নির্বাচিত পোস্ট | লগইন | রেজিস্ট্রেশন করুন | রিফ্রেস

শব্দকবিতা : শব্দেই দৃশ্য, শব্দেই অনুভূতি \n\[email protected]

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই

দুঃখের কবিতাই শ্রেষ্ঠ কবিতা। ভালোবাসা হলো দুঃখ, এক ঘরে কবিতা ও নারী।

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই › বিস্তারিত পোস্টঃ

অণুবীক্ষণ - একটা কবিতার ভেতরে পরিভ্রমণ

৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ সন্ধ্যা ৭:৫৭

রহস্য ঘুচে গেলে আর কোনো মাধুর্য নেই
তখন পরকীয়া বঁধু আর ঘরের নারীতে অভিন্ন গন্ধ

সকল বসন ও ভূষণ খুলে ফেলো
যেটুকু রহস্য লুকিয়ে রাখো, অমৃত সেটুকু

অণুবীক্ষণে তোমাকে দেখি। গভীর আড়ালে একফোঁটা নির্যাস
তোমার মাধুর্য শুষে খাই, সবটুকু নিঃশেষে

২৭ জুন ২০১৩


পরিভ্রমণ কিংবা ব্যবচ্ছেদ অথবা পাদটীকা

এ লেখাটাকে ধীরে ধীরে পড়ুন। প্রথমেই ধরে নিন যে, এটি একটা এক লাইনের কবিতা, এ রকম:

রহস্য ঘুচে গেলে আর কোনো মাধুর্য নেই

এরপর, আবার পড়ুন। এবার দ্বিতীয় লাইনটি বাদ দিয়ে পড়ুন:

রহস্য ঘুচে গেলে আর কোনো মাধুর্য নেই

সকল বসন ও ভূষণ খুলে ফেলো
যেটুকু রহস্য লুকিয়ে রাখো, অমৃত সেটুকু

অণুবীক্ষণে তোমাকে দেখি। গভীর আড়ালে একফোঁটা নির্যাস
তোমার মাধুর্য শুষে খাই, সবটুকু নিঃশেষে


দ্বিতীয় লাইনটা উপমা হিসাবে ব্যবহৃত হয়েছিল, যা উপরের লাইনের অর্থকে সম্প্রসারিত বা সাপোর্ট করে।


এরপর পড়ুন কেবল মাঝখানের দুই লাইন :

সকল বসন ও ভূষণ খুলে ফেলো
যেটুকু রহস্য লুকিয়ে রাখো, অমৃত সেটুকু


একজন নারীর সাথে তুলনীয় এ লাইনটাতে নারীকে কেবল উপমা হিসাবে ব্যবহার করা হয়েছে। নারীর কথা ভুলে গিয়ে অন্য কিছু ভেবে দেখুন তো!

শেষ দুই লাইন আলাদা ভাবে পড়বার সময় হলো? পড়ুন :

অণুবীক্ষণে তোমাকে দেখি। গভীর আড়ালে একফোঁটা নির্যাস
তোমার মাধুর্য শুষে খাই, সবটুকু নিঃশেষে


এ দু লাইন মাঝখানের দু লাইনের সাথে সম্পর্কযুক্ত। কিন্তু মাঝখানের লাইনের সাথে না মিলিয়ে পড়ুন। এখানেও নারী? হ্যাঁ। তবে নারীকে বাদ দিয়ে অন্য কিছু ভাবা যায় কিনা দেখুন।

তোমার মাধুর্য শুষে খাই, সবটুকু নিঃশেষে

আপনার ভেতরের সবচেয়ে নিরেট, খাঁটি, সৎ ও মহৎ বস্তুটাই হলো অমূল্য নির্যাস। আমরা সেই নির্যাসের মাধুর্যই খুঁজে বেড়াই অপর মানুষের মধ্যে।

এতক্ষণ যে কাজটা করলেন, তার নাম বীক্ষণ, বা গভীর বীক্ষণ, যার নাম হতে পারে অণুবীক্ষণ।



***

এবার আমার অন্য দু-একটুকরো কবিতা, যা আপনারা কেউ কেউ পড়ে থাকবেন, সামান্য সারমর্ম বলে যাচ্ছি এখানে।

***

কবিতারা

কিছু পাখি মাথা ছুঁয়ে উড়ে যাবে, কিছু তোমার হাতে এসে বসবে
সব ফুলে গন্ধ থাকে না, সব ফুল সুন্দর নয়, যদিও এর নাম ফুল
সবপাখি ছুঁতে চেয়ো না
তেমনি, গন্ধ শুঁকো না সব ফুলেও

৮ অক্টোবর ২০১৮

ব্যাখ্যা : কিছু পাখি মাথা ছুঁয়ে উড়ে যাবে, কিছু তোমার হাতে এসে বসবে - কিছু কবিতা পড়ার পর মনে হবে, এর অর্থ আমি বুঝে গেছি। কিছু পড়ার সাথে সাথেই হৃদয়ঙ্গম হবে, এতটা প্রাঞ্জল।

সব ফুলে গন্ধ থাকে না, সব ফুল সুন্দর নয়, যদিও এর নাম ফুল
সবপাখি ছুঁতে চেয়ো না
তেমনি, গন্ধ শুঁকো না সব ফুলেও - সব কবিতায় মূল্যবান বার্তা থাকে না, যদিও আমরা কবিতা বলে থাকি। সব কবিতায় বার্তা খোঁজাও অর্থহীন, যেমন সব ফুলে গন্ধ থাকে না।

***

কবিতা হলো সময়ের সাক্ষী, বা বলা চলে সময়ের স্বাক্ষর। আমি কবিতার নীচে রচনাতারিখ লিখে রাখি, যা আমাকে ঐ সময়ের ঘটনাকে স্মরণ করিয়ে দিতে সহায়তা করে। অনেক রচনাকালের গভীরে রক্তাক্ত ইতিহাস লুকিয়ে আছে।

***

কালপাখি

আমাদের কালপাখিটা ভয়ানক এক সুড়ঙ্গের মধ্যে আটকা পড়ে
ছটফট করছে। পাখা ঝাপটাচ্ছে। সে মুক্তি চায়।
আকাশে ডানা মেলে উড়ে যেতে চায় দিগন্ত থেকে দিগন্ত।
কিন্তু, সে জানে, কোনোদিন এ বন্দি খাঁচা থেকে তার মুক্তি হবে না।
সে বেঁচে থাকবে, কী মরে যাবে, that doesn't matter
to any one of the world.

২৩ ডিসেম্বর ২০১৯





মন্তব্য ১৪ টি রেটিং +৪/-০

মন্তব্য (১৪) মন্তব্য লিখুন

১| ৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৮:৫৫

সাড়ে চুয়াত্তর বলেছেন: কবিতার ক্লাসের মধ্যে ঢুকে যাব বুঝতে পারিনি। আগে জানলে বাড়ির কাজ করে তবে ক্লাসে আসতাম। এখন হাল্কা পাতলা বুঝে আর বাকিটা না বুঝে কেমন বিব্রতবোধ করছি। আমার জন্য প্রাথমিক পাঠ না শেষ করে উঁচু ক্লাসের বই না পড়াই মনে হয় উত্তম। যাই হোক লেখাটা পরে ঠাণ্ডা মাথায় বোঝার চেষ্টা করবো।

৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:২০

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ওরে বাপ রে বাপ! কমেন্ট পড়ে তো বিরাট লজ্জার মধ্যে পড়ে গেলাম, এর জবাব কী হয় তা নিয়ে ভাবতে ভাবতে পুরাই বাকহারা হইয়া গেলাম!! কবিতার ক্লাস বললেই তো খুব হাই সাউন্ডিং কিছু ক্লাসিক সাবজেক্টের মতো শোনায়, যার ধারে কাছেও এ পোস্ট যায় না :) যাই হোক, নিছক মনের খেয়ালে নিজের কবিতাকেই একবার বিশ্লেষণ করেছিলাম। একবার শেয়ার করেছিলাম। আজকে আবার মনের খেয়ালেই রিপোস্ট করলাম।

বিরাট মন্তব্যে লজ্জায় পড়ে গেছি কিন্তু। যাই হোক, অনেক ধন্যবাদ।

২| ৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ৯:৪৬

মা.হাসান বলেছেন: রহস্য ঘুচে গেলে মাধুর্য নেই। কবিতার ব্যাপারটা কিছুটা রহস্যময় হয়ে থাক না। পাঠক নিজেই ডানা মেলে উড়ুক।

৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:১০

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: কবিতা চিরকালই রহস্যময় :) এ রহস্য ভেদ করতে গেলে আরো বেশি রহস্যময় হয়ে ওঠে। এজন্য আপনার অনুজ্ঞাই যথার্থ - কবিতার ব্যাপারটা কিছুটা রহস্যময় হয়ে থাক না। পাঠক নিজেই ডানা মেলে উড়ুক।

পোস্ট পাঠ ও কমেন্টে ধন্যবাদ প্রিয় মা হাসান ভাই। শুভেচ্ছা।

৩| ৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:৪৪

রাজীব নুর বলেছেন: ধীরে ধীরেই পড়লাম।

সহজ সরল সুন্দর। ভাষা চমৎকার।

৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:১১

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ধীরে ধীরে পড়ার জন্য ধন্যবাদ রাজীব নুর ভাই। শুভেচ্ছা।

৪| ৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১০:৪৯

শায়মা বলেছেন: এত কষ্ট করে কবিতার জাল খুলতে হবে? গেছি তাইলে ভাইয়া।

৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৩১

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: হাহাহাহাহাহা। ভালো প্রশ্ন তো! আমার মতে একটা ভালো কবিতা হলো সেই কবিতা, যা পড়লে কিংবা পাঠ বা আবৃত্তি শুনলে এমনিতেই মনের ভেতর একটা ভাবাবেগ সৃষ্টি হয়। মনে হবে, কবিতায় যা বলা হয়েছে, সবই আমি বুঝে গেছি, কিন্তু ব্যাখ্যা করতে গেলে দেখা যাবে কিছুই বলতে পারছি না। আমরা কত গান শুনি, শিল্পীর সাথে সুর মিলিয়ে গাই। গানগুলো আমাদের অন্তরে ঢুকে যায়। কিন্তু গানের কথাগুলোর মানে খুঁজতে গেলে অনেক সময়ই দেখা যায়- ওটা বুঝি না।

কবিদের কাজ কবিরা করেন
কবিতা লেখেন তাই
ভেতরে বিপুল মানিক রতন
কিবা ধুলোবালিছাই

জহু্রি যেমন জহর চেনেন
সোনার পাঠক হলে
ধুলোবালিছাই বিছানো পথেও
মাটি ফুঁড়ে সোনা ফলে


৫| ৩০ শে সেপ্টেম্বর, ২০২০ রাত ১১:৫৪

মোঃমোস্তাফিজুর রহমান তমাল বলেছেন: কবিতাগুলোর ব্যাখ্যাই দিয়ে দিয়েছেন বলে ভালো লাগলো । প্রথম কবিতাটা পড়ে আমার মনে হয়েছিলো যে আপনি মানুষের অকপটতার কথা বলেছেন।সৎ মানুষ,রহস্যময় নয়।শেষে এসে দেখলাম কাছাকাছি গেছে ধারণা।
দ্বিতীয়টা পড়ে মনে হয়েছিলো যে,সবকিছু আমাদের মনমতো হবে না।কিছু জিনিস সহজেই আমাদের হৃদয়ঙ্গম হবে,কিছু হবে না।আর সবকিছুতে যথার্থতা খুঁজতে নেই। এটা ধারেকাছেও যায় নি মূলভাবের।
এবার তৃতীয়টার কথা বলি পড়ে মনে হয়েছে কালপাখি মানে আমাদের বাকস্বাধীনতা অথবা বিবেক।যাকে আটকে রাখা হয়েছে নানাভাবে।তারা মুক্তি চায়।
এই ধরণের কবিতার ক্লাস মাঝে মাঝে দরকার।তাহলে কবিতার মর্মোদ্ধার সহজ হবে।পোস্টের জন্য ধন্যবাদ।

০২ রা অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:২১

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: আপনার বিশ্লেষণগুলো চমৎকার, অনেক ভালো লাগে।

যে-কোনো লেখা, গল্প হোক বা কবিতা, এমনকি কোনো ঘটনা, বা সিনেমা দেখার পর একজন মানুষের মনে ওটা সম্পর্কে যে ধারণা হয়, ওটাই হলো ঐ লেখাটার নির্যাস। লেখক হয়ত একটা ভালো উদ্দেশ্য নিয়ে লেখাটা লিখেছেন, কিন্তু পাঠক ওটাকে নেগেটিভলি নিলেন, বা এর উলটোটাও ঘটতে পারে- কোনো নিম্ন মানের, অরুচিকর লেখা পড়ে পাঠক অভিভূত হলেন- বাহ! কী সুন্দর! কোনো লেখার পাঠকই হলেন মূল চরিত্র, যিনি লেখাটার যুগোপযোগিতা নির্ণয় করেন।

আমার এ লেখাটা বিশ্লেষণ করেছি শুধু এটা বোঝাতে যে, আমি এ লেখাটার মধ্য দিয়ে উপরের বর্ণনার মতোই কিছু একটা বলতে চেয়েছি। কিন্তু, এটাই আমার লেখার ইউনিভার্সেল সাবস্ট্যান্স না। অন্য যে-কোনো পাঠক আমাকে চ্যালেঞ্জ করে বলতে পারেন, আমার নিজের লেখা কবিতার ব্যাখ্যা আমি ঠিকমতো দেই নি, এবং তিনি তার মতো করে একটা ব্যাখ্যা দাঁড় করাতে পারেন। এজন্যই দেখা যায়, কোনো ঘটনা পর্যালোচনা করতে গেলে একেক জনের পর্যালোচনা একেকরকম হয়ে থাকে।

অপ্রাসঙ্গিকভাবে অনেক গুলো কথা বলা হয়ে গেল।

ভালো থাকবেন তমাল ভাই।

৬| ০১ লা অক্টোবর, ২০২০ বিকাল ৫:৫৭

মিরোরডডল বলেছেন:



রহস্য ঘুচে গেলে আর কোনও মাধুর্য নেই । এটাতো একটা ইউনিভার্সাল ট্রুথ ।

কবিতা শেখার আসর :|

বীক্ষণ আর অণুবীক্ষণে পার্থক্য কি ?

এরকম পোষ্ট দিলে সাথে যেনো মেডিসিন দেয়া হয় ।
মাথাটা যেনো কেমন ঝিম ঝিম করছে :(

পড়লাম, পরিভ্রমণও করলাম কিন্তু কিছু শিখলাম কি ! 8-|








০২ রা অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৩০

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন:

রহস্য ঘুচে গেলে আর কোনও মাধুর্য নেই । এটাতো একটা ইউনিভার্সাল ট্রুথ ।
হ্যাঁ।


বীক্ষণ আর অণুবীক্ষণে পার্থক্য কি ?
অভিধান দেখতে হবে। বীক্ষণ অর্থ নিরীক্ষা করা, বা গভীরভাবে, চুলচেরা বিশ্লেষণ করা। অনুবীক্ষণ মানে আরো গভীরভাবে বিশ্লেষণ করা, যেমন অনুবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে ক্ষুদ্রাতিক্ষুদ্র জিনিসটা দেখা হয়।

কিছু শেখানোর জন্য না, নিজের অভিমত বা অভিব্যক্তিটাই বর্ণনা করেছি। বলতে পারেন, একটা জিনিস আপনি যেভাবে দেখছেন, আমি হয়ত ঠিক ঐভাবে না, অন্যভাবে দেখছি, তার একটা উদাহরণ দেয়া।

৭| ০১ লা অক্টোবর, ২০২০ রাত ৮:৩৩

ঢুকিচেপা বলেছেন: ব্যাখ্যা দিয়েছেন বলে কিঞ্চিৎ বুঝে গেলাম।

০২ রা অক্টোবর, ২০২০ দুপুর ১২:৩৮

সোনাবীজ; অথবা ধুলোবালিছাই বলেছেন: ধন্যবাদ ঢুকিচেপা :)

আপনার মন্তব্য লিখুনঃ

মন্তব্য করতে লগ ইন করুন

আলোচিত ব্লগ


full version

©somewhere in net ltd.