নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

আলহামদুলিল্লাহ। যা চাইনি তার চেয়ে বেশি দিয়েছেন প্রিয়তম রব। যা পাইনি তার জন্য আফসোস নেই। সিজদাবনত শুকরিয়া। প্রত্যাশার একটি ঘর এখনও ফাঁকা কি না জানা নেই, তাঁর কাছে নি:শর্ত ক্ষমা আশা করেছিলাম। তিনি দয়া করে যদি দিতেন, শুন্য সেই ঘরটিও পূর্নতা পেত!

নতুন নকিব

যবে উৎপীড়িতের ক্রন্দল-রোল আকাশে বাতাসে ধ্বনিবে না, অত্যাচারীর খড়্গ কৃপাণ ভীম রণ-ভূমে রণিবে না- বিদ্রোহী রন-ক্লান্ত। আমি সেই দিন হব শান্ত।

নতুন নকিব › বিস্তারিত পোস্টঃ

ইসলামে সৌন্দর্য্যপ্রীতি

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ রাত ২:৫১



আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহ সুবহানাহু ওয়াতাআ'লার নিয়ামতের শুকরিয়া আদায় করে শেষ করা সম্ভব নয়। তিনি তাঁর অসীম দয়ায় আমাদের ইসলাম ধর্মের মত এমন একটি জীবন বিধান মনোনীত করেছেন, যে ধর্ম সুন্দরের ধারক ও বাহক। ব্যক্তি জীবনের সকল ক্ষেত্র থেকে শুরু করে মানুষের চারপাশের সব কিছুর পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতা ও অবস্থাভেদে আভিজাত্যের প্রকাশকেই সৌন্দর্য বলে ধরে নেয়াা যায়।

নোংরা, অপবিত্র তালিযুক্ত পোশাক পরিহিত উসকোখুসকো চুল, দাড়ি ও গোঁফের অধিকারী ব্যক্তির বুজর্গী দাবি করা প্রতারণা বৈ কিছু নয়। তাই প্রত্যেক মানুষের উচিত সাধ্যানুযায়ী উত্তম পোশাক পরিধান, সুন্দর ও সুশৃঙ্খল জীবন-যাপন করা। কেননা ইসলাম নোংরা, অপরিচ্ছন্ন ও উচ্ছৃঙ্খল জীবন-যাপনকে সমর্থন করে না। সামর্থ না থাকলেও পুরাতন কাপড়ে সুন্দর, পরিপাটি ও সুশৃঙ্খল জীবন-যাপনই ইসলামের সৌন্দর্য বহন করে। কুরআন ও হাদিসে তার সুস্পষ্ট নির্দেশনা রয়েছে। যা তুলে ধরা হলো-আল্লাহ তাআলা কুরআনে উল্লেখ করেন,

‘হে মুহাম্মাদ! (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) তাদেরকে বলে দিন, আল্লাহ তাঁর বান্দাদের জন্য যে সব সৌন্দর্য সামগ্রী সৃষ্টি করেছেন, সেগুলো কে হারাম করেছে? আর আল্লাহর দেয়া পবিত্র জিনিসগুলো কে নিষিদ্ধ করেছে? বলুন, দুনিয়ার জীবনেও এ সমস্ত জিনিস ঈমানদারদের জন্য, আর কিয়ামাতের দিনে এগুলো তো একান্তভাবে তাদেরই জন্য হবে।' (সুরা আ’রাফ : আয়াত ৩২)

আল কুরআনের সূরাহ আল মুদ্দাসসির এ বর্ণিত হয়ে,
'(হে চাদরাবৃত!) আপন পোশাক পবিত্র করুন এবং অপবিত্রতা থেকে দূরে থাকুন।' সূরাহ আল মুদ্দাসসির, আয়াত, ৪-৫

ইসলামের আধ্যাত্মিকতার দোহাই দিয়ে তালিযুক্ত নোংরা পোশাক পরিধান করে অপবিত্র জীবন-যাপন করার কোনো সুযোগ নেই। শুধুমাত্র কুরআনের নির্দেশনাই নয়, বিশ্বনবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামও অবস্থাভেদে সাধ্যানুযায়ী স্মার্ট জীবন-যাপন করতেন। যা ইসলামের সৌন্দর্যকে অলংকৃত করেছে।

এক হাদিসে এসেছে, একবার সাহাবিদের একটি দল রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের সঙ্গে দেখা করার জন্য তাঁর ঘরের দরজায় অপেক্ষা করছিলেন। তিনি তাদের সঙ্গে দেখা করতে বের হওয়ার আগে পানি রাখা একটি পাত্রের ভিতর তাকিয়ে নিজের চুল-দাড়ি ঠিক করে নিচ্ছিলেন। উম্মুল মু'মিনীন হজরত আয়িশা সিদ্দিকা রাদিয়াল্লাহু আনহা বললেন,

'হে আল্লাহর রাসুল! আপনিও এমন করছেন?'

আল্লাহর রাসূল সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বললেন,

'হ্যাঁ, কোনো ব্যক্তি তার ভাইয়ের সঙ্গে সাক্ষাতের উদ্দেশে বের হওয়ার পূর্বে যেন প্রস্তুতি নিয়ে, পরিপাটি হয়ে বের হয়। জেনে রেখো, আল্লাহ নিজে সুন্দর এবং তিনি সৌন্দর্যকে ভালোবাসেন।'

হাদিসে প্রিয়নবী হজরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছে, 'আত্বুহূরু শাতরুল ঈমান।'

অর্থাৎ, পবিত্রতা ঈমানের অঙ্গ।

এই হাদিস থেকে ইসলামের পবিত্রতা ও পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার গুরুত্ব অনুধাবন করা সম্ভব।

সুতরাং উসকোখুসকো চুল, ময়লা-ছেঁড়া তালিযুক্ত অপবিত্র কাপড় পরিহিত ব্যক্তি কখনোই পরহেজগার হতে পারে না। এগুলো কুরআন-সুন্নাহর সম্পূর্ণ পরিপন্থী। এ ধরণের নোংরা জীবন-যাপনকারী ব্যক্তিরাই মানুষকে গোমরাহি তথা মুর্খতার দিকে নিয়ে যায়। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে কুরআন সুন্নাহর সত্যিকারের শিক্ষা উপলব্ধি ও অনুধাবন করে তার উপর সঠিকভাবে আমল করে সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও সুশৃঙ্খল জীবন-যাপন করার তাওফিক দান করুন। ইসলাম ধর্মের সত্যিকার আদর্শ ধারণ করে আলোকিত জীবন গড়ার কিসমত দান করুন। আমিন।

ছবিঃ গুগল।

মন্তব্য ১২ টি রেটিং +১/-০

মন্তব্য (১২) মন্তব্য লিখুন

১| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ভোর ৪:৫৮

বলেছেন: পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা ঈমানের অঙ্গ

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৩৭

নতুন নকিব বলেছেন:



গুরুত্বপূর্ণ হাদিস বলেছেন। মূলত আলোচনা যাতে দীর্ঘায়িত না হয়, সেজন্য অনেক তথ্য এবং রেফারেন্স পরিহার করেছি।

শুভকামনা এবং কৃতজ্ঞতা।

২| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ভোর ৬:৩৪

রাবেয়া রাহীম বলেছেন: আসসালামু আলাইকুম ।
কেমন আছেন?

পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা সম্পর্কে খুব সুন্দর লিখেছেন । ভাল লাগলো

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ দুপুর ১২:৪২

নতুন নকিব বলেছেন:



ওয়াআলাইকুমুসসালাম ওয়ারহমাতুল্লাহি ওয়াবারাকাতুহ।

আলহামদুলিল্লাহ। আল্লাহর রহমতে ভালো আছি। আপনারা কেমন আছেন?

সামান্য এই লেখাটি আপনার মনযোগ আকর্ষনে সক্ষম হয়েছে দেখে খুব খুশি হলাম। ভালো থাকবেন সবসময়।

৩| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ভোর ৬:৪৬

সনেট কবি বলেছেন: চমৎকার পোষ্ট। আল্লাহ আপনার মঙ্গল করুন।

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:০১

নতুন নকিব বলেছেন:



জাজাকুমু্ল্লাহু তাআ'লা খাইর।

উপস্থিতির জন্য কৃতজ্ঞতা।

ভালো থাকুন অনুক্ষন।

৪| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৭:০৮

এস এম ইসমাঈল বলেছেন: ইসলাম ধর্ম মানুষের প্রকাশ্য জীবন বা সমাজ জীবন (জাহেরি) আর গোপন (বাতেনী) মননশীলতা ও চরি্ত্র দুটোকেই সমান গুরুত্ব দিয়েছে। এখানে নোংরামির কোন সুযোগ নাই। সুফীবাদ মানুষের এই দুই অবস্তাকেই রুচিশীল ও পবিত্র করার সাধনা করার জন্য
সদা চেষ্টিত।
সুন্দর একখানা পোষ্ট দেয়ার জন্য মুবারাকবাদ।যাযাকাল্লাহু খায়রান।

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:১২

নতুন নকিব বলেছেন:



মোবারকবাদ।

উপস্থিতি এবং অতিব গুরুত্বপূর্ন সুন্দর একটি মন্তব্য রেখে যাওয়ায় কৃতজ্ঞতা।

ইসলাম ধর্ম মানুষের প্রকাশ্য জীবন বা সমাজ জীবন (জাহেরি) আর গোপন (বাতেনী) মননশীলতা ও চরি্ত্র দুটোকেই সমান গুরুত্ব দিয়েছে। এখানে নোংরামির কোন সুযোগ নাই। সুফীবাদ মানুষের এই দুই অবস্তাকেই রুচিশীল ও পবিত্র করার সাধনা করার জন্য সদা চেষ্টিত।

সুফীবাদের নাম শুনেই যাদের নাক ছিটকানোর স্বভাব তাদের বুঝার অনেক কিছুই বাকি। সুফীবাদের সৃষ্টি হয়েছিল তাযকিয়ায়ে নফস -এর উদ্দেশ্যে। ধীরে ধীরে উম্মাতের অতি স্পর্শকাতর এই জায়গাটির দখল নিতে শুরু করেছে ভন্ড বেশরা ফকির জটাধারীগন। ফলশ্রুতিতে সরলপ্রান মানুষ বিশ্বাস করে করে নিপতিত হচ্ছে ধোঁকা-প্রতারণায়। এসব আগাছাদের কারণেই আজ ইসলামের মৌলিক এই বিষয়টি আজ প্রশ্নের মুখোমুখি। এ অবস্থার আশু পরিবর্তন হোক।

জাজাকুমু্ল্লাহু তাআ'লা খাইর।

৫| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সকাল ৭:৫০

রাজীব নুর বলেছেন: সকালবেলা এই পোষ্ট আমাকে শান্তি দিল।

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:১৩

নতুন নকিব বলেছেন:



মা-শাআল্লাহ। জাজাকুমুল্লাহ।

আপনার উপস্থিতি প্রতিটি পোস্টেই যেন অনিবার্য। আল্লাহ পাক আপনার প্রতি রহম করুন।

৬| ০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ সকাল ১০:১৫

হাবিব স্যার বলেছেন: ইন্নাল্লাহা জামিলুন ইউহিব্বুল জামাল

০৩ রা ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ বিকাল ৪:১৫

নতুন নকিব বলেছেন:



জ্বি, তাই।

সম্পদ থাকা সত্বেও ছেঁড়া জামা, জটাবাধা চুল, বেশ ভূষায় অগোছালো এসব ইসলাম ধর্মের আদর্শ নয়। ইসলামে বৈরাগ্যবাদের স্থান নেই।

ভালো থাকবেন অনেক অনেক।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.