নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

শব্দকবিতা : শব্দেই দৃশ্য, শব্দেই অনুভূতি \n\[email protected]

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই

দুঃখের কবিতাই শ্রেষ্ঠ কবিতা। ভালোবাসা হলো দুঃখ, এক ঘরে কবিতা ও নারী।

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই › বিস্তারিত পোস্টঃ

একদিন পেছন থেকে একটি মেয়ে নাম ধরে ডেকেছিল

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:১৬

একদিন পেছন থেকে একটি মেয়ে ছেলেটার নাম ধরে ডেকে উঠলো। ছেলেটা চমকে পেছনে তাকালো। কোনোদিন কোনো মেয়ে এভাবে তাকে ডেকে ওঠে নি; এমনকি তার দিকে তাকিয়ে স্মিত একটু হাসে নি। তাই সে অনেক অবাক হলো, এবং রোমাঞ্চে চঞ্চল হয়ে উঠলো।
পেছনে মেয়েদের ভিড়। ক্লাস ছুটি হলো কিছু আগে। মেয়েরা কলকলিয়ে, হাস্যোচ্ছন্দে দুলে দুলে হাঁটছে।
ঐ শ্যামলা মেয়েটি : সবার মাথা ছাড়িয়ে ওর পুষ্পিত কেশদাম বাতাসে উড়ছে। দূর থেকে চোখদুটো গভীর কুয়াশার মতো। ওরা একই ক্লাসে পড়ে। অতি সাধারণ গোবেচারা ছেলেটা লাজুক এবং নিরীহ অন্তর্মুখী।
মেয়েটি নামিয়ে নিয়েছে চোখ। দ্বিধান্বিত পায়ে একটু দাঁড়িয়েছিল ছেলেটা, তারপর হাঁটতে থাকলো। হাঁটতে হাঁটতে ভাবতে থাকলো সে : কেন তাকে আচানক নাম ধরে ডেকে উঠলো নাজনীন; তাকে কেউ কখনো ভাববে, এমনটা সে কখনো ভাবে নি। মাটিতে চোখ ফেলে সে হাঁটছিল আর ভাবছিল- হয়ত-বা অবচেতনে অলিগলি ঘুরে ঘুরে তাকেই খুঁজছিল মেয়েটি।
তখন গৃহোন্মুখ মেয়েরা তাকে পাশ কাটিয়ে সামনে চলে গেছে, এবং যেতে যেতে বার বার, বারংবার তার দিকে নাজনীন তাকালো না; কে তাকে ভিড় থেকে নাম ধরে ডেকেছিল, তার কোনো চিহ্ন ফুটলো না কোথাও।
এরপর যথানিয়মে ওরা ক্লাসে গেছে। আমোদে ঢলে পড়েছে, আড্ডায় সখীদের পিঠ চাপড়ে গল্প করেছে নাজনীন; নাজনীনের মনে কোনো ঢেউ ছিল না, ছেলেটার মনে যেমন ঝড় ছিল।
ওরা ক্লাসে যেত। ওদের চোখাচোখি হতে পারতো যখন-তখন - কখনো হয় নি; কিছু আলাপ-সালাপ হতে পারতো দৈনন্দিন ক্লাসপাঠ্য নিয়ে - তাও হয় নি; ছেলেটা আকুল হয়ে ভেবেছে একদিন নিরালায় জিজ্ঞাসা করে - 'কীজন্য সেদিন ডেকেছিলে, নাজনীন?' - সেটাও বলে নি। কারণ, বহুদিন গত হলে ছেলেটা ধরে নিল- সেদিন তার শোনাটাই ভুল ছিল।

০৪ ডিসেম্বর ২০১৯


মন্তব্য ২৬ টি রেটিং +৩/-০

মন্তব্য (২৬) মন্তব্য লিখুন

১| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:২৮

জুল ভার্ন বলেছেন: ভালো লেগেছে।

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৪০

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ধন্যবাদ জুল ভার্ন ভাই। শুভেচ্ছা।

২| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫১

তারেক ফাহিম বলেছেন: লাজুক ছেলে, চালাক মেয়ে।

গল্প চালিয়ে যেতে নিন, স্নাতোকত্তর পর্যায় ছেলেটি যখন মেয়েটি বাচ্চা কোলে সত্যি কথাটা বলে দিবে B-)

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: হাহাহাহা। গল্প তো আপনি জমিয়ে দিয়ে শেষ করে দিলেন :)

৩| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৬

সৈয়দ সদানন্দ বলেছেন: ভাই খলিল মাহমুদ, সময়টা তখন কত ছিল?
বয়স ছিল কত তখন নাজনীনের :-B ?


আর পর্বটা কি ধারাবাহিক চলবে?

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৪

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: প্রশ্নবানে তো লেখক ক্ষত-বিক্ষত হয়ে গেল :( :) :)

সমটা অমন ছিল, যখন কিছু ছেলের বুক থাকে খুব ভীরু, অথচ যে-কোনো মুহূর্তে প্রেমে পড়ে যাবার জন্য প্রস্তুত :)

বয়স আর কত হবে - ১৫ থেকে ৪০ এর মধ্যে :)

এটাই এক ও অদ্বিতীয় পর্ব। এক পর্বে সমাপ্ত বড়ো গল্প :)

শুভেচ্ছা রইল সৈয়দ সদানন্দ। সদা আনন্দে থাকুন

৪| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৭

কূকরা বলেছেন: :D

০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:০৫

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ক্বুক্বুক্বুক ক্বুক্বুক্বুক ক্বুক্বুক্বুক ক্বুক্বুক্বুক ক্বুক্বুক্বুক

৫| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:২২

রাজীব নুর বলেছেন: আপনার রসবোধ প্রবল।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১১:৫৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ধন্যবাদ নায়করাজ রাজীব ভাই।

৬| ০৪ ঠা ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১১:৫৭

শিখা রহমান বলেছেন: ভালবাসা যে কখনো কখনো কেবলই কল্পনা, কেবলই ঘোর...শুধুই অলীক স্বপ্ন!!

লেখাটায় মন কেমন করা আছে। ভালো লেগেছে।

শুভকামনা প্রিয় ব্লগার।

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:০৫

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: লেখাটায় মন কেমন করা আছে। আপনি তো ব্যাপারটা ধরে ফেললেন :)

ভালো লেগেছে জেনে ভালো লাগলো আপু।

ভালো থাকবেন। শুভেচ্ছা।

৭| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১২:২৫

ফয়সাল রকি বলেছেন: নামটা কি বেশি কমন ছিল?

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:১২

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ঐ নামে পুরো স্কুলেই কেউ ছিল না :)

৮| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সকাল ১০:১৮

পদ্ম পুকুর বলেছেন: মনে কী দ্বিধা রেখে গেলে চলে
সে দিন ভরা সাঁঝে,. যেতে যেতে দুয়ার হতে
কী ভেবে ফিরালে মুখখানি--. কী কথা ছিল যে মনে॥

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৬

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: এখানে ব্যাপারটা একটু উলটোই ঘটেছিল মনে হয়। ছেলেটাই মনের ভেতর বিরাট একটা দ্বিধা বহন করে যাচ্ছিল- মেয়েটা কী কারণে তার নাম ধরে ডেকেছিল। আদৌ কি তাকে ডেকেছিল?

যাই হোক, কেমন আছেন পদ্ম পুকুর?

৯| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৩১

ফয়সাল রকি বলেছেন: নাম কমন হওয়ায় আমার ক্ষেত্রে বেশ কয়েকবার এমন হয়েছে যে, ডাকলো অন্য কাউকে রেসপন্স করলাম আমি!

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ দুপুর ১২:৪৬

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: তাহলে তো ভালোই :)

১০| ০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ বিকাল ৫:০৫

মনিরা সুলতানা বলেছেন: কিছু ঘোরলাগা সময় থাকে, বাতাসে প্রিয় কেউ নাম ধরে ডাকে!

০৫ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৭:২৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন:
কিছু ঘোরলাগা সময় থাকে
বাতাসে প্রিয় কেউ নাম ধরে ডাকে


চমৎকার বলেছেন আপু। মুগ্ধ হলাম।

এটা সেই ঘোরলাগা সময়েরই গল্প

১১| ০৬ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৯:৩১

মলাসইলমুইনা বলেছেন: সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই,
স্যরি, একটা অভিযোগ করতেই হচ্ছে ।
এই লেখাটা এক্সটেনশন করে একটা গল্প না লেখা গুনাহ্গারির পর্যায়ভুক্ত হয়ে যায় কিন্তু ।এক্সাক্টলি এই প্লটটাতেই একটা গল্প বিনির্মাণ করুন প্লিজ !

১২ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ১০:৫৩

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: হাহাহাহাহা। আমাকে তো গুনাহগার হবার অবস্থায় ফেলে দিলেন :) ঘটনা তেমন কিছু না, এইটুকুই

শুভেচ্ছা রইল।

১২| ০৭ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:১৬

আমি তুমি আমরা বলেছেন: ছেলেটার শোনাতেই ভুল ছিল হয়ত।

১২ ই ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:১৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: শেষ পর্যন্ত এর বাইরে অন্য কোনো অনুসিদ্ধান্ত হয় না :(

১৩| ২৮ শে ডিসেম্বর, ২০১৯ সন্ধ্যা ৬:৩১

মিরোরডডল বলেছেন: ছেলেটার অবচেতন মন চেয়েছিল মেয়েটি তার নাম ধরে ডাকুক
তাই হয়তোবা শুনেছিল

২৯ শে ডিসেম্বর, ২০১৯ রাত ৮:০৯

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: মেয়েটা ঠিকই ডেকেছিল। এটা একটা সত্য ঘটনা তবে, ওর ডাক শুনে ওর দিকে তাকানোর সাথে সাথে মাথা নামিয়ে নেয়। লজ্জা পেয়েছিল।

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.