- বলেছেন: এটা কি পানির অপচয় না।

১৩ ই ফেব্রুয়ারি, ২০১৩ সন্ধ্যা ৭:৩৫

সেলিম আনোয়ার বলেছেন: আল্লাহই ভালো জানে ।
আমার মনে হয় না।এটা মুগ্ধ হওয়ার মত বিষয়।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.